Scores

অভিমান ভুলে আবারও কোচিংয়ে লেহম্যান

অস্ট্রেলিয়ার ক্রিকেট ইতিহাসের সবচেয়ে কলঙ্কজনক অধ্যায় ছিল বল টেম্পারিংয়ের ঘটনা।দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে কেপটাউন টেস্টে বল টেম্পারিংয়ের কাণ্ডে জড়িত থাকায় অস্ট্রেলিয়ার অধিনায়ক স্টিভ স্মিথ, সহ-অধিনায়ক ডেভিড ওয়ার্নারকে এক বছর এবং ক্যামেরন ব্যানক্রফটকে ৯ মাসের জন্য নিষিদ্ধ করেছিল ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া (সিএ)। ওই ঘটনার সঙ্গে কোনো যোগসূত্র না থাকলেও পরিস্থিতি বিবেচনায় পদত্যাগ করেছিলেন তখনকার কোচ ড্যারেন লেহম্যান। এবার তিনি আবারও ফিরলেন নিজের পুরনো পেশায়।

 

অভিমান ভুলে আবারও কোচিংয়ে লেহম্যান

Also Read - ওয়ার্নার-স্মিথকে ছাড়াই অস্ট্রেলিয়া দল ঘোষণা


ব্যানক্রফটের নিষেধাজ্ঞা উঠে গেছে। স্মিথ-ওয়ার্নারও একই পথে আছেন। এই তিন ক্রিকেটারকে খুব দ্রুত আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ফিরিয়ে নেবে ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া এমনটিও শোনা যাচ্ছে। আসন্ন ওয়ানডে বিশ্বকাপেই দেখা যেতে পারে এই তিন অজিকে।

আগামী মৌসুমে অস্ট্রেলিয়ার ফ্র্যাঞ্চাইজিভিত্তিক টি-টোয়েন্টি লিগ বিগ ব্যাশে ব্রিসবেন হিটের দায়িত্ব পেয়েছেন দেশটির সাবেক কোচ ড্যারেন লেহম্যান। গত মৌসুম শেষে ব্রিসবেন হিটের পদ থেকে সড়ে দাোড়ান নিউজিল্যান্ডের সাবেক অধিনায়ক ড্যানিয়েল ভেট্টোরি। ফলে দলটির কোচের পদটি খালিই ছিল। ভেট্টরির জায়গাতেই এবার বসলেন লেহম্যান।

ব্রিসবেন হিটের মহাব্যবস্থাপক এন্ড্রু ম্যাকশিয়া বলেন, ‘ম্যানেজার এবং কোচ হিসেবে লেহম্যান খুবই অভিজ্ঞ। জাতীয় দলেও নিজের দায়িত্ব ভালোভাবে পালন করেছেন তিনি। আশা করি বিগ ব্যাশের আগামী মৌসুমে দলকে সাফল্য এনে দিতে পারবেন।’

এদিকে, জাতীয় দলের হয়ে কাজ করবেন কী না সে বিষয়ে লেহম্যান জানান, ‘না, আমি আর জাতীয় দলে ফিরছি না। জাতীয় দলকে কোচিং করানো বিশ্বের যেকোনো সেরা চাকরির একটি। এটা অনেক সম্মানের। কিন্তু আমি নতুন করে কোনো জাতীয় দলের সঙ্গে যুক্ত হতে চাই না।’

তিনি আরও বলেন, ‘কোচিং করিয়ে অনেক কিছু শেখার আছে, আমি অনেক কিছু শিখেছি। নতুন করে এটাও শিখছি জাতীয় দলের সঙ্গে এখানে-ওখানে যাওয়ার মতো অবস্থায় আমার শরীর নেই। আমার পরিবারও আমাকে সেই অনুমতি দেবে না।’

[আরও পড়ুনঃ কে হচ্ছেন আবাহনীর অধিনায়ক?]

নিউজটি বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন

Related Articles

টম মুডির কপাল পোড়ালেন ট্রেভর বেইলিস

ক্যালিস-কেকেআরের ৯ বছরের সম্পর্ক বিচ্ছেদ

অস্ট্রেলিয়ার অ্যাশেজ স্কোয়াডে চমক

ভনকে ‘ইডিয়ট’ বললেন গিলক্রিস্ট

বিশ্বকাপের ফাইনালে নিউজিল্যান্ডের সঙ্গী ইংল্যান্ড