আম্পায়ারের প্রতি রাগ দেখিয়ে জরিমানা গুনলেন রিয়াদ

ঢাকা প্রিমিয়ার লিগে (ডিপিএল) আম্পায়ারের সিদ্ধান্তের প্রতি অসন্তোষ প্রকাশ করে জরিমানা গুনেছেন বাংলাদেশ টি-টোয়েন্টি দল ও গাজী গ্রুপ ক্রিকেটার্সের অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ। 

আম্পায়ারের প্রতি রাগ দেখিয়ে জরিমানা গুনলেন রিয়াদ

Advertisment

গত বুধবার (২৩ জুন) ডিপিএলের হাই ভোল্টেজ ম্যাচে গাজী গ্রুপ ক্রিকেটার্স মুখোমুখি হয়েছিল প্রাইম ব্যাংক ক্রিকেট ক্লাবের। মাত্র ১২৫ রানের পুঁজি নিয়েও গাজী গ্রুপের লড়াকু বোলিং দলকে পৌঁছে দিয়েছিল জয়ের কাছাকাছি। রুদ্ধশ্বাস ম্যাচটি শেষদিকে জিতে নেয় প্রাইম ব্যাংক।

বল ও ব্যাট হাতে দারুণ অবদান রেখেছিলেন অলক কাপালি। সেই অলককে ক্রিজে আসার পরপরই সাজঘরে ফেরানোর সুযোগ সৃষ্টি করেছিল গাজী গ্রুপ। প্রাইম ব্যাংকের ইনিংসের ১৬তম ওভারের শেষ বলটি করছিলেন জাতীয় দলের স্পিনার নাসুম আহমেদ। অলক তখন স্ট্রাইকে।

নাসুমের বল অলকের ব্যাট স্পর্শ করে উইকেটের পেছনে থাকা আকবর আলীর গ্লাভসে তালুবন্দী হয়েছে দাবি করে গাজী গ্রুপের ক্রিকেটাররা আম্পায়ারের কাছে জোরালো আবেদন করেন। ফিল্ডিং দল এতই আত্মবিশ্বাসী ছিল যে, আবেদনের ব্যাপ্তিও ছিল অনেকক্ষণ জুড়ে।

তবে আম্পায়ার তাদের আবেদনে সাড়া দেননি। এতে ক্ষেপে যান রিয়াদ। মিড অন থেকে পিচের কাছে ছুটে গিয়ে জোরালো আবেদনেও সাড়া না পাওয়ায় মাটিতে বসে পড়েন। এরপর আম্পায়ারের সিদ্ধান্তে অসন্তোষ প্রকাশ করে শিশুসুলভ আচরণ করতে থাকেন- ঘাসে দুই হাত আছড়ে মারার পর মাটিতে গড়াগড়ি খাচ্ছিলেন।

রিয়াদের এই আচরণ ভালো ঠেকেনি আম্পায়ারদের কাছে। আম্পায়ারদের সিদ্ধান্তে অসন্তোষ প্রকাশের অভিযোগে ম্যাচ শেষে ম্যাচ রেফারির কাছে রিপোর্ট করা হয়। সেই রিপোর্টের ভিত্তিতে আচরণবিধির ২.৮ নম্বর ধারা ভঙ্গ করায় রিয়াদকে ২০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে। রিয়াদ অভিযোগ মেনে নেওয়ায় কোনো আনুষ্ঠানিক শুনানির প্রয়োজন পড়েনি।

প্রসঙ্গত, চলমান ডিপিএলে বেশ কয়েকবার বিতর্কিত হয়েছে আম্পায়ারদের সিদ্ধান্ত। এর আগে আবাহনী-মোহামেডান ম্যাচে আম্পায়ারের সিদ্ধান্তে অসন্তোষ প্রকাশ করে স্ট্যাম্প ভেঙে ফেলেন মোহামেডানের অধিনায়ক সাকিব আল হাসান।