Scores

ইতিহাস গড়লেন কুক

লর্ডস টেস্টে নেমে স্পর্শ করেছিলেন অ্যালান বর্ডারকে। ছাড়িয়ে যাওয়া ছিল সময়ে ব্যাপার মাত্র। হেডিংলি টেস্টে মাঠে নেমে টানা টেস্ট খেলার বিশ্ব রেকর্ড ভেঙে অ্যালেস্টার কুক নিজেকে নিয়ে গেলেন অনন্য উচ্চতায়। ভেঙে দিয়েছেন দুই যুগ ধরে টিকে থাকা রেকর্ড। নাম লেখালেন ইতিহাসের পাতায়।

এ রেকর্ড যেন প্রমাণ করে অ্যালেস্টার কুকের ধারাবাহিকতার। ২০০৬ সালে ভারত সফরে মার্কুস ট্রেসকথিকের মানসিক অবসাদ সুযোগ করে দেয় কুককে। নিজের অভিষেক টেস্টেই বাজিমাত। প্রথম ইনিংসে ৬০ রানের পর দ্বিতীয় ইনিংসে ১০৪। তবে দ্বিতীয় টেস্টে ছিলেন নিস্প্রভ। দুই ইনিংস মিলিয়ে করেছিলেন ১৯। ছিলেন না মুম্বাইয়ে তৃতীয় টেস্টে। ক্যারিয়ারে এখন পর্যন্ত ঐ একটি টেস্টেই কুক ছিলেন না দলে। ২০০৬ সালের পর থেকে দীর্ঘ এক যুগ কুককে ছাড়া টেস্ট খেলতে নামেনি ইংল্যান্ড।

২০০৬ সালে লর্ডসে শ্রীলঙ্কা টেস্ট দিয়ে দলে ফিরেছিলেন কুক। এরপর আর বাদ পড়েননি কোনোদিন। চোট, ছন্দপতন সবকিছুকে বুড়ো আঙুল দেখিয়ে যেন ছুটছেন কুক। কোনো কিছুই থামাতে পারেনি এখন পর্যন্ত। গত একযুগ ধরে কুক হয়ে আছেন অদম্য। নিয়মিত দিয়ে যাচ্ছেন আস্থার প্রতিদান।

Also Read - ফিক্সিং সংক্রান্ত তথ্য দিতে আল জাজিরাকে আইসিসির অনুরোধ


কুকের মতো অ্যালান বর্ডারও খেলতে পারেননি একটি টেস্ট। ১৯৭৮ সালের অ্যাশেজে অভিষেক হয় বর্ডারের। সেই সিরিজের শেষ টেস্টে ছিলেন না দলে। এরপর আর বাদ পড়েননি। তিন টেস্ট খেলে বাদ পড়ার পর ১৫৬ টেস্টে গিয়ে থেমেছেন টেস্ট ইতিহাসের এক সময়ের সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহক।

কুক আর বর্ডার ছাড়া টানা শত টেস্ট খেলেছেন মার্ক ওয়াহ (১০৭), সুনীল গাভাস্কার (১০৬) এবং ব্রেন্ডন ম্যাককালাম (১০১)।

এখন দেখার বিষয়, কোথায় গিয়ে থামেন কুক, কতটা সমৃদ্ধ করেন নিজের এ অনন্য রেকর্ডকে। একযুগ ধরে যে পথচলা চলছে, তা ধরে রেখে ইতিহাসের পাতায় নিজের নামকে পাকাপোক্ত করার সুযোগ ৩৩ বছর বয়সী কুকের সামনে।


আরো পড়ুন ঃ ওয়ানডে র‍্যাঙ্কিংয়ে যোগ হলো চার দেশ


 

নিউজটি বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন

Related Articles

কুককে ‘বল টেম্পারিং’ করার প্রস্তাব দিয়েছিলেন ওয়ার্নার!

‘ইংল্যান্ডের হয়ে শেষ ম্যাচটি খেলে ফেলেছি’

আবারো আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ফিরবেন কুক!

‘নাইটহুডে’ ভূষিত হলেন অ্যালেস্টার কুক

অ্যালেস্টার কুক থেকে স্যার অ্যালেস্টার কুক