SCORE

সর্বশেষ

আগে থেকেই বিবেচনায় ছিলেন রাজ্জাক

রোববার হুট করে জাতীয় দলে ডাক পান অভিজ্ঞ স্পিনার আব্দুর রাজ্জাক। ঘরোয়া ক্রিকেটে কদিন আগেই নতুন মাইলফলক স্পর্শ করা রাজ্জাকের ডাক পাওয়ায় অনেকেই অবাক হয়েছেন।

চট্টগ্রাম টেস্টের দলে রাজ্জাক

জাতীয় দলের জার্সি গায়ে রাজ্জাক সর্বশেষ টেস্ট খেলেছিলেন ৪ বছর আগে। বাঁহাতি অফ স্পিনার ধরেই নিয়েছিলেন, জাতীয় দলে হয়ত আর খেলা হবে না তার। চট্টগ্রাম টেস্টের দলে ডাক পেয়ে তাই রীতিমতো বিস্মিত হয়েছেন তিনি।

Also Read - নাঈম হাসানকে ভালোই চেনেন হাথুরুসিংহে!

তবে আব্দুর রাজ্জাক নির্বাচকদের ভাবনায় ছিলেন আগে থেকেই। ঘরোয়া ক্রিকেটে রাজ্জাকের পারফরমেন্স বিবেচনা করা হচ্ছিল আগে থেকেই।

প্রধান নির্বাচক মিনহাজুল আবেদিন নান্নু সংবাদমাধ্যমকে বলেন, ‘তার অন্তর্ভুক্তি হুট করে নয়। ঘরোয়া ক্রিকেটে ভালো পারফরম্যান্সের কারণে রাজ্জাক আগে থেকেই বিবেচনায় ছিলেন।’

নান্নু আরও বলেন, ‘আমাদের টেস্ট ক্রিকেট স্পিন নির্ভর। রাজ্জাক অভিজ্ঞ। অন্যদিকে সাকিব নেই। এছাড়া সানজামুলও নতুন। তাইজুলও ফর্মে নেই। সবকিছু বিবেচনায় অভিজ্ঞ রাজ্জাককে দলে ফেরানো।’

শুধু রাজ্জাকই নন। ঘরোয়া ক্রিকেটে ভালো করা অন্য ক্রিকেটাররাও আছেন নির্বাচকদের নজরে। তিনি বলেন, ‘ঘরোয়া ক্রিকেটে যারা পারফর্ম করছেন তারা আমাদের নজরে আছেন।’

উল্লেখ্য, গত ১৭ জানুয়ারি চলমান বাংলাদেশ ক্রিকেট লিগের দ্বিতীয় রাউন্ডের খেলায় দেশের প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে প্রথম এবং একমাত্র বাংলাদেশি বোলার হিসেবে ৫০০ উইকেটের মাইলফলক স্পর্শ করেন বাঁহাতি স্পিনার আব্দুর রাজ্জাক। ক্যারিয়ারের ১১৩তম প্রথম শ্রেণির ম্যাচে এসে এই মাইলফলক স্পর্শ করেন অভিজ্ঞ এই ক্রিকেটার। রাজ্জাকের এমন কীর্তিই চার বছর পর তার জন্য খুলে দিয়েছে জাতীয় দলের দরজা। ২০১৪ সালে বাংলাদেশের ওয়েস্ট ইন্ডিজের সফরের পর থেকেই জাতীয় দলের বাইরে আছেন স্পিনরাজ হিসেবে পরিচিত এই ক্রিকেটার। জাতীয় দলের হয়ে ১৫৩ ওয়ানডতে তিনি শিকার করেছেন মোট ২০৭টি উইকেট। এছাড়া ১২ টেস্টে তার উইকেট সংখ্যা ২৩। খেলেছেন ৩৪ টি আন্তর্জাতিক টি-২০ ম্যাচও, যেখানে তার শিকারে রয়েছে ৪৪টি উইকেট।

আরও পড়ুনঃ শ্রীলঙ্কা সিরিজেও টাইটেল স্পন্সর ‘রকেট’

Related Articles

উইন্ডিজ সফরের টেস্ট স্কোয়াডে ‘ইন-আউট’ যারা

দ্বিগুণেরও বেশি বাড়ল রাজ্জাকদের বেতন

সাকিবের পাশে থিতু হতে চান অপু

রাজ্জাকের স্পিন ঘূর্ণিতে চ্যাম্পিয়ন দক্ষিণাঞ্চল

‘যেখানেই খেলি না কেন ভালো খেলতে হবে’