অবসরের ইঙ্গিত মাশরাফির

২০১৪ সালে মাশরাফি বিন মর্তুজা বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের অধিনায়কত্ব পাওয়ার পর থেকে বাংলাদেশ ক্রিকেট নিজেদের ইতিহাসে এক সেরা সময় পায় করছে। তাঁর নেতৃতাধানেই বিশ্ব ক্রিকেটে এক উঠতি পরাশক্তির পরিচয় পেয়েছে বাংলাদেশ। মাশরাফির অধিনায়কত্ব প্রশংসনীয়। বাংলাদেশকে এতো সুখস্মৃতি দেওয়ার জন্য কৃতিত্ব তাঁকে দিতেই হবে।

null

Advertisment

তবে একটি দুঃসংবাদ হচ্ছে যে, টাইগার অধিনায়ক অবসরে যেতে পারেন। গতকাল সংযুক্ত আরব আমিরাতকে ৫১ রানে হারানোর পর এমন ইঙ্গিতই দিয়েছেন মাশরাফি। ম্যাচে বল হাতে সফল মাশরাফি। ৪ ওভারে ১২ রান দিয়ে ২ উইকেট তুলে নিয়েছেন তিনি।

গতকাল ম্যাচের পর পোস্ট ম্যাচ প্রেজেন্টেশনে মাশরাফি বিন মর্তুজা জানান, “আমি আমার ক্যারিয়ারের শেষ পর্যায়ে এসে গিয়েছি। আমি জানি না আর কতো দিন পর্যন্ত খেলতে পারবো। তবে যত দিন দেশের হয়ে খেলবো ততদিন আমি ২২ গজে নিজের সেরাটাই দিবো।”

খবরসুত্র অনুযায়ী আসন্ন আইসিসি টি২০ বিশ্বকাপের পর টি২০ থেকে অবসর নিবেন মাশরাফি বিন মর্তুজা। ওয়ানডে খেলবেন আরও এক বছর, হতে পারে সেটি চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফি পর্যন্ত। টেস্টে সাদা পোশাকে আর দেখার সম্ভাবনা নেই মাশরাফির।

২০০১ সালে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে অভিষেক হয় মাশরাফি বিন মর্তুজার। ১৫ বছর ধরে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট খেলছেন তিনি। ক্যারিয়ারে ইঞ্জুরির সাথে লড়েছেন অনেক বার। বার বার ফিরেছেন, আবার বার বার ইঞ্জুরিতে পড়েছেন। ক্যারিয়ারে অনেক ম্যাচ খেলা হয় নি তাঁর। তারপরও ক্রিকেটের এক অন্যতম সেরা ক্রিকেটার হিসেবে পরিচিত থাকবেন তিনি।

-রাফিন, প্রতিবেদক, বিডিক্রিকটিম ডট কম.