Scores

অলিম্পিকে টি-১০ ক্রিকেটের প্রস্তাব রাখলেন আফ্রিদি

ক্রমশই ছোট হয়ে আসছে ক্রিকেট খেলার পরিধি। বিশ ওভারের ক্রিকেটের জাগরণের পর এবার বাজারে এসেছে ক্রিকেটের আরও সংক্ষিপ্ততর সংস্করণ, টি-১০ ক্রিকেট। অনেকেই সমালোচনায় মুখর এই নব্য ঘরানার ক্রিকেটের। তবে এতেই ক্রিকেটের নতুন সম্ভাবনা দেখছেন পাকিস্তানের সাবেক অলরাউন্ডার শহীদ আফ্রিদি।

এবার আইপিএল নিয়ে আফ্রিদির বেফাঁস মন্তব্য
টি-১০ সংস্করণের মাধ্যমেই অলিম্পিকে ফিরতে পারে ক্রিকেট, বিশ্বাস আফ্রিদির।

টি-১০ লিগের দ্বিতীয় আসরে পাখতুন্সের প্রতিনিধিত্ব করা আফ্রিদি বলেছেন, তিনি এই লিগের জনপ্রিয়তায় খুবই উৎসাহিত বোধ করছেন, এবং বিশ্বাস করেন এই সংস্করণের মাধ্যমেই সম্ভব হবে ক্রিকেটকে আরও বেশি অডিয়েন্সের কাছে পৌঁছে দেয়া। তিনি মনে করেন, টি-১০ সংস্করণের মাধ্যমেই অলিম্পিক গেমসে ফিরতে পারে ভদ্রলোকের খেলা ক্রিকেট!

‘আমার মনে হয় অলিম্পিকে খেলানোর জন্য এটিই সেরা ক্রিকেট,’ বলেন আফ্রিদি। ‘আমার মনে হয় আপনি এই সংস্করণের ক্রিকেটকে সেখানে নিয়ে যেতে পারেন এবং বিশ্বকে জানাতে পারেন ক্রিকেট খেলাটা আসলে কী। আমরা সবাই এই ক্রিকেটটা উপভোগ করছি, যেটি সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। তাই আমি মনে করি অলিম্পিকের জন্যও এই সংস্করণটিই সবচেয়ে উপযুক্ত।’

জানিয়ে রাখা ভালো, আফ্রিদিই কিন্তু প্রথম আন্তর্জাতিক তারকা নন যিনি টি-১০ ক্রিকেটের ব্যাপারে এধরণের অভিমত ব্যক্ত করেছেন। এর আগে ইংল্যান্ডের ইয়ন মরগানও প্রায় একই সুরেই কথা বলেছিলেন।

Also Read - বক্সিং ডে টেস্টে খেলছেন না ফখর জামান


ইএসপিএন ক্রিকইনফোকে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে মরগান বলেছিলেন, ‘আমার মনে হয় টি-১০ ক্রিকেটই হলো এমন কিছু যেটির ব্যাপারে অলিম্পিক কমিটির সামনে প্রস্তাব রাখা যায়।’

তিনি আরও যোগ করেছিলেন, ‘যখন আপনি টি২০ খেলার দিকে তাকান, এটি অপেক্ষাকৃত লম্বা সময় ধরে চলে। যদি আপনি অলিম্পিকে এই ক্রিকেট খেলাতে চান, তাহলে অন্তত দশটি দলের অংশগ্রহণ তো প্রয়োজন হবেই। আর সেক্ষেত্রে পুরো প্রতিযোগিতা শেষ করতে পাঁচ থেকে ছয় সপ্তাহ সময় লাগবে। কিন্তু টি-১০ এমন একটি সংস্করণ যেটি আট দিনেই শেষ করে ফেলা সম্ভব।’

মাত্র কিছুদিন আগেই আন্তর্জাতিক ক্রিকেট সংস্থা (আইসিসি) ২০২২ বার্মিংহাম কমনওয়েলথ গেমসের জন্য নারী ক্রিকেটের প্রস্তাব পেশ করেছিল। আর এখন অলিম্পিকের জন্য টি-১০ ক্রিকেটের ধারণা নিয়ে আসছেন আফ্রিদি-মরগানরা। ক্রিকেটের অস্তিত্ব টিকিয়ে রাখতে যে এধরণের বৈশ্বিক আসরে এ খেলার উপস্থিতি একান্তই জরুরি, তা খুব সহজেই বোধগম্য।

ইতিপূর্বে কেবল একবারই অলিম্পিকে ক্রিকেট খেলা হয়েছিল। ১৯০০ অলিম্পিকে ফ্রান্সকে হারিয়ে স্বর্ণ জিতেছিল গ্রেট ব্রিটেন। এরপর ১১৮ বছর পেরিয়ে গেছে, ফিরব ফিরব করেও শেষ পর্যন্ত অলিম্পিকে ফেরা হয়নি ক্রিকেটের। দেখা যাক, শেষ পর্যন্ত অপেক্ষার অবসান ঘটে কি না!

নিউজটি বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন

Related Articles

টি-টেন ক্রিকেট আয়োজন করবে সৌদি আরব

শীঘ্রই মাঠে গড়াচ্ছে টি-১০ লিগ

আজ টি-১০ লিগের সেমি-ফাইনালে নামছে সাকিব-তামিমের দল

টি-১০ টুর্নামেন্টে দল পেলেন তিন বাংলাদেশি ক্রিকেটার