SCORE

সর্বশেষ

এখনও বিকল্প প্রস্তাব পায়নি বিসিবি

আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে কখন কোথায় কী ‘ঘটবে’ বা আয়োজিত হবে, সেটি নির্ধারিত থাকে অনেক আগে থেকেই। বোর্ডগুলোর দ্বিপাক্ষিক সম্মতিতে সিরিজ আয়োজনের কথা বাদ দিলে, বাকি সব সিরিজের ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয় আইসিসির সভাতেই। ভবিষ্যতের এই ফিক্সচার বা সূচিকে বলা হয় আইসিসির ফিউচার ট্যুর প্ল্যান বা এফটিপি।

এখনও বিকল্প প্রস্তাব পায়নি বিসিবি

তবে সেই এফটিপিকে রীতিমতো বুড়ো আঙুল দেখিয়ে বিশ্ব ক্রিকেটের পরাশক্তি অস্ট্রেলিয়া এবার স্থগিত করেছে বাংলাদেশ সিরিজ। এতে আগস্টে বাংলাদেশের যে অস্ট্রেলিয়া সিরিজ হওয়ার কথা ছিল, সেটি আর হচ্ছে না। সফরে স্বাগতিকদের বিপক্ষে দুটি টেস্ট ও তিনটি ওয়ানডের পৃথক দুটি সিরিজ খেলার কথা ছিল বাংলাদেশের।

Also Read - বৃথা গেল প্যান্টের ঝড়

তবে অস্ট্রেলিয়ান গণমাধ্যমের সংবাদ অনুযায়ী, বাংলাদেশের জন্য সফরের সুযোগ একেবারে বন্ধ করে দেয়নি ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া। ২০২০ বিশ্বকাপকে সামনে রেখে কন্ডিশনের সাথে খাপ খাইয়ে নেওয়ার সুবিধার্থে ২০১৯ সালের শেষদিকে অস্ট্রেলিয়ায় আয়োজিত হতে পারে একটি ত্রিদেশীয় টি-২০ সিরিজ, যেখানে অংশ নেবে বাংলাদেশও।

তবে বিসিবির প্রধান নির্বাহী নিজামউদ্দিন চৌধুরী সুজন জানিয়েছেন, এখনও সিএ-র কাছ থেকে এমন কোনো প্রস্তাব পায়নি বিসিবি। তিনি বলেন-

‘আমরা এখনো ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়ার কাছ থেকে কোনো আনুষ্ঠানিক প্রস্তাব পাইনি। বিশ্বকাপের আগে বা পরে, অথবা অন্য কোনোসময় এই সিরিজ আয়োজনের ব্যাপারে আর কোনো কথা হয়নি আমাদের।’

ওয়ানডে ও টেস্ট সিরিজ বাতিলের মাধ্যমে সফর স্থগিত করার পেছনে সিএ যুক্তি দেখিয়েছে ‘আর্থিক লাভ না হওয়ার শঙ্কা’। তবে এমন আচরণে পেশাদারিত্ব নষ্ট হয়েছে বলে মনে করছেন ক্রিকেট সংশ্লিষ্টরা। এ নিয়ে সুজন বলেন, ‘আন্তর্জাতিক প্রতিশ্রুতি রক্ষা করতে ক্ষতিপূরণ দিয়েও আমরা সিরিজ আয়োজন করেছি। বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড যদি এটা করতে পারে, তাহলে ভবিষ্যতে বিশ্বের বড় বড় ক্রিকেট বোর্ডও এটা করবে আশা করছি।’

তবে দুই বোর্ডের মধ্যকার এমন টানাপড়েনে দেশ দুটির মাঝে কোনো নেতিবাচক প্রভাব পড়বে না বলেই আশাবাদ তার, ‘না! দুই দেশের সম্পর্কে প্রভাব পড়ার মতো কিছু না এটি। ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া নানা সময়ে আমাদের সহযোগিতা করেছে। আমরা টেস্ট স্ট্যাটাস পাওয়ার পরে আমাদের সঙ্গে ওদের দ্বিপাক্ষিক প্রতিশ্রুতি ছিল। খেলোয়াড়-আম্পায়ারদের প্রশিক্ষণে তারা আমাদের অনেক সহযোগিতা করেছে। তারা এবারও বলেছে, আমাদের সঙ্গে তাদের সম্পর্ক যেটা আছে সেটা থাকবে এবং আগামীতে এটি আরও উন্নত হবে।’

আরও পড়ুনঃ এক দিনে কোহলির দুই ম্যাচ!

Related Articles

বল টেম্পারিংয়ের কারণে সন্তান হারিয়েছেন ওয়ার্নার

“অস্ট্রেলিয়ার সমস্যাটা কোথায়?”

দিবা-রাত্রির টেস্ট না খেলায় ভারতের সমালোচনায় মার্ক

ভিন্ন টুর্নামেন্ট দিয়ে মাঠে ফিরছেন স্মিথ-ওয়ার্নার-বেনক্রফট

পেইনের অধিনায়কত্বে ওয়ার্নের বিরক্তি!