Scores

‘অবশ্যই শ্রীলঙ্কা ভালো অবস্থানে আছে’

টপ অর্ডারের ব্যাটসম্যানদের ব্যাটিং দৃঢ়তায় চলমান চট্টগ্রাম টেস্টের প্রথম দিনটি ছিল স্বাগতিক বাংলাদেশের দখলে। তবে বাংলাদেশের ইনিংস শেষে ব্যাট হাতে দাপট দেখিয়েছে সফরকারী শ্রীলঙ্কাও, দ্বিতীয় দিন শেষে দুই দলই ছিল একই পাল্লায়। তৃতীয় দিনে এসে পাল্টে গেলো দুই ম্যাচ টেস্ট সিরিজের প্রথম ম্যাচের পুরো চিত্রনাট্য, এবার ম্যাচে চালকের আসনে সফরকারী শ্রীলঙ্কা!

খালেদ মাহমুদ সুজন

তৃতীয় দিন শেষে শ্রীলঙ্কা মাঠ ছেড়েছে ৫০৪ রান নিয়ে, হারিয়েছে মাত্র তিনটি উইকেট। বর্তমানে বাংলাদেশের চেয়ে দলটি ৯ রানে পিছিয়ে থাকলেও এখনও দলটির যথেষ্ট ঢের সুযোগ আছে স্কোর-কার্ডে আরও অনেক রান যোগ করার, সংগ্রহ কিংবা লিড আরও বড় করার। আর এমন অবস্থায় শ্রীলঙ্কাই রয়েছে ম্যাচের নিয়ন্ত্রণে- এটি মেনে নিচ্ছেন খোদ বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দলের টেকনিক্যাল ডিরেক্টর খালেদ মাহমুদ সুজনও।

Also Read - কুশল মেন্ডিসের ডাবল সেঞ্চুরির স্বপ্নভঙ্গ


তৃতীয় দিনের খেলা শেষে শুক্রবার দলের প্রতিনিধি হিসেবে সংবাদ সম্মেলনে আসেন খালেদ মাহমুদ সুজন। এ সময় সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, শ্রীলঙ্কা অবশ্যই ম্যাচের নিয়ন্ত্রণে। কালকের সকালটাই হয়তো বলে দেবে কোন পথে যাবে ম্যাচ। শ্রীলঙ্কা কত সময় ব্যাট করবে এটা বড় কথা। আমি হলে হয়তো এখান থেকে একটা ইনিংস ব্যাট করার চিন্তা করতাম। তবে ম্যাচ বাঁচানোর কথা ভাবার সময় এখনও আসেনি।’

তবে ব্যাকফুটে থাকলেও এই অবস্থা থেকেই এখন ম্যাচ বের করে নেওয়ার পরিকল্পনা করছে বাংলাদেশ। আর সেজন্য চতুর্থ দিন লঙ্কানদের দ্রুত অলআউট করাই টাইগারদের মূল লক্ষ্য।

সুজন আরও বলেন, ‘অবশ্যই শ্রীলঙ্কা ভালো অবস্থানে আছে। টেস্টে এখনও দুটি দিন বাকি আছে। কালকের দিনটি আমাদের জন্য খুব গুরুত্বপূর্ণ। কাল কত দ্রুত ওদের অলআউট করতে পারি, ওদের লিড কত কমে রাখতে পারি সেটাই হবে সবচেয়ে বড় ব্যাপার।’

তবে শুধু শ্রীলঙ্কাকে যথাসাধ্য কম লিডে আটকালেই হবে না। টেস্ট জয় দূরে থাক, ড্র করার জন্যও চাই উইকেটে সময় কাটানো। আর তাই উইকেট শিকারের সাথে সাথে নিশ্চিত করতে হবে দ্বিতীয় ইনিংসে স্বাগতিকদের ভালো ব্যাটিংও। সাংবাদিকদের সাথে আলাপকালে সেটিও মনে করিয়ে দিলেন সুজন। সেই সাথে এও জানালেন, উইকেট এখনও রয়েছে ব্যাটসম্যানদের পক্ষে।

তিনি বলেন, ‘পাশাপাশি দ্বিতীয় ইনিংসের আমাদের ব্যাটিং অনেক ভালো করতে হবে। ম্যাচ এখনও উন্মুক্ত আমি মনে করি। উইকেট ব্যাটিংয়ের জন্য ভালো আছে এখনও। আমরা আশা করি, কাল সকাল থেকে ভালো বোলিং করব। আজকে শেষ সেশনটা ভালোই ছিল আমাদের জন্য। খুব বেশি রান করতে দেইনি ওদের।’

দারুণ ব্যাট করতে থাকা শ্রীলঙ্কাকে দ্রুত আটকাতে হলে চতুর্থ দিন শুরুতেই কিছু উইকেট চাই বাংলাদেশের। তা না হলে লঙ্কানরা লিড কোথায় নিয়ে গিয়ে থামে, টাইগারদের জন্য সেটি থাকছে বড় এক শঙ্কা হয়েই। সুজন বলেন, ‘এখনও ৭ উইকেট আছে ওদের হাতে। উইকেট এখনও ব্যাটিংয়ের জন্য ভালো আছে। কত দ্রুত ওদের অলআউট করতে পারি, সেটা গুরুত্বপূর্ণ। কাল প্রথম ঘণ্টায় ২-৩টা উইকেট নিতে পারলে হয়ত আমরা ম্যাচের নিয়ন্ত্রণে ফিরতে পারব।’

ম্যাচে বেশ কয়েকটি সহজ সুযোগ হাতছাড়া করেছে বাংলাদেশ। সেই সাথে ‘মরার উপর খাঁড়ার ঘা’ হয়ে এসেছে দ্বিতীয় দিনেই নষ্ট হওয়া দুটি রিভিউ। ফিল্ডিংয়ে ছন্নছাড়া ভাব ছিল তৃতীয় দিনেও। সব মিলিয়ে সুযোগের সদ্ব্যবহার করতে পারেনি বাংলাদেশ, এটি বলতেই হচ্ছে। সুজনের ভাষ্য, সুযোগগুলো কাজে লাগালে ম্যাচে এখনও ভালো অবস্থানে থাকতে পারত বাংলাদেশ, ‘টেস্ট ম্যাচে সুযোগ কম আসে। তাই যেসব সুযোগ আসছে তা কাজে লাগাতে পারলে ভালো হতো। আর ভাগ্যও হয়তো আমাদের পক্ষে ছিল না। সকালে একটা ক্যাচ দু’জনের মাঝখান দিয়ে বের হয়ে গেল। একজনের হাতে এলে হয়তো ইজি হতো। হয়তো ফিল্ডিং আরও ভালো হতে পারতো। ক্যাচগুলো ধরতে পারলে ভালো হতো।’

আরও পড়ুনঃ স্বাগতিকদের চোখ রাঙাচ্ছে শ্রীলঙ্কা

নিউজটি বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন

Related Articles

বিপিএলে কমছে খেলোয়াড়দের পারিশ্রমিকের পার্থক্য

‘অধিনায়কত্ব’ ইস্যুতে ভীষণ চটেছেন সুজন!

বিসিবির সাথে আলোচনা করতে ঢাকায় প্রোটিয়া কোচ

বিশ্বকাপের পারফরম্যান্সের রিপোর্ট এখনও পায়নি বিসিবি

ইদের আগেই আসবে টাইগারদের নতুন কোচ!