Scores

আবাহনীর রান আর রেকর্ডের বন্যা

লিটন দাস ও দিনেশ কার্তিকের শতক আর সাকিব আল হাসানের ঝড়ো ব্যাটিংয়ে মোহামেডানকে ৩৭২ রানের লক্ষ্য ছুঁড়ে দিয়েছে আবাহনী। রানের বন্যা বইয়ে দেওয়ার এ ম্যাচে আবাহনী এ আসরের কিছু রেকর্ডও এনেছে নিজেদের দখলে।

বিকেএসপির তিন নং মাঠে টস জিতে ফিল্ডিং করার সিদ্ধান্ত নেয় মোহামেডান। চির প্রতিদ্বন্দ্বীর বিপক্ষে ব্যাট করতে নেমে শুরুটা ভালোই করেছিলেন দুই ওপেনার তামিম ইকবাল ও লিটন দাস। ৪৯ রান সংগ্রহ করে তামিম-লিটন জুটি। তবে নিজের স্কোর তেমন বড় করতে পারেননি তামিম ইকবাল। ৩১ বলে ২২ রান করে থিসারা পেরেরার বলে আউট হন তামিম ইকবাল। দুই ওভার পরে ৭ রান করে  নাজমুল হোসেন শান্ত বিদায় নিলে কিছুটা চাপে পড়ে আবাহনী।

দলকে সেই চাপ থেকে উদ্ধার করেন লিটন দাস ও ভারতের দিনেশ কার্তিক। শুধু চাপ থেকে উদ্ধারই করেননি, দলকে সুবিধাজনক স্থানেও নিয়ে যায় এ ১৫৭ রানের জুটিটি। প্রথম ম্যাচে নেমেই ১১ চার ও ৪ ছক্কার সাহায্যে ৯৭ বলে ১০৯ রান করেন দিনেশ কার্তিক। শতকের দেখা পান লিটনও।

Also Read - শনিবার মোস্তাফিজের পরীক্ষা


বেশ কদিন ধরেই বড় স্কোরের দেখা পাচ্ছিলেন না লিটন দাস। এ ম্যাচে হেসেছে তার ব্যাট। মোহামেডানের বিপক্ষে করলেন ১২৫ বলে ১৩৯ রান। হাঁকান ১৮ টি চার ও ১ টি ছক্কা। চলতি ঢাকা প্রিমিয়ার লিগে এটিই লিটনের প্রথম শতক।  ঢাকা প্রিমিয়ার লিগের চলতি আসরে এক ইনিংসে সর্বোচ্চ রানের রেকর্ডটাও নিজের করে নিয়েছেন লিটন। টপকেছেন গাজী গ্রুপের শামসুর রহমানের ১৩৬ রানের ইনিংসকে। লিটন দাসের আবাহনীর বিপক্ষেই ১৩৬ রান করেছিলেন শামসুর। এ তালিকায় লিটন ও শামসুরের পর আছেন শাহরিয়ার নাফীস। ব্রাদার্সের নাফীস ১৩৪ রান করেছিলেন ক্রিকেট কোচিং স্কুলের বিপক্ষে।

দলীয় ২২৬ রানের মাথায় আরিফুলের বলে আউট হন লিটন। তারপর দিনেশকে নিয়ে আরো ১০১ রান যোগ করেন সাকিব আল হাসান। করেন ঝড়ো ব্যাটিং। খুনে মেজাজে ব্যাট করে ২৪ বলে রান করেন ৫৫। চার মারেন ২ টি। আকাশে ভাসিয়ে সীমানা ছাড়া করেন ৫ বার। তার ২৩৭.৫০ স্ট্রাইক রেটই যেন বলছে কতটা বিধ্বংসী ছিলেন সাকিব।  এ আসরে এক ইনিংসে (২৫ বা তার বেশি রান করা) সবচেয়ে বেশি স্ট্রাইক রেট এখন সাকিবের। তার ২২ বলে ৫০ এখন আসরের দ্রুততম অর্ধশতক। মারকুটে ব্যাটিং করেন মোসাদ্দেকও (৮ বলে ১৯)।

ঢাকা প্রিমিয়ার লিগে আবাহনীর ৫ উইকেটে ৩৭১ রান সর্বোচ্চ দলীয় সংগ্রহের তালিকাতেও সবার উপরে চলে এসেছে। লিস্ট এ ক্রিকেটে বাংলাদেশের কোনো দলের সর্বোচ্চ দলীয় সংগ্রহ এটি। এর আগে এ আসরের সর্বোচ্চ দলীয় সংগ্রহ ছিল শেখ জামালের বিপক্ষে প্রাইম ব্যাঙ্কের ৯ উইকেটে ৩১৮।

-আজমল তানজীম সাকির, প্রতিবেদক, বিডিক্রিকটিম ডট কম 

নিউজটি বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন

Related Articles

ওবায়দুল কাদেরকে দেখতে হাসপাতালে মাশরাফি

এক ম্যাচ হাতে রেখেই সিরিজ জিতলো ভারত

মেডিকেল রিপোর্টের উপরেই নির্ভর করছে সাকিবের এনওসি

শঙ্কা কাটিয়ে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে খেলছেন মুস্তাফিজ

দুদকের শুভেচ্ছাদূত হলেন সাকিব