Scores

‘ইংল্যান্ডে আইপিএল আয়োজন করলে সেটা অবৈধ হবে’

করোনাভাইরাসের আক্রমণে মাঝপথেই বন্ধ হয়ে গেল ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগ (আইপিএল)। এখন পর্যন্ত ইংলিশ কাউন্টির কিছু ক্লাব ও শ্রীলঙ্কা আগ্রহ দেখিয়েছে বাকি ম্যাচগুলো আয়োজন করার জন্য। তবে কাউন্টির দল হ্যাম্পশায়ারের প্রধান কর্তা বলেছেন এভাবে ইংল্যান্ডে আইপিএলের বাকি অংশ আয়োজন করলে সেটা অবৈধ হবে।

'ইংল্যান্ডে আইপিএল আয়োজন করলে সেটা অবৈধ হবে'

ভারতের ৬টি ভেন্যুতে এবার আইপিএল আয়োজন করা হয়েছিল। করোনাভাইরাসের প্রকোপের কারণে খেলা চলছিল দর্শক শূন্য গ্যালারিতে এবং কোনো হোম ভেন্যুর ব্যবস্থাও ছিল না। পরিকল্পনা মতোই সব চলছিল। হঠাৎ করে দুই দিনের ব্যবধানে একাধিক ক্রিকেটার ও কর্মীরা করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হলে তাৎক্ষণিকভাবে আইপিএল বন্ধ করে দেওয়া হয়। ৬০টি ম্যাচের মধ্যে মাঠে গড়িয়েছিল ২৯টি ম্যাচ। বাকি ম্যাচগুলো আয়োজন করতে বিদেশ থেকে প্রস্তাব পাচ্ছে ভারত। যারমধ্যে রয়েছে, ইংলিশ কাউন্টি ক্লাব ও শ্রীলঙ্কা।

Also Read - বাদ পড়লেন হার্দিক, ফিরলেন জাদেজা


ইংলিশ কাউন্টির চারটি ক্লাব- সারে, মেরিলিবোর্ন ক্রিকেট ক্লাব, ওয়ারউইকশায়ার ও ল্যাঞ্চশায়ার আগ্রহ প্রকাশ করেছে আইপিএলের বাকি ম্যাচগুলো আয়োজনের জন্য। তবে হ্যাম্পাশায়ারের প্রধান কর্তা বলেছেন, কাউন্টির বর্তমান নিয়মানুসারে সেখানে আইপিএল আয়োজন করলে সেটা অবৈধ হবে।

তিনি বলেন, ‘আমি এই বিষয়ে শুনেছি কিন্তু আমি জানি না এটা কীভাবে সম্ভব। বর্তমান নিয়মানুসারে এখানে (ইংল্যান্ডে) আইপিএল আয়োজন করলে সেটা অবৈধ হবে।’

চতুর্দশ আসরের আইপিএলের এখনো ৩১টি ম্যাচ বাকি। যদি এই বছরের মধ্যেই আইপিএলের বাকি ম্যাচগুলো আয়োজন করা না হয় তাহলে বিসিসিআইকে প্রায় ২৫০০ কোটি রুপি লোকসান গুনতে হবে। ভারত অবশ্য চলতি বছরের সেপ্টেম্বর মাসে বাকি অংশ আয়োজন করতে আশাবাদ করছে। আইপিএলের পরপরই টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপও ভারতে আয়োজন করতে আশাবাদী বিসিসিআই।

Related Articles

বল স্যানিটাইজ করে বহিষ্কার হলেন অস্ট্রেলিয়ান পেসার

মাঠে বসে খেলা দেখার সুযোগ পাচ্ছেন ‘১০০০ দর্শক’

কলপ্যাক চুক্তিতে যাচ্ছেন হাশিম আমলা

ক্রিকেটের প্রতি এই সমর্থন উপমহাদেশেও বিরল

ইতি ঘটছে কলিংউডের খেলোয়াড়ি জীবনের