Scores

আইসিসির ভবিষ্যৎ তারকা পিনাক ঘোষ কতদূর গেলেন ক্যারিয়ারে?

করোনাভাইরাসের কারণে থমকে গেছে পুরো ক্রিকেট বিশ্ব। সকল ধরনের ক্রিকেট আপাতত বন্ধ। আইসিসি তাদের বিভিন্ন বাছাইপর্বের খেলা আগামী জুলাই মাস পর্যন্ত বন্ধ রেখেছে। আন্তর্জাতিক ক্রিকেট মাঠে ফিরবে আগামী জুলাই মাসে ইংল্যান্ড ও ওয়েস্ট ইন্ডিজ সিরিজের মধ্য দিয়ে। এই ক্রিকেটহীন সময়ে চলুন জেনে নেওয়া যাক বাংলাদেশ ক্রিকেটের পুরনো কিছু জানা – অজানা ঘটনা ও কিছু আলোচিত খেলোয়াড়ের ব্যাপারে। সেই ধারাবাহিকতায় আজকে থাকছে এক সময়ের অন্যতম প্রতিভাবান যুবা পিনাক ঘোষের কথা।

আইসিসির ভবিষ্যৎ তারকা পিনাক ঘোষ কতদূর গেলেন ক্যারিয়ারে?
ছবি : আইসিসি

বাংলাদেশ দলের অনূর্ধ্ব ১৯ ক্রিকেট ইতিহাসে সর্বোচ্চ রানের ইনিংসের তালিকায় সবার উপরেই রয়েছে পিনাক ঘোষের নাম। এই যুবার ২০১৫ রানে সালে ডারবানে দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে করা ১৫০ রানের ইনিংস আন্তর্জাতিক স্বীকৃত অনূর্ধ্ব ১৯ ম্যাচে বাংলাদেশের ইতিহাসে সর্বোচ্চ।

Also Read - সাঙ্গাকারা-যুবরাজের পরামর্শে নিজেকে বদলাননি সৌম্য


পিনাকের খেলার সৌভাগ্য হয়েছে দুইটি অনূর্ধ্ব ১৯ বিশ্বকাপ। ২০১৬ ও ২০১৮ সালের দুইটি অনূর্ধ্ব ১৯ বিশ্বকাপ খেলেন পিনাক। তার সময় তাকে ভাবা হতো অন্যতম প্রতিভাবান যুবা যার জাতীয় দলে খেলার সামর্থ্য আছে। ২০১৮ সালের অনূর্ধ্ব ১৯ বিশ্বকাপ স্কোয়াড থেকে এখন পর্যন্ত জাতীয় দলের হয়ে সুযোগ পেয়েছেন ৬ জন খেলোয়াড়। পিনাকের যেই ৬ জন ব্যাচমেট জায়গা পেয়েছেন তারা হলেন নাইম শেখ, সাইফ হাসান, আফিফ হোসেন, আমিনুল ইসলাম, হাসান মাহমুদ, নাইম হোসেন। তবে এখনো নিজেকে সেইভাবে মেলে ধরতে পারেননি পিনাক।

অসাধারণ প্রতিভা থাকার পরও পিনাকের অনূর্ধ্ব ১৯ ক্রিকেটে গড় ছিল ৩০। ধারাবাহিকতার অভাব ছিল অনেক প্রতিভা থাকার পরও। বড় দলের বিপক্ষে প্রায়ই রান পেলেও ছোট দলের বিপক্ষে ব্যাট হাতে তেমন সুবিধা করতে পারেননি পিনাক তার অনূর্ধ্ব ১৯ ক্যারিয়ারে। ঘরের মাঠে অনূর্ধ্ব ১৯ বিশ্বকাপে ৩ ইনিংসে রানের খাতা খুলতে ব্যর্থ হন পিনাক যার দুই ম্যাচে প্রতিপক্ষ ছিল স্কটল্যান্ড ও নামিবিয়া, যদিও বিশ্বকাপের আগে সেই বিশ্বকাপ জয়ী ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে করেন শতক।

ছোট দলের বিপক্ষে ব্যর্থ হলেও বড় দলের বিপক্ষে প্রায়ই রান পেতেন পিনাক। ২০১৭ সালে অনূর্ধ্ব ১৯ এশিয়া কাপে ভারতের বিপক্ষে জয় এনে দেওয়া ম্যাচে ম্যাচ সেরার পুরস্কার জিতেন পিনাক। ৭৭ বলে ৮১ রানের ইনিংস খেলে দলকে জয় এনে দিয়ে অপরাজিত থাকেন পিনাক।

