Scores

আন্দোলনের মুখে ক্ষমা চাইলো ক্রিকইনফো

সারা বিশ্বেই করোনা ভাইরাসের কারণে সকল ধরনের খেলাধুলা আপাতত বন্ধ। আইসিসি তাদের বিভিন্ন বাছাইপর্বের খেলা আগামী জুন মাস পর্যন্ত বন্ধ রেখেছে। আইপিএল পিছিয়েছে অনির্দিষ্টকালের জন্য। নেদারল্যান্ডস ক্রিকেট বোর্ডও তাদের এই সিজনের খেলা বাতিল করে দিয়েছে। খেলা শুরু হওয়া সম্ভাবনা প্রায় শূন্যের কোঠায় ইংল্যান্ডেও। লম্বা সময় ক্রিকেট ভক্তদের জন্য থাকছেনা কোনো আন্তর্জাতিক ম্যাচ থাকছেনা। তবে ভক্তদের জন্য এই নিরুত্তাপ সময়েও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ঝড় তুললো ক্রিকইনফোর পোল।

কোহলিদের বেতন-ভাগ্য ঝুলছে আইপিএলের উপর!

সম্প্রতি জনপ্রিয় ক্রিকেট ওয়েবসাইট ক্রিকইনফো একটি পোলের আয়োজন করে সেরা টি-টোয়েন্টি খেলোয়াড়ের। এই পোলে ভোটের মাধ্যমে নির্ধারিত হবে টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটের সেরা খেলোয়াড়। এই পোলের কোয়ার্টার ফাইনালে্র ভোটিংয়ে মুখোমুখি হয়েছিলেন দুই জনপ্রিয় ক্রিকেটার ক্রিস গেইল ও বিরাট কোহলি। পোলে ক্রিকইনফো গেইলকে বিজয়ী ঘোষণা করে। তবে গেইল জেতার পর তুমুল আন্দোলন শুরু হয় টুইটারে।

Also Read - পেয়েছিলেন বাংলাদেশের নাগরিকত্ব, তবে বিদায় নিতে হয় অপমানজনকভাবে!


কোহলি ভক্তরা দাবি করেন কোহলি গেইলের চেয়ে বেশি ভোট পেয়েছিলেন। প্রমাণসহ তারা টুইটারে কয়েক হাজার টুইট করেন। পুরো টুইটার জুড়ে তাদের আন্দোলনে ক্রিকইনফোকে প্রতারক হিসেবে ঘোষণা দেয় কোহলি ভক্তরা। অবশেষে আন্দোলনের মুখে হার মানলো ক্রিকইনফো। আজ টুইটের মাধ্যমে এই কথা জানায় ক্রিকইনফো।

যান্ত্রিক ত্রুটির কারণে এই সমস্যা হয়েছে বলে জানায় ক্রিকইনফো। তারা নিজেদের ভুল স্বীকার করে। একইসাথে জানায় যেহেতু এটা ভক্তদের ভোটের মাধ্যমে নির্ধারিত হয়, তাই তারা পুনরায় ভোট নিবেন। ফলে কোহলি বনাম গেইলের কোয়ার্টার ফাইনাল আবার শুরু হয়েছে। এই ভোট চলবে ৪ তারিখ পর্যন্ত।

ক্রিকইনফোর বিরুদ্ধে এই অভিযোগ নতুন নয়। এর আগে দশকের সেরা ওয়ানডে খেলোয়াড়ের ভোটে সাকিব-ধোনির ফাইনালে সাকিব বেশি ভোট পাওয়ার পরও ধোনিকে বিজয়ী ঘোষণা করে তারা। সাকিব ভক্তরা প্রমাণ দেওয়ার পরও কোন পাত্তা দেয়নি ক্রিকইনফো। তবে এইবার তারা চুপ থাকতে পারেনি। কোহলি ভক্তদের তুমুল আন্দোলনে অবশেষে তাদের হার মানতেই হলো। এই রকম অনলাইন পোলে এই প্রথম পুনরায় ভোট হবে ভক্তদের দাবিতে।

এই ঘটনায় অবশেষে কোহলি ভক্তদের জয় হলো ঠিক, তবে নিজেদের গ্রহণযোগ্যতা প্রশ্নের মুখে ফেললো ক্রিকইনফো। যদিও এই রকম ভোট খুব গুরুত্বপূর্ণ না খেলোয়াড়দের জন্য, তবে প্রশ্ন রয়েই যাই কেনো কোহলির জন্য এক নিয়ম ও সাকিবের সময় অন্য নিয়ম? কেনো প্রমাণ দেখানোর পরও সাকিবের সময় কোনো পদক্ষেপ নেয়নি তারা? তাহলে কি চাপের মুখে হার মানলো তারা ভারতীয় ভক্তদের? এইরকম জনপ্রিয় ওয়েবসাইটের কাছে পাঠকরা ভবিষ্যতে আরো নিরপেক্ষ আচরনই আশা করবে। এই রকম আচরনে রীতিমতো হতবাক টুইটার ব্যবহারকারীরা। শুধু নিরপেক্ষ ভক্তরাই নন, প্রশ্ন তুলেছেন খোদ ভারতীয়রাও এমন আচরনে। দেখে নিন কিছু টুইট।

Related Articles

একাদশে গেইলের অনুপস্থিতির কারণ জানালেন রাহুল

বোল্টের জন্মদিনের পার্টিতে যোগ দিয়েও ভাইরাসমুক্ত গেইল

সিপিএলে নেই গেইল, সরে গেলেন ‘শত্রু’ সারওয়ানও

সিপিএল খেলবেন না গেইল

ক্রিকেটারদের কখনোই ভেঙে না পড়ার অনুরোধ গেইলের