SCORE

সর্বশেষ

ফিক্সিং সংক্রান্ত তথ্য দিতে আল জাজিরাকে আইসিসির অনুরোধ

ক্রিকেট ফিক্সিং নতুন কিছু নয়। এই কাণ্ডে জড়িত হয়ে অনেক ক্রিকেটারকেই পড়তে হয়েছে শাস্তির আওতায়। সাম্প্রতিক সময়ে ফিক্সিং বিষয়ক একটি প্রোগ্রাম করেছিলো কাতারভিত্তিক টিভি চ্যানেল আল জাজিরা। সেই অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন পাকিস্তান ও ভারতের দুই ক্রিকেটার। সেখানে উঠে আসে এক চাঞ্চল্যকর তথ্য। তারা বেশ কয়েকটি আন্তর্জাতিক ম্যাচে ফিক্সিং করেছে এমন তথ্যও উঠে আসে।

ফিক্সিং সংক্রান্ত তথ্য দিতে আল জাজিরাকে আইসিসির অনুরোধ
ফিক্সিং সংক্রান্ত তথ্য দিতে আল জাজিরাকে আইসিসির অনুরোধ। ছবিঃ আইসিসি

শুধু তাই নয়, ২০১৭ সালে ভারত ও অস্ট্রেলিয়ার টেস্টেও ফিক্সিং হয়েছে এমন তথ্যও উঠে এসেছে। ফিক্সিং সংক্রান্ত বেশ কয়েকটি তথ্য ছড়িয়ে গেলে নড়ে-চড়ে বসে আইসিসি। সব ধরণের তথ্য পেলেই এই তদন্ত করা হবে জানিয়েছে আইসিসি। ফিক্সিং সংক্রান্ত সকল তথ্য দিয়ে আইসিসিকে সহযোগিতা করতে আল জাজিরা টিভি চ্যানেলকে অনুরোধ করেছে ক্রিকেটের এই নিয়ন্ত্রণ সংস্থা। আইসিসির ওয়েবসাইটে প্রকাশিত এক প্রতিবেদনে এসব জানান ডেভিড রিচার্ডসন।

‘আমরা এটি নিয়ে একটি পরিপূর্ণ, স্বচ্ছ ও নিরপেক্ষ তদন্ত চালাব।’

Also Read - নির্ভার মোসাদ্দেক

‘আমি আল জাজিরাকে অনুরোধ করছি তারা যেন ক্রিকেটে দুর্নীতি সংক্রান্ত সকল তথ্য উপাত্ত আমাদের কাছে হস্তান্তর করে, যাতে আমরা একটি পূর্ণাঙ্গ তদন্তের মাধ্যমে নিশ্চিত করতে পারি যেন কোন কিছুই বাদ না যায়। আমরা দুর্নীতির সকল অভিযোগই খতিয়ে দেখতে চাই। কিন্তু তার জন্য আমাদের সকল প্রমাণাদি হাতে পাওয়া জরুরি।’

 

ক্রিকেটের এমন চাঞ্চল্যকর তথ্য তুলে আনায় আল জাজিরাকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন আইসিসির প্রধান ডেভিড রিচার্ডসন। এর আগেও ফিক্সিং তদন্ত নিয়ে কাজ করেছে আইসিসি। উপযুক্ত প্রমাণ আইসিসির হাতে এলেই তারপর কাজ শুরু করতে পারবে তারা।

‘জনগণের প্রতি তাদের দায়বদ্ধতা দেখে আমি অনুপ্রাণিত হয়েছি, এবং এখন তাদেরকে বলব তারা যেন প্রাসঙ্গিক তথ্য প্রমাণাদি আমাদেরকেও দিয়ে সহযোগিতা করে। আমরা সাংবাদিকতায় সোর্সের নিরাপত্তার বিষয়গুলো বুঝি এবং সম্মান করি, এবং আমাদের এসিইউ টিম এর আগে যেসব মিডিয়া কোম্পানির সাথে কাজ করেছে, সেসব ক্ষেত্রেও এই বিষয়গুলো মেনে চলেছে। কিন্তু তারপরও তাদের প্রমাণগুলো যদি আমরা সঠিক বা ভুল হিসেবে প্রমাণ করতে চাই-ই, তবে অবশ্যই আগে সেগুলো আমাদের হাতে পেতে হবে।’

শুধু তাই নয়, আল জাজিরার ওই অনুষ্ঠানে কথা বলা হয় ডি-কোম্পানির মনোয়ার নামের এক কর্মকর্তার সাথে। যিনি কিনা ক্রিকেটে ফিক্সিং করা নিয়ে কাজ করেন। তার তথ্য অনুযায়ী, ৬০ থেকে ৭০ ভাগ আন্তর্জাতিক ম্যাচই ফিক্সিং করেছে তারা।

আর পড়ুনঃ ওয়ানডে র‍্যাঙ্কিংয়ে যোগ হলো চার দেশ

Related Articles

স্কটল্যান্ড-আয়ারল্যান্ডের কাছে ক্ষমা চেয়েছে আইসিসি

বল টেম্পারিং: চান্দিমালকে অভিযুক্ত করল আইসিসি

অপরিবর্তিত রইল আইসিসি আম্পায়ারদের এলিট প্যানেল

দক্ষিণ আফ্রিকায় নতুন টি-২০ লিগ

আবারও সবচেয়ে ধনী ক্রিকেটার কোহলি