Score

ভিডিও: ইংরেজ ভক্তদের গানে তামিমের সেঞ্চুরি উদযাপন!

আচ্ছা বাংলাদেশের এক নম্বর ব্যাটসম্যান কে? কোন শক্ত সামর্থ্য দলের বিপক্ষে ভক্ত-সমর্থক আর জাতি কার ব্যাটের দিকে তাকিয়ে থাকে? কোন ব্যাটসম্যানের ভাল খেলা, জ্বলে ওঠা, রান পাওয়া এবং লম্বা ইনিংস খেলার ওপর বাংলাদেশের ব্যাটিং সাফল্য-ব্যর্থতার প্রায় ৫০ ভাগ নির্ভর করে?

বোদ্ধা-পন্ডিত কিংবা বিশেষজ্ঞ হবার প্রয়োজন নেই। পাড়ার, গলির অবুঝ কিশোরও অবলীলায় বলে দেবে, নামটা তামিম ইকবাল। সে-ইতো বাংলাদেশের ব্যাটিংয়ের সবচেয়ে মূল সম্পদ। বড় নির্ভরতা।

Also Read - শান্ত থাকলেও যে কারণে নেই সৌম্য

ক্যারিয়ারের শুরু থেকেই অসাধারণ পারফরম্যান্সে যিনি যায়গা করে নিয়েছেন লাখো বাঙালীর মনে। প্রবীণ কিংবা শিশু, তরুণ কিংবা তরুণী, তিনি যেদিন মাঠে থাকেন সেদিন যেন আগে থেকে ম্যাচের ফল হিসেবে জয় অর্জনের লড়াই একধাপ সহজ যায় বলেই ধরে নেয় সবাই। গ্যালারিতে তার ছবি আর নাম সম্বলিত ব্যানারের ঢেউ খেলে যায়। তামিম, তামিম ধ্বনিতে মুখোরিত হয়ে পুরো মাঠ। আর কেউ না পারলেও বছরের পর বছর যিনি ধরে রেখেছেন ওপেনিং পজিশনে অবস্থান ধরে রেখেছেন তিনিই তামিম ইকবাল।

পড়া ছেড়ে প্রিয় এ তারকার খেলা দেখতে টিভির সামনে বসায় বোনের মারও খেতে হয়েছে তার এক ক্ষুদে ভক্তকে। তবুও মন থেকে সামান্য একটুও কমেনি তামিমের প্রতি ভালোবাসা।

মানুষের ভালোবাসবেই না কেন? শরীরের দিকে না তাকিয়ে প্রতিনিয়ত দেশের হয়ে খেলে গেছেন তামিম। এইত কিছুদিন আগের কথা।

ভক্তের সাথে তামিম। ছবিঃ ফেইসবুক।

স্বাগতিক ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে সিরিজের দ্বিতীয় ওয়ানডেতে হালকা চোট পেয়েছিলেন এ টাইগার ওপেনার। তাই পরবর্তী ম্যাচে তার অংশগ্রহণ নিয়ে কিছুটা হলেও চিন্তিত ছিল টিম ম্যানেজম্যান্ট। তবে তামিম আশ্বস্ত করেছিলেন, ৫০ ভাগ ফিট থাকলেও তিনি ফাইনালে খেলবেন। ঠিকই সিরিজ নির্ধারণীয় ম্যাচে হাতে চোট নিয়েই নেমে পড়লেন তিনি। টিকে ছিলেন দীর্ঘক্ষণ। সেইসাথে হাঁকিয়েছিলেন ক্যারিয়ারের ২১তম সেঞ্চুরিও এবং জিতিয়ে দিয়েছিলেন দলকে।

এরপর গত ৯ অক্টোবর দেশপ্রেমের আরেক নিদর্শন স্থাপন করেন তিনি। এশিয়া কাপের প্রথম ম্যাচের দ্বিতীয় ওভারে সুরঙ্গ লাকমলের বল হাতে জোরে আঘাত করায় মাঠ ছাড়েন তামিম। ছুটে যান হাসপাতালে। হাতের কব্জি ভেঙে যায় তার। ডাক্তার সাফ জানিয়ে দেয় এশিয়া কাপে আর নামতে পারবেন না তিনি। শুধু তাই নয় আগামী ছয়মাসেও ব্যাট ধরতে পারবেন কিনা তা নিয়ে সন্দেহ আছে। দুঘন্টা পর মাঠে ফিরে সাজঘরে বসে বিষন্ন মনে দলের খেলা দেখা ছাড়া কোন কিছুই করার ছিল না তার।

কিন্তু হঠাৎ যখন দেখলেন একে একে পড়ে গেছে সব উইকেট তখন হাতের চিন্তা ছেড়ে ব্যাট হাতে আবারও মাঠে নেমে পড়েন তিনি। তার হাতে যদি আরেকবার বল লাগে তবে পুরোপুরি অকেজোই হয়ে যেতে পারে তার হাত। এমন ভয়ানক ফলাফলের কথা জেনেও এক হাতেই দাড়িয়ে পড়েন স্ট্যাম্পের সামনে। কোনমতে ভাঙা হাত বাঁচিয়ে এক হাত দিয়েই মোকাবেলা করেন প্রতিপক্ষের ছোড়া বল।

কতটা দেশপ্রেম থাকলেই হাত অকেজো হয়ে যাওয়ার ভয়কে ভুলে ঝাঁপিয়ে পড়া যায় তা নিশ্চয়ই বলে দেওয়ার প্রয়োজন নেই।

এমন দেশপ্রেম দেখালে ভালোবাসার গন্ডি যে দেশের সীমানায় আবদ্ধ থাকার নয় তা নিতান্তই স্বাভাবিক বিষয়। তাকে ভালো না বেসে পারেননি বিদেশী নাগরিকরাও। তাইতো তার জন্য দর্শকসারীতে বসে গলা ফাটিয়েছেন তারাও।

এমনটাই দেখা গেছে ইউটিউবে প্রকাশিত একটি ভিডিওতে।  “এমএনএ ভুঁইয়া” নামক একটি ইউটিউব চ্যানেলে “ইংলিশ ফ্যানস সিঙ্গিং ফর তামিম ইকবাল” শিরোনামে ২০১৭ সালের ২ জুন একটি ভিডিও প্রকাশ করা হয়। যেখানে কিছু ইংরেজ সমর্থককে তামিমের নাম নিয়ে গান গাইতে দেখা যায়। সঠিকভাবে এটি কোন ম্যাচের ভিডিও তা জানা না গেলেও ভিডিও’র সাথে প্রকাশিত কিছু লেখা থেকে ধারণা করা হচ্ছে আইসিসি চ্যাম্পিয়নস ট্রফি ২০১৭ তে ওভালে তামিমের সেঞ্চুরি উদযাপনে তামিমকে নিয়ে এ গান গায় তারা।

দেখে নিন সেই ভিডিওটি : English fans singing for Tamim Iqbal

Related Articles

সরফরাজের কাছে প্রকাশ্যে ক্ষমা চাইতে হবে পাকিস্তানি টিভি চ্যানেলকে

ভনের সেরা একাদশে সাকিব

ভারতের মাটিতে পাকিস্তানের বিজয় উদযাপন, গ্রেপ্তার ১৫

ওয়ানডে ক্রিকেটে নতুন রেকর্ড বাংলাদেশের

রাতারাতি কোটিপতি পাকিস্তানের ক্রিকেটাররা