Scores

আমার প্রতি অবিচার করা হয়েছে : বুলবুল

বাংলাদেশ ক্রিকেটের অভ্যুদয়ের সাথে জড়িত আছে আমিনুল ইসলাম বুলবুলের নাম। এই ব্যাটসম্যান আনুষ্ঠানিকভাবে অবসরের ঘোষণা না দিয়ে করেছেন এক নীরব প্রতিবার। বিডিক্রিকটাইমের  সরাসরি আড্ডায় তিনি বলেন, মৃত্যুর আগের দিন পর্যন্ত বাংলাদেশ দলের জন্য তিনি অ্যাভাইলেবল থাকবেন।

২০০০ সালের ১০ নভেম্বর ভারতের বিপক্ষে প্রথম টেস্ট ম্যাচ দিয়ে সাদা পোশাকে যাত্রা শুরু করে বাংলাদেশ। সেই ম্যাচে শতক হাঁকিয়ে প্রথম বাংলাদেশি হিসাবে টেস্ট শতকের রেকর্ড আজীবন নিজের করে নেন বুলবুল। তিনি খেলেছেন মাত্র ১৩টি টেস্ট ম্যাচ। রান করেছিলেন ৫৩০।

Also Read - বুলবুলের চোখে বাংলাদেশের সেরা ওয়ানডে একাদশ


নিজের টেস্ট ক্যারিয়ার নিয়ে বুলবলে বলেন, ‘আমরা যখন টেস্ট স্ট্যাটাস পাই তখন আমার বয়স ৩০ বছর। ৩১ থেকে ৩২ এর মাঝামাঝি সময়টাতে আমাকে দল থেকে বাদ দিয়ে দেয়া হয়েছিল। আমি এখন নিজেকে বলি, আরও কয়দিন টেস্ট ম্যাচ খেলতে পারতাম। ৩০ বছরের একটা ছেলে যখন টেস্ট ম্যাচ খেলে সবার সাথে; আসলে আমাদের সবারই শুরু ছিল তখন। আমরা কয়েকজন অভিজ্ঞ ছিলাম। আমরা বাদ পড়লে ওই জায়গাটা পূরণ করতে অনেক সময় লেগেছ। আমরা খুব ভালো পারফর্মার ছিলাম তা বলছি না, কিন্তু আমরা অভিজ্ঞ ছিলাম।’

এই ব্যাটসম্যান ওয়ানডে খেলেছেন ৩৯টি। এই সংস্করণে তার সংগ্রহ ৭৯৪ রান। ফর্মে থাকা অবস্থায় দল থেকে বাদ পড়ে আর ডাক পাননি তিনি।

ওয়ানডে ক্যারিয়ার নিয়ে তিনি বলেন, ‘আর ওয়ানডের কথা বলবো, আমি ভাগ্যবান যে ৩৯টা ম্যাচ খেলেছিলাম। কিন্তু আরও কিছু ম্যাচ খেলতে পারতাম। আমরা শেষ ওয়ানডে ম্যাচ ছিল পাকিস্তানের বিপক্ষে। ওদের তখন ওয়াসিম আকরাম, ওয়াকার ইউনিস, মুস্তাক, আফ্রিদি, রাজ্জাকদের বোলিংয়ের বিপক্ষে ৩৯ বলে ৪১ রান করেছিলাম। তারপরে আর আমাকে সুযোগ দেয়া হয়নি।’

৫২ বছর বয়সী এই ব্যাটসম্যান মনে করেন তার সাথে অবিচার করা হয়েছিল, ‘তারা তাদের পরিকল্পনার ওপরে ভিত্তি করে আমাকে আর দলে নেননি। আমি আরও কিছুদিন ওয়ানডে খেলতে পারতাম। কিন্তু টি-টোয়েন্টি খেলা হতো। তবে ক্যারিয়ারটা হয়তো আরেকটু দীর্ঘায়িত হতে পারত। আমি অবসর নিইনি ওইসময় কারণ আমার মনে হয়েছিল, আমার প্রতি অবিচার করা হয়েছে। কিন্তু আমি কাউকে দোষ দিই না আর দোষ দিবো না কোনোদিনও।’

তিনি অবিচারের শিকার হয়েছেন মনে করেই ব্যাট-প্যাড তুলে রাখলেও এখনো ২২ গজ থেকে অবসরের ঘোষণা দেননি। বুলবুলের ভাষায়,

‘যেহেতু আমি অবসর নিইনি তার আমি এখনো অ্যাভাইলেবল। কিন্তু আর কোনোদিন সুযোগ পাব না। প্রতিবাদ মতো করে আমি অবসর নিইনি। যখন মারা যাব তখন তো এমনিই অবসর হয়ে যাবে। মৃত্যুর আগের দিন পর্যন্ত আমি দলের জন্য আমি অ্যাভাইলেবল থাকব।’

আমিনুল ইসলাম বুলবুলের সাক্ষাৎকারটি দেখুন এখানে

বল বাই বল লাইভ স্কোর পেতে আর নয় বিদেশি অ্যাপ। বাংলাদেশ ক্রিকেটের সাম্প্রতিক খবর এবং বল বাই বল লাইভ স্কোর আপনার মুঠোফোনে পেতে এখনি প্লে-স্টোর থেকে BDCricTime সার্চ করে ডাউনলোড করুন বাংলাদেশের নাম্বার ওয়ান ক্রিকেট অ্যাপটি। অথবা ডাউনলোড করতে ক্লিক করুন এখানে। ভালো লাগলে অবশ্যই রেটিং দিয়ে উৎসাহী করুন।

নিউজটি বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন

Related Articles

২০২১ টি-২০ বিশ্বকাপ ভারতে, বাড়ল অস্ট্রেলিয়ার অপেক্ষা

আইপিএলের জন্য সিরিজ পেছাল ইংল্যান্ডও

আবারো সন্ত্রাসী হামলার শিকার পাকিস্তানের ক্রিকেট

শীঘ্রই দেশে ফিরছেন সাকিব

১১ নং ব্যাটসম্যানের নির্ভয় ব্যাটিংয়ে প্রতিপক্ষেরও করতালি