Scores

আমার সাথে চরম অন্যায় করা হয়েছে : নাফীস

বাংলাদেশ ক্রিকেটে শাহরিয়ার নাফীসের শুরুটা যেমন সম্ভাবনাময় ছিল, বাকি পথটা সেভাবে আর চলা হয়ে ওঠেনি। এই বাঁহাতি ব্যাটসম্যান মনে করেন তার সাথে চরম অন্যায় করা হয়েছে। আর কোনো ক্রিকেটারের সাথে যেন এরকম করা না হয় সেইজন্যও আশাব্যক্ত করেন তিনি।

আমার সাথে চরম অন্যায় করে হয়েছে নাফীস

২০০৫ ও ২০০৬ সালে দারুণ ব্যাটিং করেছিলেন নাফীস। টেস্ট ও ওয়ানডে দুই ফরম্যাটেই নিয়মিত রান পাচ্ছিলেন। দুই সংস্করণেই অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে দারুণ ব্যাটিং করে হয়েছিলেন প্রশংসিত। কিন্তু ২০০৭ বিশ্বকাপে খুব একটা ভালো পারফর্ম করতে ব্যর্থ হন। আগের বছর এক হাজার রান তোলা এই ব্যাটসম্যান একটা টুর্নামেন্টে রান না পেতেই দল থেকে বাদ পড়েন। এই বিষয়ে তিনি বিডিক্রিকটাইমকে বলেন,

Also Read - সাঙ্গাকারা ও জয়াবর্ধনেকে সমন পাঠাল পুলিশ


‘যেকোনো খেলোয়াড়ের জীবনেই এরকম অবস্থা আসতে পারে। তবে আমি মনে করি, এই ব্যাপারে আমি কিছুটা অন্যায়ের শিকার হয়েছে। ২০০৭ বিশ্বকাপে আমি ছয়টা ম্যাচ খেলেছিলাম; কিন্তু ভালো খেলতে পারিনি সেটা অবশ্যই স্বীকার করব। ২০০৫ সালে যেরকম খেলেছিলাম, ২০০৬ সালে এক হাজার রান করেছিলাম; তাই কেউ যদি মনে করে একজন ক্রিকেটার প্রতিবছর এক হাজার করবে তাহলে তো আর কিছু বলার নেই।’

‘এখানে আমি মনে করি, আমার সাথে খুব অবিবেচকের মতো কাজ করা হয়েছে। কারণ, ২০০৫ ও ২০০৬ সালে ধারাবাহিকভাবে ভালো খেলার পরে একটা টুর্নামেন্টে খারাপ খেললে তার অর্থ এই নয় যে আপনি তাকে ছুঁড়ে ফেলে দিবেন। এটা আমার সাথে হয়েছে। আমি আশা করব, এরকমটা যেন আর অন্য কোনো ক্রিকেটারের সাথে করা না হয়।’

২০০৬ সালে যখন টি-টোয়েন্টি খেলা শুরু করল বাংলাদেশ, এই সংস্করণে প্রথম টাইগার অধিনায়ক হয়েছিলেন নাফীস। কিন্তু পরের বছর টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের প্রাথমিক দলেও আর ডাকা হয়েছিল না তাকে।

সেসব স্মরণ করে তিনি বলেন,২০০৭ বিশ্বকাপের পরে ভারত, ইংল্যান্ডের সাথে সিরিজ ছিল। আমাকে বাদ দিয়ে দেয়া হলো। তারপর টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের প্রাথমিক দলেও আমাকে রাখা হলো না। আমি কিন্তু বাংলাদেশের প্রথম টি-টোয়েন্টি অধিনায়ক ছিলাম। ২০০৮ সালের শুরুতেই আমাকে চুক্তি থেকেই বাদ দেয়া হলো।’

‘এটা যারা করেছিলেন, তারা ভালো উত্তর দিতে পারবেন কী চিন্তা করে করেছিলেন। তবে আমি মনে করি, আমার সাথে চরম অন্যায় করা হয়েছে ওই সময়।’

প্রতিভাবান ক্রিকেটারদেরকে ধারাবাহিকভাবে সুযোগ দিলে তারা দলকে ভালো জায়গায় নিয়ে যায়। পঞ্চপাণ্ডবের উদাহরণ দিয়ে তিনি বলেন, তারা নিজেদের মতো করে খেলার সুযোগ পেয়েছেন বলেই আজ বাংলাদেশকে বিশ্ব দরবারে উপস্থাপন করতে পারছেন। সকল প্রতিভাবান ক্রিকেটারদেরকেই এভাবে সুযোগ দেয়া উচিত।

নাফীস বলেন, ‘দেখুন, মাশরাফি ভাই অনেক বছর চোটে পড়েছেন। এক-দেড় বছর পর আবার ফিরেছেন। আমরা উনার ওপর বিশ্বাস রেখেছি বলেই উনি আজ বাংলাদেশকে এতদূর নিয়ে আসতে পেরেছেন। সাকিব, তামিম, মুশফিক, মাহমুদউল্লাহরাও কিন্তু আস্তে আস্তে শুরু করে আজ এই পর্যায়ে এসেছে। তারা বাংলাদেশকে আজকে এমন একটা জায়গা নিয়ে গিয়েছে যে বাংলাদেশ আজ একটা বৈশ্বিক শক্তি হিসাবে ক্রিকেটে মাথা তুলে দাঁড়িয়েছে।’

‘একটা খেলোয়াড় কিন্তু তার প্রতিভা আছে দেখেই জাতীয় দলে সুযোগ পান। তাকে যদি এভাবে সমর্থন দেয়া হয়, তাহলে দিনশেষে বাংলাদেশেই নাম্বার ওয়ান হবে। তাই আমি বলবো, আমার সাথে অন্যায় করা হয়েছিল।’

শাহরিয়ার নাফীসের সাক্ষাৎকারটি দেখুন এখানে

বল বাই বল লাইভ স্কোর পেতে আর নয় বিদেশি অ্যাপ। বাংলাদেশ ক্রিকেটের সাম্প্রতিক খবর এবং বল বাই বল লাইভ স্কোর আপনার মুঠোফোনে পেতে এখনি প্লে-স্টোর থেকে BDCricTime সার্চ করে ডাউনলোড করুন বাংলাদেশের নাম্বার ওয়ান ক্রিকেট অ্যাপটি। অথবা ডাউনলোড করতে ক্লিক করুন এখানে। ভালো লাগলে অবশ্যই রেটিং দিয়ে উৎসাহী করুন।

নিউজটি বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন

Related Articles

ডি ভিলিয়ার্সের পর স্মিথের বিরুদ্ধে বর্ণবিদ্বেষের অভিযোগ

অস্ট্রেলিয়ার ইংল্যান্ড সফর চূড়ান্ত; স্কোয়াড ঘোষণা

আগেই ট্রফিতে লেখা হয় ‘ভারত’; কিন্তু জয়ী হয় পাকিস্তান

‘সামাজিক মাধ্যম এড়িয়ে চলো’, ক্রিকেটারদের ল্যাঙ্গারের পরামর্শ

ডি ভিলিয়ার্সের বিরুদ্ধে গুরুতর অভিযোগ