Scores

আমি আন্তরিকভাবে দুঃখিত, ক্ষমাপ্রার্থী : সাকিব

চার দিন আগে কলকাতায় অতিথি হিসেবে উপস্থিত সাকিব আল হাসান কালীপূজার উদ্বোধন করেছেন- এমন গুঞ্জন ছড়িয়ে পড়লে দেশব্যাপী মিশ্র প্রতিক্রিয়া সৃষ্টি হয়। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে অসন্তোষ প্রকাশের পাশাপাশি উগ্র আচরণও করেছেন অনেক সমর্থক। অবশেষে বেশ জলঘোলার পর এই ইস্যুতে মুখ খুলেছেন সাকিব নিজেই।

কলকাতা আমার ঘরের মত সাকিব
সাকিব আল হাসান। ফাইল ছবি

নিজের অফিসিয়াল ইউটিউব চ্যানেল থেকে দেওয়া এক ভিডিও বার্তায় সাকিব বিষয়টি খোলাসা করেছেন। পরিস্কার করে তিনি জানিয়েছেন, মন্দির উদ্বোধনে তিনি জাননি। অনুষ্ঠানে তার তোলা ছবিগুলোই বিভ্রান্তি ছড়িয়েছে। তবে মনঃক্ষুণ্ণ হওয়া সমর্থকদের কাছে তিনি ক্ষমা প্রার্থনা করেছেন।

সাকিব বলেন, ‘প্রথমেই বলতে চাই, আমি নিজেকে একজন গর্বিত মুসলমান হিসেবে মনে করি। আমি সেটাই চেষ্টা করি পালন করার। ভুলত্রুটি হবেই, ভুলত্রুটি নিয়েই আমরা জীবনে চলাচল করি। আমার কোনো ভুল হয়ে থাকলে অবশ্যই আমি আপনাদের কাছে ক্ষমাপ্রার্থনা করছি। নিউজ কিংবা সোশ্যাল মিডিয়া সবখানে এসেছে আমি নাকি পূজার উদ্বোধন করতে গিয়েছি। আমি কখনোই পূজার উদ্বোধন করিনি বা উদ্বোধন করতে যাইনি।’

Also Read - সজীবের মৃত্যুতে ব্যথিত মুশফিকের বিশেষ বার্তা


সাকিবের উপস্থিতিতে ঐ অনুষ্ঠানের উদ্বোধন করেন স্থানীয় প্রশাসনের একজন কর্মকর্তা। তার নাম ফিরহাদ হাকিম, যিনি পশ্চিমবঙ্গ সরকারের পুরসভা মন্ত্রী। সাকিব বলেন, ‘এটার প্রমাণ আপনারা অবশ্যই পাবেন। অনেক সাংবাদিক ভাইবোনেরা আমন্ত্রণ পেয়ে ওখানে ছিলেন। বা আপনারা অনুষ্ঠানের ইনভাইটেশন কার্ডও যদি দেখেন, ওখানেই লেখা আছে কে অনুষ্ঠানের উদ্বোধন করেছেন। যেখানে আমাদের অনুষ্ঠান হয়েছে সেটি পূজা মণ্ডপ ছিল না। মণ্ডপের পাশে আরেকটি মঞ্চ ছিল, সেখানে অনুষ্ঠান করা হয়েছিল। পুরো অনুষ্ঠানই সেখানে হয়। প্রায় ৪০-৪৫ মিনিট ব্যাপী অনুষ্ঠানে আমি ছিলাম এবং সেখানে ধর্ম-বর্ণ নিয়ে কোনো ধরনের কথা হয়নি।’

মণ্ডপের সামনে তোলা ছবি কিংবা মোমবাতি প্রজ্বলন নিয়েও মুখ খুলেছেন সাকিব। সাকিবকে আমন্ত্রণ জানিয়েছিলেন মূলত বিধায়ক পরেশ পাল, তার সাথে সাংবাদিকদের অনুরোধেই সাকিব মণ্ডপের সামনে ছবি তোলেন ও মোমবাতি প্রজ্বলন করেন। তিনি বলেন, ‘অনুষ্ঠান শেষে যখন গাড়িতে উঠতে হবে… যেহেতু পাশেই পূজার আয়োজন ছিল, অনেক রাস্তা বন্ধ ছিল। স্বাভাবিকভাবে মণ্ডপ পেরিয়ে আমাকে গাড়িতে যেতে হত। যাওয়ার সময় পরেশ দা, যিনি আমাকে আমন্ত্রণ জানিয়েছিলেন, তার আমন্ত্রণে আমি প্রদীপ প্রজ্বলন করি।

