Scores

আফগানিস্তানের বিপক্ষে হেসে খেলেই জিতবঃ সুজন

২০১৫ সাল বাংলাদেশ ক্রিকেটের জন্য স্মরণীয় একটি বছর। বিশ্ব ক্রিকেটের তিন শক্তিশালী দল পাকিস্তান, ভারত ও দক্ষিন আফ্রিকার বিপক্ষে সিরিজ জিতেছিলো টাইগাররা। কিন্তু এরপর জিম্বাবুয়ের সাথে একটি সিরিজ খেললেও আর কোনো দ্বি-পাক্ষিক সিরিজ খেলেনি টাইগাররা। প্রায় সাত মাস পর বাংলাদেশের সাথে দ্বি-পাক্ষিক সিরিজ খেলতে আসছে আফগানিস্তান ক্রিকেট দল। এরপর আসবে ইংল্যান্ড। বাংলাদেশ দলের বর্তমান অবস্থা ও আসন্ন সিরিজ নিয়ে কথা বলেন বাংলাদেশ জাতীয় দলের ম্যানেজার খালেদ মাহমুদ সুজন।

khaled_mahmud

বাংলাদেশের সাথে তিন ম্যাচের একদিনের সিরিজ খেলতে ২১ সেপ্টেম্বর ঢাকায় আসবে আফগানিস্তান ক্রিকেট দল। খালেদ মাহমুদ সুজন আফগানিস্তানকে শক্তিশালী প্রতিপক্ষ মানলেও হেসে খেলেই বাংলাদেশ জিতবে বলে মনে করেন। আফগানিস্তান সিরিজ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, “অনেক গুরুত্বপূর্ণ। ইংল্যান্ডের মতো শক্তিশালী দলের সঙ্গে খেলার আগে এমন একটা সিরিজ খেলার খুবই দরকার ছিলো। যদিও আফগানিস্তান কম শক্তিশালী না। তারা অবশ্য ইংল্যান্ডের চেয়ে শক্তিশালী না। অনেকে দুশ্চিন্তা করছেন তাদের বিপক্ষে হেরে গেলে আমাদের পয়েন্ট কমে যাবে। তবে আমার বিশ্বাস আমরা আফগানিস্তানের বিপক্ষে হেসে খেলেই জিতব। আমরা অনেক শক্তিশালী দল। ইংল্যান্ডের সঙ্গে খেলার আগে আমরা নিজেদের ঝালিয়ে নেয়ার সুযোগ পাবো। আমার মনে হয় সিরিজটা খুব ভালো হবে।” 

Also Read - সুজনের বিশ্বাস তাসকিন নিখুঁত হয়েই ফিরবে


দ্বি-পাক্ষিক সিরিজ না খেললেও এই বছরে এশিয়া কাপ ও টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে অংশ নিয়েছিলো টাইগাররা। তবে সর্বশেষ টেস্ট খেলেছে দক্ষিন আফ্রিকার বিপক্ষে সেটাও প্রায় ১১ মাস হয়ে গেছে। আসন্ন ইংল্যান্ড সিরিজে থাকছে দুইটি টেস্ট। এর জন্য টাইগারদের আলাদা প্রস্তুতি নেয়া হয় নি। একটি প্রস্তুতি ম্যাচ খেলার আক্ষেপ ঝড়লো দলের ম্যানেজারের কাছ থেকেও। টেস্ট প্রসঙ্গে খালেদ মাহমুদ সুজন বলেন, “টেস্ট ম্যাচ খেলার সময় ছিলো না। তাহলে আমরা ঈদের ছুটি পেতাম না।  তাই টেস্ট ম্যাচ রাখা সম্ভব হয়নি। আমি মনে করি একটা প্রস্তুতিমূলক চার দিনের ম্যাচ খেলাতে পারলে ভালো হতো। ছেলেরা অনেক দিন আগে টেস্ট ম্যাচ খেলেছে।”

এদিকে বাংলাদেশের সর্বশেষ সব দ্বি-পাক্ষিক সিরিজ জয়ের কারিগর ছিলেন মুস্তাফিজুর রহমান। কিন্তু আফগানিস্তান ও ইংল্যান্ড সিরিজে তাকে পাচ্ছে না বাংলাদেশ। ইঞ্জুরীর কারণে আরো ৫-৬ মাস মাঠে নামা হবে না কাটার মাস্টারের। তবে সুজনের বিশ্বাস মুস্তাফিজের অভাব অধিনায়ক মাশরাফি ভালোভাবেই সামলে নিবেন। মুস্তাফিজকে নিয়ে সুজন বলেন, “মুস্তাফিজ একজন স্পেশাল বোলার, এটা নিয়ে কোনও সন্দেহ নেই। ওরমতো একজন প্লেয়ারকে না পাওয়াটা বড় ধরনের ক্ষতি। তবে এটা আমাদের মাথায় রাখতে হবে ওকে ছাড়াও আমরা অনেক ম্যাচ খেলেছি, ভালো খেলেছি। আমার কাছে মনে হয়, মাশরাফি খুব ভালোভাবে এটা সামলে নেবে।” 

মুস্তাফিজের অভাব পূরণ করবেন কে? এমন প্রশ্নে তাসকিন, রুবেলদের উপর আস্থা রাখছেন বাংলাদেশের সাবেক এই অধিনায়ক। তিনি বলেন, “আমার বিশ্বাস মুস্তাফিজ খুব তাড়াতাড়ি ফিরে আসবে।  এছাড়া তাসকিন, রুবেল এরা দুইজন যেকোনও দিন ম্যাচ জিতিয়ে দিতে পারে। এছাড়া শফিউল, আল-আমিন এরা খুব ভালো মানের বোলার।”

উল্লেখ্য, বাংলাদেশ-আফগানিস্তান তিনটি একদিনের ম্যাচের সিরিজ শুরু হবে ২৫ শে সেপ্টেম্বর। এই সিরিজ শেষ হবার পূর্বেই তিনটি একদিনের ম্যাচ ও দুইটি টেস্ট খেলতে ৩০ শে সেপ্টেম্বর ঢাকায় পা রাখবে ইংল্যান্ড ক্রিকেট দল।

নিউজটি বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন

Related Articles

সুজন পক্ষে, দুর্জয় বিপক্ষে

বিপিএলে কমছে খেলোয়াড়দের পারিশ্রমিকের পার্থক্য

‘অধিনায়কত্ব’ ইস্যুতে ভীষণ চটেছেন সুজন!

বিসিবির সাথে আলোচনা করতে ঢাকায় প্রোটিয়া কোচ

বিশ্বকাপের পারফরম্যান্সের রিপোর্ট এখনও পায়নি বিসিবি