Scores

আফ্রিদিকে মনোবিদের কাছে নিয়ে যাবেন গম্ভীর!

পাকিস্তানের সাবেক ক্রিকেটার শহীদ আফ্রিদি ও ভারতের সাবেক ক্রিকেটার গৌতম গম্ভীরের মাঝে কথার লড়াই আবারো জমে উঠেছে। এই দুই তারকা ক্রিকেটার সাম্প্রতিক কাঁদা ছোঁড়াছুঁড়িতে জড়িয়ে যেন হাড় মানিয়েছেন অতীতের সব কথার লড়াইকে।

আফ্রিদিকে মনোবিদের কাছে নিয়ে যাবেন গম্ভীর!

সম্প্রতি প্রকাশিত আত্মজীবনীতে আফ্রিদি গম্ভীরকে একহাত নিয়েছেন। গম্ভীরকে দাম্ভিক, ব্যক্তিত্বহীন, ‘সরিয়াল’ বলে আখ্যায়িত করেন আফ্রিদি। এই ঘটনায় চুপ করে থাকতে পারেননি গম্ভীর। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম টুইটারে দেওয়া এক পোস্টে পরোক্ষভাবে আফ্রিদিকে ‘মানসিক রোগী’ হিসেবে আখ্যায়িত করেছেন!

Also Read - "নিজের বইকে আকর্ষণীয় করতেই গম্ভীরের সমালোচনায় আফ্রিদি"


 

গম্ভীর বলেন-

‘আফ্রিদি তুমি একজন উন্মাদ। যাইহোক, আমরা মেডিক্যালের জন্য পাকিস্তানকে এখনও ভিসা প্রদান করছি। আমি নিজে তোমায় সাইকাট্রিস্টের (মনোবিদ) কাছে নিয়ে যাব।’


গম্ভীর অবশ্য মুখ খোলার আগে বেশ ধৈর্যের পরিচয় দিয়েছেন। তাকে নিয়ে আফ্রিদির বিদ্রূপাত্মক মন্তব্যের পরও দীর্ঘ সময় চুপ ছিলেন। তবে ক্রিকেট মিডিয়ায় এ নিয়ে আলোচনার শোরগোল পড়লে মুখ খুলেন সাবেক ভারতীয় ব্যাটসম্যান।

উল্লেখ্য, আফ্রিদি তার আত্মজীবনীতে গম্ভীরের বিষয়ে লিখেন, ‘গম্ভীর খুবই দাম্ভিক। তার মানসিকতায় সমস্যা আছে। তার কোনো ব্যক্তিত্ব নেই। সে এমন একটা বিরল চরিত্র যাকে ক্রিকেটের বড় লজ্জা বলা যায়। তার আহামরি কোনো রেকর্ড নেই। পুরোটাই দম্ভ। গম্ভীর এমন আচরণ করে, যেন সে ডন ব্র্যাডম্যান ও জেমস বন্ডের মিলিত কিছু। করাচিতে এরকম লোকেদের আমরা সরিয়াল বলি।’

প্রথমবারের মত বিডিক্রিকটাইম নিয়ে এলো অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ্লিকেশন। বাংলাদেশ এবং সকল আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের বল বাই বল লাইভ স্কোর, এবং সাম্প্রতিক নিউজ সহ সবকিছু এক মুহূর্তেই পাবেন বাংলাদেশ ক্রিকেটের সবচেয়ে বড় অনলাইন পোর্টাল BDCricTime এর অ্যাপে। অ্যাপটি ডাউনলোড করতে গুগল প্লে-স্টোর থেকে সার্চ করুন BDCricTime অথবা ডাউনলোড করতে এখানে ক্লিক করুন। ভালো লাগলে অবশ্যই রেটিং দিয়ে উৎসাহী করুন।

 

নিউজটি বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন

Related Articles

মাসাকাদজার বিদায়ী ম্যাচে আফগানিস্তানকে হারাল জিম্বাবুয়ে

বাংলাদেশ সিরিজে ধোনিকে রাখার পক্ষে নন গাভাস্কার

এক বছরের জন্য নিষিদ্ধ হলেন ধনাঞ্জয়া

সবাইকে ছাপিয়ে ‘রাজত্ব’ দখলে নিলেন কোহলি

জয়ের ধারায় বাংলাদেশ, টুইটারে প্রশংসা ও স্বস্তি