আশরাফুল-তাসামুলের শতকে কলাবাগানের দ্বিতীয় জয়

0
1878

চলমান ঢাকা প্রিমিয়ার লিগের ৪২তম ম্যাচে এসে আবারও শতকের দেখা পেয়েছেন কলাবাগান ক্রীড়া চক্রের ব্যাটসম্যান মোহাম্মদ আশরাফুল। ডানহাতি এ ব্যাটসম্যানের লিস্ট ‘এ’ ক্যারিয়ারের সপ্তম শতকের সাথে তাসামুল হকের চতুর্থ শতকে চড়ে অগ্রণী ব্যাংককে ৮ বল বাকি থাকতেই ৫ উইকেটের ব্যবধানে হারিয়েছে কলাবাগান। চলমান আসরে এটি কলাবাগানের দ্বিতীয় জয়।

ম্যাচ সেরার পুরস্কার হাতে আশরাফুল।

Advertisment

অগ্রণী ব্যাংকের দেওয়া ২৫৩ রানের লক্ষ্যমাত্রায় ব্যাট করতে এসে দলীয় ২১ রানে জসীমউদ্দিনের উইকেট হারায় কলাবাগান। আল-আমিন দলকে শুরুতে ব্রেকথ্রো এনে দেওয়ার পর আশরাফুল ও তাসামুলে ম্যাচের নিয়ন্ত্রণ নিজেদের করে নেয় কলাবাগান।

দ্বিতীয় উইকেট জুটিতে ২১৮ বল মোকাবেলা করে ১৮৮ রানের জুটি গড়ে ম্যাচ জয়ের ভিত গড়ে দেন দুই ব্যাটসম্যান। লিস্ট ‘এ’ ক্যারিয়ারের চতুর্থ শতক পূর্ণের পর শফিউল ইসলামের বলে আল-আমিন হোসেনের হাতে তালুবন্দী হলে থামে তাসামুল হকের ১০৬ রানের ইনিংসটি। ১১৫ বল মোকাবেলায় ১২ চারে ইনিংস সাজান তিনি।

তাসামুল-আশরাফুল জুটি বিচ্ছিন্ন হওয়ার পর খেলায় ছন্দপতন ঘটে কলাবাগানের। শফিউলের সাথে আল-আমিন হোসেনদের বোলিং তোপে মিডল অর্ডারের ব্যাটসম্যানরা ব্যর্থ হন ক্রিজে থিতু হতে। আবুল হাসান ৩, রহমান ৪ ও মুক্তার আলি ৫ রান করে আউট হলে ২৪১ রানে ৫ উইকেটের পতন ঘটে কলাবাগানের। তবে বিচলিত না হয়ে দলের উইকেট হারানোর মুহূর্তে এক প্রান্ত আগলে ধরে রেখে দলকে জয়ের বন্দরের সন্নিকটে নিয়ে যেতে থাকেন আশরাফুল।

শেষ পর্যন্ত তার দৃঢ়তার সাথে তাইবুর রহমানের ৫ বলের ঝড়ো ১৫ রানে চড়ে জয়ের বন্দরে নোঙ্গর ফেলে কলাবাগান। আশরাফুল অপরাজিত থাকেন ১০২ রানে। প্রতিপক্ষ শিবিরের বোলারদের মধ্যে আল-আমিন ও শফিউল উভয়েই দুটি করে উইকেট নেন। আর রাজা আলি পান একটি উইকেট।

এর আগে কলাবাগানের আমন্ত্রণে ব্যাট করতে নেমে দারুণ শুরুর পরও বড় সংগ্রহ পেতে ব্যর্থ হয় অগ্রণী ব্যাংক। দুই ওপেনার শাহরিয়ার নাফীসের ৯৯ ও আজমির আহমেদের ৫৮ রানে ভর করে নির্ধারিত ৫০ ওভারে ৯ উইকেটে ২৫২ রানের পুঁজি পায় দলটি।

কলাবাগানের বোলারদের মধ্যে আকবর-উর-রহমান তিনটি, মাহমুদুল হাসান ও মুক্তার আলি দুটি করে উইকেট লাভ করেন। এ জয়ের ফলে ৪ পয়েন্ট নিয়ে পয়েন্ট তালিকার ১১তম স্থানে উঠে আসলো দলটি।

সংক্ষিপ্ত স্কোরকার্ড-

অগ্রণী ব্যাংক ২৫২/৯ (৫০ ওভার)
নাফীস ৯৯, আজমির ৫৮; আকবর ৩৪/৩, মুক্তার ৪৩/২, মাহমুদুল ৫৬/২

কলাবাগান ২৫৬/৫ (৪৮.৪ ওভার)
তাসামুল ১০৬, আশরাফুল ১০২*, তাইবুর ১৫*; আল-আমিন ২৭/২, শফিউল ৪৭/২

ফলাফলঃ কলাবাগান ৫ উইকেটে জয়ী।

আরও পড়ুনঃ দলকে সামর্থ্যের ১২০ ভাগ দিবেন তাসকিন