SCORE

সর্বশেষ

শীঘ্রই ইনজেকশন দেওয়া হবে তাসকিনকে

পিঠের ব্যথা সারিয়ে তোলার জন্য শীঘ্রই ইনজেকশন দেওয়া হবে বাংলাদেশ জাতীয় দলের পেস বোলার তাসকিন আহমেদকে।

পেসারদের জন্য অন্যরকম চ্যালেঞ্জ দেখছেন তাসকিন

২০১৫ সালে পিঠে ব্যথা পেয়েছিলেন তাসকিন। সেই ব্যাথা সম্প্রতি আবারো নাড়া দেয় তাসকিনকে। যার কারণে খেলতে পারেননি বিসিএলের শেষ দুইটি রাউন্ড। চোটের কারণে পুনর্বাসনে ছিলেন তিনি। তার পরেই বিসিবির প্রকাশিত কেন্দ্রীয় চুক্তি থেকে বাদ পড়ার খবর পান। এর কদিন পর ছোটখাটো দুর্ঘটনার শিকার হন। এবার আবারও মাথাচাড়া দিয়ে উঠেছে পুরনো ইনজুরি।

Also Read - আন্তর্জাতিক ক্রিকেটকে বিদায় জানালেন ডি ভিলিয়ার্স

সব মিলিয়ে তাসকিন আহমেদের সময়টা মোটেও ভালো যাচ্ছে না। এই ইনজুরির কারণে আফগানিস্তানের বিপক্ষে টি-২০ সিরিজের দলে ডাক পাননি। এমনকি পেসারদের নিয়ে কক্সবাজারে শুরু হতে যাওয়া বিশেষ ক্যাম্পেও অংশ নিতে পারবেন না।

এর আগে চোট নিয়ে খেলেছেন ডিপিএলে। ফলে খুব আহামরি পারফরম্যান্সও করতে পারেননি এই পেসার। ডিপিএলে তার দল আবাহনী লিমিটেড শিরোপা জিতলেও বলার মতো পারফর্ম করতে ব্যর্থ হয়েছিলেন তাসকিন। ২০১৭ সালে দক্ষিণ আফ্রিকা সফরে বাজে পারফরম্যান্সের কারণে সুযোগ হয়নি ঘরের মাঠে সিরিজে। তবে ডাক পেয়েছিলেন নিদাহাস ট্রফির দলে। সেখানে দুই ম্যাচ খেললেও পারফরম্যান্সের কোন উন্নতি হয়নি এই পেসারের।

সব মিলিয়ে তাসকিনের এখন ঘোর দুঃসময়। তাসকিনের পিঠের ব্যথা সারাতে বিসিবির মেডিকেল বিভাগ শুরু থেকে কাজ করলেও নেই দৃশ্যমান উন্নতি। প্রাথমিক চিকিৎসায় ব্যথা না কমলে বিশেষ ইনজেকশন দেওয়ার কথা বলা হয়েছিল, যা নিতে হতো কলকাতায় গিয়ে। তবে কলকাতায় চিকিৎসা ভিসা পাওয়া জটিল হওয়ায় দীর্ঘসূত্রিতা সৃষ্টি হয়েছে সেখানেও।

তবে তাসকিনের জন্য এবার ঢাকায়ই ঐ ইনজেকশনের ব্যবস্থা করা হচ্ছে। বৃহস্পতিবার বা শুক্রবারের মধ্যে তাসকিনকে ইনজেকশনটি দেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন বিসিবি চিকিৎসক দেবাশীষ বিশ্বাস, ‘ভারতে চিকিৎসা ভিসা প্রক্রিয়া খুবই জটিল। ওর সুস্থ্য হতে সময় লেগে যাবে। তাই ওর দ্রুত আরোগ্যের বিষয়টি মাথায় রেখে আমরা দু-এক দিনের মধ্যে এখান থেকেই ইনজেকশন দিব। তত্ত্বগতভাবে ন্যূনতম ৬ মাস ওর শরীরে কোন ব্যথা থাকবে না। এক বছরও হতে পারে। ব্যতিক্রম তো হতেই পারে।’

আরও পড়ুনঃ টিকে থাকার লড়াইয়ে মুখোমুখি কলকাতা-রাজস্থান

Related Articles

স্ট্রাইকিং প্রান্তে শুরু করতেই ভালোবাসেন তামিম

“খেলায় আপস অ্যান্ড ডাউনস থাকবেই”

আলোচিত ব্যাঙ্গালোর টেস্টে যত রেকর্ড

আফগানদের পরাজয়ে প্রোটিয়াদের স্বস্তি!

দু’দিনেই শেষ ব্যাঙ্গালোর টেস্ট