আন্তর্জাতিক ক্রিকেটকে বিদায় জানালেন আবদুর রেহমান

পাকিস্তান জাতীয় দলের নিয়মিত খেলোয়াড় হিসেবেই পরিচিত ছিলেন আবদুর রেহমান। বাঁহাতি এ স্পিনার সর্বশেষ জাতীয় দলের হয়ে খেলেছিলেন ২০১৪ সালে। এরপর আর দেখা যায়নি তাকে। এবার পুরোপুরিভাবেই আন্তর্জাতিক ক্রিকেটকে বিদায় জানালেন তিনি।

বুধবার এক বিশেষ বিজ্ঞপ্তিতে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে অবসরের ঘোষণা দেন তিনি।  ২৬ বছর বয়সে ২০০৬ সালে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট আঙিনায় অভিষেক ঘটেছিল আবদুর রেহমানের।  ঘরের মাঠে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে সেই সিরিজে জোড়া চার উইকেট নিয়ে আলোচনায় এসেছিলেন এ খেলোয়াড়। সিরিজে দলের সর্বোচ্চ উইকেটশিকারী হয়ে নজর কেড়েছিলেন সমর্থকদেরও।

Also Read - ‘আমরা সেরা দলটাই দিয়েছি'

এরপর একাধিকবার অসাধারণ বোলিংয়ে মানুষের মনে জায়গা করে নিয়েছিলেন তিনি।  ২০১২ সালে দুবাইয়ের মাটিতে ইংল্যান্ডকে হোয়াটওয়াশের নেপথ্য নায়ক ছিলেন রেহমানই। ১৯ উইকেট নিয়ে রীতিমত ইংলিশদের আতঙ্কের কারণ হয়ে উঠেছিলেন তিনি। এধরনের পারফরম্যান্স দিয়ে দলে পাকাপোক্তভাবে জায়গায়ও করে নিয়েছিলেন তিনি। তবে ২০১৪ সালে বাদ পড়ার পর আর ডাক পাননি জাতীয় দলে।

এছাড়া ভাগ্যের পরিহাসে একসময় টেস্ট ফরমেট থেকেও ছিটকে পড়েছিলেন আবদুর রেহমান। তবে অদম্য চেষ্টায় আবারও নির্বাচকদের নজর কাড়েন তিনি। যার ফল হিসেবে ২০১০ সালে আবারও ডাক পান টেস্ট দলে। সেই থেকে ২০১৪ সালে শ্রীলংকা সফর পর্যন্ত পাকিস্তানের টেস্ট দলে নিয়মিত সদস্যই ছিলেন তিনি। এর মধ্যে ওয়ানডে আর টি-টোয়েন্টিও খেলেছেন।

এখন পর্যন্ত দেশের পক্ষে ২২ টেস্টে ৯৯ উইকেট নিয়েছেন আবদুর রেহমান। ৩১ ওয়ানডেতে নিয়েছেন ৩০ উইকেট। খেলেছেন ৮টি টি-টোয়েন্টিও। বাঁহাতি এই স্পিনারের এই ফরমেটে শিকার করেছেন ১১ উইকেট।

তবে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটকে বিদায় জানালেও ঘরোয়া ক্রিকেট চালিয়ে যাবেন বলে জানিয়েছেন তিনি।

উল্লেখ্য, ১৯৮০ সালের ১ মার্চ পাকিস্তানের শিয়ালকোটে জন্মগ্রহণ করেন আব্দুর রেহমান। ২০১৪ সালের ১৪ অগাস্ট শ্রীলংকার বিপক্ষে সর্বশেষ টেস্ট, একই বছর ৪ মার্চ বাংলাদেশের বিপক্ষে সর্বশেষ ওয়ানডে এবং ২০১৩ সালের ১৩ নভেম্বর দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে সর্বশেষ টি-টোয়েন্টি খেলেন তিনি।


Read in English : Abdur rehman quits from international arena