‘আমাদের মূল ১১ জন খেললে এই সিরিজ আরও ভালো হত’

0
834

জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে তিন ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজে ২-১ ব্যবধানে জয় পেয়েছে বাংলাদেশ। সিরিজ সেরা ক্রিকেটার সৌম্য সরকার বলছেন, বাংলাদেশ দলের মূল ১১ জন খেলতে পারলে সিরিজটি তাদের জন্য আরও ভালো হত।

ব্যাটিংয়ের সময় নিজের সাথে কথা বলেই সফল সৌম্য
সৌম্য সরকার

টি-টোয়েন্টি সিরিজের প্রথম ও তৃতীয় ম্যাচে দাপট দেখিয়েই জয় তুলে নিয়েছে বাংলাদেশ। তবে দ্বিতীয় ম্যাচটি হারতে হয়েছে টাইগারদের। দ্বিতীয় ম্যাচটিতে খেলতে পারেননি লিটন দাস ও মুস্তাফিজুর রহমান এবং আগে থেকেই ছিলেন না তামিম ইকবাল ও মুশফিকুর রহিম। দলের এই নিয়মিত মুখগুলো একাদশে থাকলে বাংলাদেশ আরও ভালো করতে বলে অভিমত দেন সৌম্য,

Advertisment

‘টি-টোয়েন্টি ম্যাচে তো আক্রমণাত্মক থাকতেই হয়। ইতিবাচক থাকতে হয় ও ইনটেন্সিটিও উচ্চ থাকতে হয়। যারা ম্যাচে ছিল না ওদের কথা ভাবলে তো হবে না। যারা ছিল ওদেরকে নিয়েই সবাই নিজের সেরাটা দিয়ে খেলেছে। অবশ্যই আমরা তাদেরকেও মিস করেছি। আমাদের মূল ১১ জন খেলতে পারলে হয়তো এই সিরিজটা আরও ভালোভাবে শেষ হত। তারপরও আমরা যারা খেলেছি, সবাই ভালো করেছি।’

বাংলাদেশ দুইটি ম্যাচ জিতেছে এবং দুইটি ম্যাচেই ব্যাট ও বল হাতে অবদান রেখেছেন সৌম্য। ফলে দুইটি ম্যাচেই সেরা ক্রিকেটারসহ সিরিজ সেরা হয়েছেন তিনি। নিজের সেরাটা দিয়ে খেলার ব্যাপারে সৌম্য বলেন,

‘অনুভূতি ভালো, ম্যান অব দ্য সিরিজ হয়েছি। ভালো খেলেছি, এটাই সবচেয়ে বড়। পজিশন নিয়ে চিন্তা করিনি, চিন্তা করেছি নিজের সেরা দিতে এবং যখন সুযোগ পাব, নিজের সেরাটা দিতে পারলে আমার জন্য খুব ভালো হবে। ওইটাই সবসময় মাথায় ছিল।’

তৃতীয় ম্যাচে ১৯৪ রানের বড় লক্ষ্য ছিল বাংলাদেশের সামনে। এই লক্ষ্য তাড়া করার সময় সৌম্য খেলেন ৪৯ বলে ৬৮ রানের ইনিংস। নিজের ব্যাটিং পরিকল্পনা সম্পর্কে তিনি বলেন,

‘নতুন বল একটু আস্তে-জোরে এবং নিচে-ওপরে হচ্ছিল। তখন ভেবেছিলাম এখনই জোরাজুরি না করে পরে সময় আসবে, তখনকার জন্য অপেক্ষা করি। একটা বড় ওভার আসলেই ম্যাচ আমাদের দিকে আসবে। আর প্রত্যেক ওভারে একটা করে বাউন্ডারি মারার চেষ্টা করছিলাম।’

তিনি আরও বলেন, ‘বোলিং তো প্রায়ই করা হয়। ফিল্ডিংয়েও সবসময়ই চেষ্টা করি নিজের সেরাটা দেওয়ার। বোলিং পেয়েছি যে কয় ওভার, চেষ্টা করেছি সেখানেও সেরাটা দেওয়ার।’

তরুণ ক্রিকেটারকে শামীমকে ম্যাচ জেতাতে দেখেও খুশি হয়েছেন সৌম্য, ‘শামীম যতটুকু ব্যাটিং করেছে, খুবই গুরুত্বপূর্ণ ছিল। সবচেয়ে বড় কথা, ওর ভেতরে ইতিবাচক একটা দিক আছে। ওর ভেতরে ম্যাচ জেতানোর ক্ষুধা ছিল। আমার খুব ভালো লেগেছে যে ও নিজের দ্বিতীয় ম্যাচেই এমন পরিস্থিতি থেকে ম্যাচ জিতিয়ে এসেছে।

বল বাই বল লাইভ স্কোর পেতে আর নয় বিদেশি অ্যাপ। বাংলাদেশ ক্রিকেটের সাম্প্রতিক খবর এবং বল বাই বল লাইভ স্কোর আপনার মুঠোফোনে পেতে এখনি প্লে-স্টোর থেকে BDCricTime সার্চ করে ডাউনলোড করুন বাংলাদেশের নাম্বার ওয়ান ক্রিকেট অ্যাপটি। অথবা ডাউনলোড করতে ক্লিক করুন এখানে। ভালো লাগলে অবশ্যই রেটিং দিয়ে উৎসাহী করুন।