Scores

আম্পায়ারের সিদ্ধান্তে ভুল ছিল, দাবি সাইমন টফেলের

আম্পায়ররা ভুল সিদ্ধান্তের কারণে ইংল্যান্ড ১ রান বেশি দিয়েছেন বলে দাবি করেছেন সাবেক খ্যাতিমান আম্পায়ার সাইমন টফেল। তিনি মনে করেন, আম্পায়াররা সঠিক সিদ্ধান্ত নিলে নিউজিল্যান্ড নির্ধারিত ওভারেই ম্যাচ জিততে পারত এবং এতে সুপার ওভারে ম্যাচ গড়ানরও কোনো কারণ ছিল না।

ইংল্যান্ডকে ১ রান বেশি দিয়েছেন আম্পায়ার! -

ম্যাচের শেষ ওভার জন্ম দেয় দারুণ নাটকীয়তার। ঐ ওভারের (যে ওভারে প্রয়োজন ছিল ১৫ রান) চতুর্থ বলে স্টোকস পড়িমরি করে নেন ২ রান। রানআউট করতে গিয়ে ওভারথ্রো হয়ে যায় মার্টিন গাপটিলের ছুঁড়ে মারা বল, ফলাফল অতিরিক্ত ৪ রান। ওভারথ্রো হয় মূলত নন স্ট্রাইকিং প্রান্তে ছুটতে থাকা বেন স্টোকসের ব্যাটে লেগে।

Also Read - "খেলোয়াড়েরা অনেক ভেঙে পড়েছে"


ওভারথ্রো থেকে পাওয়া ৪ রানের সাথে স্কোর বোর্ডে যুক্ত হয় স্টোকসের দৌড়ে নেওয়া ২ রানও। তবে টফেলের দাবি, নন স্ট্রাইকিং প্রান্তে নিরাপদে পৌঁছোবার আগেই স্টোকসদের ব্যাট ছোঁয়ায় এখানে একটি রান যোগ হওয়ার কথা ছিল। সাথে ওভারথ্রোতে সীমানা ছাড়া বল হিসেব করলে মোট রান দাঁড়ায় ৫। সেক্ষেত্রে ইংল্যান্ডের দলীয় সংগ্রহ দাঁড়াত ২৪০- নিউজিল্যান্ডের চেয়ে ১ রান কম!

সাইমন টফেল ক্রিকেটের আইন প্রণেতা এমসিসির উপ কমিটির সদস্য। এমসিসির প্রণীত ক্রিকেট নিয়মগুলো তাই ভালো করেই জানা তার। নিয়ম প্রয়োগে আম্পায়ররা ভুল করায় ইংল্যান্ড একটি রান বেশি পেয়েছে দাবি করে টফেল বলেন, ‘ইংল্যান্ডের স্কোরে ৫ রান যোগ হওয়ার কথা ছিল, ৬ রান নয়। এটা পরিস্কার ভুল ছিল। আম্পায়ারদের সিদ্ধান্তে ত্রুটি ছিল।’

প্রথমবারের মত বিডিক্রিকটাইম নিয়ে এলো অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ্লিকেশন। বাংলাদেশ এবং সকল আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের বল বাই বল লাইভ স্কোর, এবং সাম্প্রতিক নিউজ সহ সবকিছু এক মুহূর্তেই পাবেন বাংলাদেশ ক্রিকেটের সবচেয়ে বড় অনলাইন পোর্টাল BDCricTime এর অ্যাপে। অ্যাপটি ডাউনলোড করতে গুগল প্লে-স্টোর থেকে সার্চ করুন BDCricTime অথবা ডাউনলোড করতে এখানে ক্লিক করুন। ভালো লাগলে অবশ্যই রেটিং দিয়ে উৎসাহী করুন।

 

নিউজটি বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন

Related Articles

বিশ্বকাপ ফাইনালে ধৈর্যশীলতা দেখানোর পুরস্কার জিতল কিউইরা

‘আমি সর্বদা বলি, সমর্থকরা আমাদের দ্বাদশ খেলোয়াড়’

আইসিসিকে নিশামের খোঁচা

সুপার ওভারের নিয়মে পরিবর্তন আনল আইসিসি

বিশ্বকাপ-ফাইনালের বিতর্কিত নিয়ম ‘চলবে না’ বিগ ব্যাশে!