আইসিসির ভবিষ্যৎ তারকা পিনাক ঘোষ কতদূর গেলেন ক্যারিয়ারে?
ভারতের বিপক্ষে ম্যাচ সেরার পুরস্কার হাতে পিনাক

পরবর্তী ম্যাচে পাকিস্তানের বিপক্ষে খেলেন ৮২ রানের ইনিংস। নিয়ন্ত্রণ এসে যাওয়া ম্যাচে অদ্ভুত বৃষ্টি আইনে ২ রানে হারতে হয় বাংলাদেশকে। সেই আসরে ফাইনালে গেলে সম্ভাবনা ছিল পিনাকের আসর সেরা হওয়ার।

তবে বড় দলের বিপক্ষে রান পেলেও ছোট দলের বিপক্ষে রান না পাওয়া ও ধারাবাহিকতা না দেখানো ভুগিয়েছে তাকে। ২০১৮ অনূর্ধ্ব ১৯ বিশ্বকাপে কানাডার বিপক্ষে রানের খাতা খুলতে পারেননি, নামিবিয়ার বিপক্ষে করেন ২৬। তবে কোয়ার্টার ফাইনালে ভারতের বিপক্ষে করেন দলের পক্ষে সর্বোচ্চ ৪৩ রান।

এরপর অনূর্ধ্ব ১৯ ক্যারিয়ার শেষ হলেও ঘরোয়া ক্রিকেটে নিয়মিত পিনাক। গত বিপিএলে চট্টগ্রামের হয়ে সুযোগ পেলেও খেলার সৌভাগ্য হয়নি বেশি পিনাকের। চট্টগ্রামের হয়ে একটি ম্যাচেই মাঠে নামেন পিনাক, তবে সেই ম্যাচে ব্যাটিংয়ের সুযোগ পাননি তিনি। পরবর্তীতে তাকে একাদশ থেকে বাদ দেওয়া হয় দলের কম্বিনেশনের কারনে।

বিসিএলে তামিম ইকবালের ত্রিপল সেঞ্চুরি করা ম্যাচে তামিমের মত তারকার সাথে ওপেনিং করতে নামেন পিনাক। করোনার কারনে বন্ধ হওয়ার আগে ঢাকা প্রিমিয়ার লীগের শেষ ম্যাচেও দলের হয়ে এক প্রান্ত আগলে রেখে অর্ধশতক করেন পিনাক।

তিনি এখনো হারিয়ে যাননি, খেলার মাঝেই আছেন। ২০১৮ সালে অনূর্ধ্ব ১৯ বিশ্বকাপে একটি ভিডিওতে আইসিসি তাকে ভবিষ্যৎ তারকা বলে পরিচয় করায়। জাতীয় দলে এখন ওপেনিং ব্যাটসম্যানের অভাব নেই। তামিম ইকবাল, সৌম্য সরকার, লিটন দাস, সাদমান ইসলাম তারা ছাড়াও আরো প্রতিভাবান খেলোয়াড় আছেন অনেক। তাই জাতীয় দলের জন্য নিজেকে প্রমাণ করতে পিনাককে করোনার পর শুরু হতে যাওয়া ঘরোয়া ক্রিকেটে বেশ ভালো করেই প্রমাণ করতে হবে। দর্শকরাও আশা করবেন আইসিসির সেই ভবিষ্যৎ তারকা, ডারবানে ১৫০ রানের ইনিংস খেলা পিনাক ধারাবাহিকতার প্রমাণ দিয়ে জাতীয় দলে সামনে জায়গা করে নিবেন।

 

নিউজটি বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন

Related Articles

সাকিবের অর্জন ‘গল্প’, আকবরদের অর্জন ‘গর্ব’

বিশ্বকাপজয়ী আকবরদের পেছনের গল্প শোনালেন মাসুদ হাসান

বিশ্বকাপে বল ‘না পাওয়া’ শাহাদত আলো ছড়ালেন বিকেএসপিতে

বড় ভাইয়ের আত্মত্যাগে আজকের মাহমুদুল হাসান

এই বিশ্বকাপ সাকিব-তামিমদের ‘প্রেরণা’ হিসেবে কাজ করবে