অস্ত্রোপচার নাও লাগতে পারে সাকিবের!

ব্যথা সেরে উঠলে অস্ত্রোপচার নাও লাগতে পারে ইনজুরি আক্রান্ত বাংলাদেশি ক্রিকেটার সাকিব আল হাসানের অস্ত্রোপচার। তবে সেটি নির্ভর করবে তার চোটের গতিপথের উপর। তবে এটুকু নিশ্চিত, শীঘ্রই হচ্ছে না সাকিবের বাঁহাতের আক্রান্ত কড়ে আঙুলের অস্ত্রোপচার। জাতীয় দলের গুরুত্বপূর্ণ খেলার কথা চিন্তা করে ইনজুরি নিয়ে মাঠে নেমে হাতে যে ইনফেকশন বাঁধিয়েছেন সাকিব, সেটি সেরে ওঠার আগে সম্ভব নয় অস্ত্রোপচার। শুধু তা-ই নয়, অস্ত্রোপচার যদি করতেই হয় তবে সেটি করতে হবে ইনফেকশন কমার অন্তত মাস ছয়েক পর।

দেশে ফিরছেন সাকিব

বিভিন্ন গণমাধ্যমকে এমনটাই জানিয়েছেন সাকিবের ঘনিষ্ঠ কোচ মোহাম্মদ সালাহউদ্দিন। মেলবোর্নে চিকিৎসকের শরণাপন্ন হওয়া সাকিব নিয়মিত যোগাযোগ রাখছেন দেশসেরা এই কোচের সাথে। আর সালাহউদ্দিন সংবাদমাধ্যমগুলোকে জানিয়েছেন সাকিবের সর্বশেষ অবস্থা।

জানা গেছে, আগামী তিন মাসের মধ্যে নিশ্চিতভাবেই মাঠে ফিরছেন না সাকিব। আপাতত মেলবোর্নের হাসপাতালে তিনি রয়েছেন চিকিৎসকের ৭২ ঘণ্টার পর্যবেক্ষণে। সেই পর্যবেক্ষণ এবং পরীক্ষানিরীক্ষার ফলাফল শেষে চিকিৎসকের পরবর্তী পরামর্শ জানা যেতে পারে আগামী মঙ্গলবার।

Also Read - শ্রীলঙ্কাকে উড়িয়ে যুব এশিয়া কাপের 'চ্যাম্পিয়ন' ভারত

তিন মাস পর সাকিব মাঠে ফিরলেও লাগতে পারে অস্ত্রোপচার। সেক্ষেত্রে মেলবোর্নের বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকই জানাবেন পরবর্তী করনীয়। তবে সাকিব হাতে ব্যথা অনুভব না করলেও সেই অস্ত্রোপচার না করেও খেলতে পারবেন স্বাভাবিকভাবে।

চলতি বছরের শুরুর দিকে ত্রিদেশীয় সিরিজে খেলার সময় হাতে চোট পান সাকিব। সেই চোটের কারণে ছিটকে পড়েন মাঠের বাইরে। সাকিবকে ছাড়াই শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে সিরিজ খেলে বাংলাদেশ। এরপর নিদাহাস ট্রফির মাঝপথে মাঠে ফিরলেও তখনও সাকিবের চোট ছিল সঙ্গী।

ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফর শেষে দেশে ফেরার পর জানা যায়, চোট সারা সেরে উঠবেন না সাকিব। এ সময় বোর্ডের মধ্যস্থতায় এশিয়া কাপে খেলার সিদ্ধান্ত নেন বিশ্বের অন্যতম সেরা এই অলরাউন্ডার। আর এশিয়া কাপের মাঝপথেই জানা যায়, সাকিবের ইনজুরি মারাত্মক রুপ ধারণ করেছে।

তড়িঘড়ি করে সাকিবকে দেশে পাঠানোর পর দেশের প্রথম সারির হাসপাতালের চিকিৎসকরা জানান সাকিবের আঙুলের দুরাবস্থার কথা। এরপর ছোটোখাটো অস্ত্রোপচারের পাশাপাশি দুই দফা পুঁজ বের করার পর তাকে পরবর্তী পরামর্শের জন্য অস্ট্রেলিয়ার মেলবোর্নে পাঠানো হয়, যেখানে বর্তমানে তিনি অভিজ্ঞ হস্ত চিকিৎসক গ্রেগ হোয়ের তত্ত্বাবধানে রয়েছেন।

সাকিবের মাঠে ফিরতে দেরি তো হচ্ছেই, চোট পুরোপুরি সেরে ওঠা নিয়েও রয়েছে সংশয়। এমন পরিস্থিতিতে দেশের ক্রিকেট অঙ্গনের কপালে পড়েছে চিন্তার ভাঁজ।

আরও পড়ুন: ‘সাকিব মানসিকভাবে শক্ত, একজন যোদ্ধা’

Related Articles

সাকিবের দেশে ফেরায় প্রধান ভূমিকা পাপনের!

বোর্ডের মাথাব্যথার কারণ হয়ে উঠছে ক্রিকেটারদের চোট

৬০-৭০ ভাগ সেরে উঠলেই খেলতে পারবেন সাকিব

‘সাকিব মানসিকভাবে শক্ত, একজন যোদ্ধা’

কবে শেষ হবে তামিমের পুনর্বাসন?