‘যেহেতু কলকাতায় আমি অনেক দিন খেলেছি, কলকাতার মানুষ আমাকে অনেক পছন্দ করে। সাংবাদিকরাও অনেক উৎসুক ছিল। সবার অনুরোধে প্রদীপ প্রজ্বলনের সময় সেখানে পরেশ দা’র সাথে দাঁড়িয়ে একটি ছবি তোলা হয়। ছবি তুলে যাওয়ার সময় সাংবাদিকদের সাথে আমার নিরাপত্তাকর্মীদের একটু বাকবিতণ্ডা, হাতাহাতিও হয়। সেই ঘটনায় আমরা অদিক দিয়ে আর যেতে পারিনি। পরে ফিরে অন্য রাস্তা দিয়ে যাই। পুরো ঘটনাটা এরকম ছিল।’- বলেন সাকিব।

‘দুই মিনিট আমি যে পূজামণ্ডপে ছিলাম সে নিয়ে সবাই কথা বলছেন। তারা ধারণা করছেন আমি পূজার উদ্বোধন করেছি। যেটা আমি কখনোই করিনি এবং একজন সচেতন মুসলমান হিসেবে করবও না। তারপরও হয়ত ওখানে যাওয়াটাই আমার ঠিক হয়নি। সেটা যদি আপনারা মনে করে থাকেন, অবশ্যই আমি আন্তরিকভাবে দুঃখিত, ক্ষমাপ্রার্থী এবং আমি মনে করি এটা আপনারা ক্ষমাসুন্দর দৃষ্টিতে দেখবেন। এবং ভবিষ্যতে আমি এরকম কোনো ঘটনার যেন পুনরাবৃত্তি না হয় সেই চেষ্টাও করবো।’

মন্দিরে অবস্থানরত অবস্থায় তোলা সাকিবের ছবি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে পড়লে অসন্তোষ প্রকাশ করেন অনেক ভক্ত-সমর্থক। তাদের প্রতি আবারো দুঃখ প্রকাশ করে সাকিব বলেন, ‘হয়ত (ছবির) ব্যাকগ্রাউন্ড নিয়েই আপনারা বেশ উত্তেজনা বোধ করছেন। আসলে একটি ছবি দেখে পুরো ঘটনা কখনোই অনুমান করতে পারবেন না। তাও আবারো বলছি, কখনোই আমার উদ্দেশ্য ছিল না আমার ধর্মকে ছোট করে অন্য ধর্মকে বড় করবো।’ 

বল বাই বল লাইভ স্কোর পেতে আর নয় বিদেশি অ্যাপ। বাংলাদেশ ক্রিকেটের সাম্প্রতিক খবর এবং বল বাই বল লাইভ স্কোর আপনার মুঠোফোনে পেতে এখনি প্লে-স্টোর থেকে BDCricTime সার্চ করে ডাউনলোড করুন বাংলাদেশের নাম্বার ওয়ান ক্রিকেট অ্যাপটি। অথবা ডাউনলোড করতে ক্লিক করুন এখানে। ভালো লাগলে অবশ্যই রেটিং দিয়ে উৎসাহী করুন।

 

 

Related Articles

টিম কম্বিনেশনের কারণেই ওপেনিংয়ে মিরাজ

তামিমের অধিনায়কত্বে ‘সমস্যা’ দেখছে না বরিশাল

পরের ম্যাচেই ‘পুরনো সাকিব’কে পাওয়ার আশা খুলনার

টি-টোয়েন্টিতে এমন দিন আসবেই : মুশফিক

সাকিবের উইকেট পেলেও তৃপ্ত নন মুগ্ধ