Scores

আইসিসিতে আর থাকতে চান না মনোহর

বিতর্কিত ও সমালোচিত ‘বিগ থি তত্ত্ব’র বিনাশ ঘটেছিল যে কজনের হাত ধরে, তাদের মধ্যে অন্যতম শশাঙ্ক মনোহর। বিগ থ্রি তত্ত্বের পেছনে বড় ভূমিকা ছিল ভারতের। অথচ ভারতীয় হয়েই মনোহর এই বিতর্কিত প্রথা বাতিল করেন।

আইসিসিতে আর থাকতে চান না মনোহর

ফলে আইসিসিতে ভারত, অস্ট্রেলিয়া ও ইংল্যান্ডের দৃষ্টিকটু আধিপত্য অনেকটাই কমে গিয়েছে। আইসিসির প্রথম স্বাধীন চেয়ারম্যান মনোহরকে এ কারণে আজীবন মনে রাখবেন সবাই। তবে জনপ্রিয় এই ক্রিকেট সংগঠক আইসিসিতে আর থাকতে চাইছেন না।

Also Read - ধাওয়ানের বদলি আগারওয়াল







স্বাধীন চেয়ারম্যান হিসেবে নির্বাচিত মনোহর দ্বিতীয় মেয়াদেও আইসিসির চেয়ারম্যান পদে রয়েছেন। ক্রিকেটের স্বার্থে তার অটল সিদ্ধান্ত ও দারুণ ব্যক্তিত্বের কারণে বেশিরভাগ সদস্য দেশই ফের মনোহরকে আইসিসি চেয়ারম্যান পদে দেখতে ইচ্ছুক।

তবে মনোহর জানিয়েছেন, নতুন করে আইসিসির চেয়ারম্যান পদে থাকতে তিনি ইচ্ছুক নন। এক্ষেত্রে কারো অনুরোধেও ঢেঁকি গেলা হবে না এই যাত্রায়।





২০২০ সালের মে মাসে মনোহরের বর্তমান দায়িত্বের মেয়াদ পূর্ণ হবে। এরপর আইসিসি প্রধানের আসনে দেখা যাবে নতুন কাউকে।

সম্প্রতি ভারতীয় এক সংবাদমাধ্যমকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে মনোহর বলেন, ‘আমি আরও দুই বছর দায়িত্ব পালন করতে ইচ্ছুক নই। বেশিরভাগ পরিচালকই আমাকে দায়িত্ব চালিয়ে যেতে বলেছেন। তাদের আমি বলেছি- আমি থাকতে চাইছি না। আইসিসির চেয়ারম্যান হিসেবে ৫ বছর দায়িত্ব পালন করেছি আমি। আর কাজ করতে চাই না।’

শশাঙ্ক মনোহর আইসিসি চেয়ারম্যানের পদে না থাকলে করলে আগামী বছরের মাঝামাঝি সময়ে নতুন কোনো চেয়ারম্যানকে দেখবে ক্রিকেটবিশ্ব।

প্রথমবারের মত বিডিক্রিকটাইম নিয়ে এলো অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ্লিকেশন। বাংলাদেশ এবং সকল আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের বল বাই বল লাইভ স্কোর, এবং সাম্প্রতিক নিউজ সহ সবকিছু এক মুহূর্তেই পাবেন বাংলাদেশ ক্রিকেটের সবচেয়ে বড় অনলাইন পোর্টাল BDCricTime এর অ্যাপে। অ্যাপটি ডাউনলোড করতে গুগল প্লে-স্টোর থেকে সার্চ করুন BDCricTime অথবা ডাউনলোড করতে এখানে ক্লিক করুন। ভালো লাগলে অবশ্যই রেটিং দিয়ে উৎসাহী করুন।

 

নিউজটি বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন
Tweet 20
fb-share-icon20

Related Articles

নির্ধারিত সময়েই মাঠে গড়াবে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ

আইসিসির ভারতপ্রীতি নিয়ে টুইটারে ক্ষোভ

ক্রিকেট ভক্তদের দুঃসংবাদ দিল আইসিসি

বিশ্বকাপের ভাগ্য নির্ধারণ চলতি মাসেই

বন্ধ হয়ে গেল আইসিসিও