Scores

অথচ ব্যাটিংয়ে শতভাগ দিতে পারেননি সাকিব!

সদ্য সমাপ্ত টি-২০ সিরিজে বাংলাদেশের পারফরম্যান্স ছিল দুর্দান্ত। তবে সবচেয়ে বেশি ‘দুর্দান্ত’ ছিল অধিনায়ক সাকিব আল হাসানের পারফরম্যান্স। বল হাতে তো দলের প্রয়োজনে আলো ছড়িয়েছেনই, উজ্জ্বল ছিলেন ব্যাট হাতেও।

সিরিজসেরার রেকর্ডে সাকিব
দ্বিতীয় টি-২০ ম্যাচে ব্যাট করার সময় সাকিব আল হাসান। © এএফপি

বাংলাদেশের ২-১ ব্যবধানে জেতা সিরিজে সাকিব হয়েছেন সিরিজ-সেরা। ছিলেন সিরিজের সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহকও। অথচ সাকিব ব্যাট হাতে নিজের শতভাগই দিতে পারেননি! পুরোটা দিতে পারলে হয়ত আরও দাপুটে ভঙ্গিতে সিরিজ জিততে পারত বাংলাদেশ।

সাকিব ব্যাট হাতে নিজের সেরাটা দিতে না পারার কারণ তার হাতের ইনজুরি। মঙ্গলবার (৭ আগস্ট) সংবাদমাধ্যমের সাথে আলাপকালে সাকিবের এই ব্যাটিং-দশার দুর্দশার কথা জানান বিসিবি চিকিৎসক দেবাশীষ চৌধুরী।

Also Read - তিন সপ্তাহের জন্য মাঠের বাইরে অপু


দেবাশীষ বলেন, ‘সাকিবের বাঁ-হাতের লিটল ফিঙ্গারের জয়েন্ট সরে গিয়েছিলসে মূলত ব্যাটিংয়ে সমস্যা অনুভব করছেসে ব্যাটিংয়ে শতভাগ এফোর্ট দিতে পারছে নাবেশ কয়েকবার আমাদের জানিয়েছেএই জন্য ওকে একজন হ্যান্ড সার্জনের কাছে পাঠানো হয়েছিল অস্ট্রেলিয়াতে।’

অস্ট্রেলিয়াতে অভিজ্ঞ চিকিৎসকের শরণাপন্ন হয়েছিলেন সাকিব। নিয়েছেন চিকিৎসাও। তবে সেই ‘প্রাথমিক চিকিৎসা’ সাকিবের সুস্থ হওয়ার জন্য যথেষ্ট হয়ে উঠতে পারেনি। কিছু সমস্যা রয়ে গেছে এখনও, যার জন্য বিশ্বের অন্যতম সেরা অলরাউন্ডারকে যেতে হবে শল্যবিদের ছুরির নিচে।

দেবাশীষ বলেন, ‘ডাক্তার ডেভিড ইয়ং এর তত্ত্বাবধানে ওকে একটা ইনজেকশন দেয়া হয়এরপর প্রদাহ কিছুটা কমে আসেফলে গত কয়েক মাস সে মোটামুটি পেইন ফ্রি থেকেই খেলতে পেরেছেযদিও কিছু সমস্যা থেকেই গেছে।’

সাকিব যে ইনজেকশন গ্রহণ করেছেন, সেটি আপাতত তাকে ব্যথা থেকে দূরে রাখলেও এর কার্যকারিতা থাকবে না খুব বেশিদিন। আর তাই অস্ত্রোপচার সাকিবের লাগছেই। দেবাশীষের ভাষ্য, ‘হ্যান্ড সার্জনের কথা মতো শর্ট টার্ম ম্যানেজমেন্টের জন্য ইনজেকশন দেয়া হয়েছেকিন্তু লং টার্মে এটা খুব একটা কাজ করবে নাদল ফ্লোরিডা যাওয়ার পর সেখানকার ডাক্তার একটি ইনজেকশন দিয়েছেনসেখানকার ডাক্তারও বলেছে এমন ম্যানেজমেন্ট খুবই অল্প সময়ের জন্য কাজে লাগবে।’

সামনে বাংলাদেশের ব্যস্ত শিডিউল। এতে সাকিবের অস্ত্রোপচার করার সময় বের করা একটু কঠিনই। তবে দলের সেরা খেলোয়াড়কে সুস্থ করে তুলতে অস্ত্রোপচার করার সময় বের করে দিতে শীঘ্রই আলোচনায় বসবে টিম ম্যানেজমেন্ট- এমনটাই জানান বিসিবি চিকিৎসক, ‘টিম দেশে ফেরার পর সাকিব, ম্যানেজমেন্ট ও আমরা সবাই মিলে বসে একটা সিদ্ধান্ত নিতে হবেকারণ অপারেশন হলে প্রায় দেড়-দুই মাস রিহ্যাবের দরকার পড়বে।’

আরও পড়ুন: কেন এত ক্ষেপেছেন সাকিব?


Related Articles

পেস বোলিংয়ে ‘অনাগ্রহ’; ওয়ালশের আক্ষেপ নেই

মাশরাফিই ছিলেন নেপথ্যের কারিগর

সিদ্ধান্ত সাকিবের উপরেই ছেড়ে দিল বিসিবি

নিজেদের ব্যর্থতার দায় বোর্ডের উপর চাপাচ্ছেন না রাব্বি

উইন্ডিজে কোচের নজর কেড়েছেন যারা