Scores

অলরাউন্ডার মুমিনুল জেতালেন ভিক্টোরিয়াকে

ঢাকা প্রিমিয়ার লিগে নিজেদের শেষটা ভালোই হলো ভিক্টোরিয়া স্পোর্টিং ক্লাবের। অলরাউন্ডার মুমিনুলের নৈপুণ্যে মোহামেডানের বিপক্ষে ১৭ রানের জয় পেয়েছে ভিক্টোরিয়া। ব্যাটিংয়ে অর্ধশতক হাঁকানোর পর বোলিংয়ে মুমিনুল শিকার করেছেন তিন উইকেট।

টস জিতে ভিক্টোরিয়া ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নিলেও তা সঠিক প্রমাণ করতে পারেননি দুই ওপেনার। দলীয় ৬ রানের মাথাতেই আউট হন ফজলে মাহমুদ। আরেক ওপেনার আবদুল মজিদ আউট হন দলীয় ১৭ রানের মাথায়। ১৭ রানে ২ উইকেট হারিয়ে বিপদে পড়ে ভিক্টোরিয়া।

বিপর্যয় সামাল দেন মুমিনুল হক ও আল-আমিন। দুইজনই তুলে নেন অর্ধশতক। দুইজন মিলে যোগ করেন ৮৩ রান। ১৭ থেকে ১০০ তে নিয়ে যান ভিক্টোরিয়াকে।  ৩ চার ও ২ ছক্কায় সাজানো ৬০ বলে ৫৮ রানের ইনিংস খেলেন মুমিনুল হক। অধিনায়ক নাদিফকে সঙ্গে নিয়ে আল-আমিন ৩৩ রানের জুটি গড়েন। ৫৫ রান করে আউট হন আল-আমিন। তবে তারপর আর কেউ বড় স্কোর গড়তে পারেননি। অধিনায়ক নাদিফ করেন ২৮ রান। নিয়মিত বিরতিতে উইকেট হারাতে থাকলে আবারো চাপে পরে ভিক্টোরিয়া। শেষদিকে রাব্বির অপরাজিত ২৬ রানের সুবাদে ২০৫ রান করে তারা। মোহামেডানের হয়ে ৩ টি উইকেট শিকার করেন এনামুল হক জুনিয়র।

Also Read - আবাহনী চ্যাম্পিয়ন


২০৬ রান তাড়া করতে নেমে শুরুটা ভালোই করেছিল মোহামেডান। নাজিমউদ্দিন ও হামিদুল ইসলাম দলকে ৩১ রানের ভিত গড়ে দেন। ১১ রান করে হামিদুল বিদায় নিলেও অন্য প্রান্ত আগলে রাখেন নাজিমউদ্দিন। সৈকতের সাথে ৫৩ রানের জুটি গড়ে দলকে সুবিধাজনক স্থানে নিয়ে যান তিনি। দলীয় ৮৪ রানের মাথায় ৫১ বলে ৫০ রান করে আউট হন নাজিমউদ্দিন।

সৈকত আলী ও মুশফিকুর রহিম ৪৮ রানের জুটি গড়লে জয়ের দিকে এগিয়ে যায় মোহামেডান। কিন্তু এ জুটি ভাঙার পর হঠাৎ ভেঙে পড়ে নাঈমবাহিনী। দলীয় ১৩২ রানের মাথায় এ জুটি ভাঙেন ফজলে মাহমুদ। ৩৫ রান করে সৈকত বিদায় নিলে আর কেউ বড় স্কোর করতে পারেননি। নাঈম ইসলাম মোহামেডানকে ব্যাকফুটে ঠেলে দেন মুমিনুল। আরিফুল হক এবং ফয়সাল হোসেনও ফিরে যান দ্রুত। আরিফুল করেন ৫ রান আর ফয়সাল খুলতে পারেননি রানের খাতা।

কিছুটা প্রতিরোধ গড়ে তুলেন নাজমুল হোসেন মিলন। মুশফিককে সাথে নিয়ে যোগ করেন ২৭ রান। ১৭৪ রানের মাথায় অর্ধশতক থেকে ৪ রান দূরে থেকে মুমিনুলের বলে আউট হন মুশফিক। মিলন এক প্রান্তে দর্শক হয়ে আসা-যাওয়া দেখছিলেন। হাবিবুর, এনামুল, শুভাশিষ- তিন টেল এন্ডারের কেউ পারেননি দুই অঙ্কের কোটায় পৌছাতে। ১৮ রান করে মিলন ছিলেন অপরাজিত। মোহামেডান গুটিয়ে যায় ১৮৮ রান করেই।

সংক্ষিপ্ত স্কোরঃ

ভিক্টোরিয়া ২০৫  (৪৮.৩ ওভার)  
মুমিনুল ৫৮, আল-আমিন ৫৫, নাদিফ ২৮
এনামুল ৪৫/৩, হাবিবুর ৩৩/২

মোহামেডান ১৮৮ (৪২ ওভার)
নাজিমউদ্দিন ৫০, মুশফিক ৪৬, সৈকত ৩৬
মুমিনুল ২৯/৩, ফজলে ২৫/২

ম্যাচসেরাঃ মুমিনুল হক

-আজমল তানজীম সাকির, প্রতিবেদক, বিডিক্রিকটিম ডট কম  

নিউজটি বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন

Related Articles

ওবায়দুল কাদেরকে দেখতে হাসপাতালে মাশরাফি

এক ম্যাচ হাতে রেখেই সিরিজ জিতলো ভারত

মেডিকেল রিপোর্টের উপরেই নির্ভর করছে সাকিবের এনওসি

শঙ্কা কাটিয়ে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে খেলছেন মুস্তাফিজ

দুদকের শুভেচ্ছাদূত হলেন সাকিব