‘বিষয়টা আসলে ভুল বোঝাবুঝি ছিল’

দিন কয়েক আগে একটি খবরে অবাক হন ক্রিকেট অঙ্গনের সবাই। ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে সিরিজ খেলতে বিমানে চেপে বসবে যে দল, সরকার থেকে পাওয়া সেই দলের সফরের অনুমতিপত্রে নাম নেই ওয়ানডে অধিনায়ক মাশরাফি বিন মুর্তজার! বিষয়টি স্বভাবতই আলোড়ন ফেলে বেশ।

শুরু আর শেষটা ভালো হয়নি : মাশরাফি

তবে এবার জানা গেল ঘটনার আসল রহস্য। বিসিবি থেকে যে অনুমতিপত্র বা জিও দেওয়া হয়েছে, সেটি শুধু টি-২০ সিরিজের জন্য। এই ফরম্যাট থেকে মাশরাফি অবসর নিয়েছেন অনেক আগেই। তালিকায় তাই তার নামার থাকার প্রশ্নই আসে না। টি-২০ সিরিজের দুটি ম্যাচ অনুষ্ঠিত হবে যুক্তরাষ্ট্রের ফ্লোরিডায়। যুক্তরাষ্ট্রের ভিসা পাওয়া জটিল বলে একটু আগেভাগেই সরকারের পক্ষ থেকে এই অনুমতিপত্র দেওয়া। মাশরাফির নাম না থাকা নিয়ে যে চাঞ্চল্য সৃষ্টি হয়েছে, সেটি নিছক ‘ভুল বোঝাবুঝি’।

Also Read - বাড়ছে ভারতের বিপক্ষে বাংলাদেশের ম্যাচের সংখ্যা

বৃহস্পতিবার বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের প্রধান নির্বাহী নিজামউদ্দিন চৌধুরী সুজন এ বিষয়ে সংবাদমাধ্যমকে বলেন-

‘বিষয়টা আসলে ভুল বোঝাবুঝি। প্রথম যে চিঠিটা গেছে এটা মূলত টি-টোয়েন্টি দলের। আমেরিকার ভিসার প্রক্রিয়া যেহেতু জটিল, আমাদের ক্রিকেট পরিচালনা বিভাগ টি-২০র প্রাথমিক দলে থাকতে পারে এমন খেলোয়াড়দের নাম আগে পাঠিয়েছে।’

টেস্ট ও ওয়ানডে দলে যারা খেলবেন, তাদের নামে অনুমতিপত্র আসবে আরও পরে। সেই সাথে আসবে আসবে কোচ কোর্টনি ওয়ালশ, ট্রেনার মারিও ভিল্লাভারায়ন ও ফিজিও-ট্রেনারদের অনুমতিপত্রও।

নিজামউদ্দিন চৌধুরী বলেন, ‘টেস্ট ও ওয়ানডে দলে থাকতে পারে এমন খেলোয়াড়দের নাম পরে যাবে।’

দুটি টেস্ট, তিনটি ওয়ানডে ও তিনটি টি-২০ ম্যাচের সিরিজ খেলার জন্য আগামী জুনে উইন্ডিজ সফরে যাবে বাংলাদেশ জাতীয় দল। প্রতিটি সফরের আগেই সরকারের কাছ থেকে অনুমতি পত্র পেতে হয় খেলোয়াড়দের, যাতে সহজ হয়ে যায় সফরের সব আনুষঙ্গিক কাজ। যুক্তরাষ্ট্র সফরে ভিসা পাওয়া অন্যান্য দেশের তুলনায় একটু জটিলই। সেই নিমিত্তেই একটু তড়িঘড়ি করে দেওয়া হয়েছে টি-২০ স্কোয়াডে থাকতে পারেন এমন খেলোয়াড়দের জিও।

আরও পড়ুনঃ ‘টেস্টের উন্নতি ওয়ানডের চেয়েও বড় অর্জন’