ইতি ঘটছে কলিংউডের খেলোয়াড়ি জীবনের

টেস্ট এবং ওয়ানডে ক্রিকেটকে বিদায় জানিয়েছিলেন বহু আগে, ২০১১ সালে। টি-২০ ক্রিকেট খেলে যাচ্ছিলেন, তবে ঠিক এক বছর আগে বিদায় জানান ক্রিকেটের সংক্ষিপ্ততম ফরম্যাটকেও। আন্তর্জাতিক ক্রিকেটকে বিদায় জানালেও ইংলিশ ক্রিকেটার পল কলিংউড খেলে যাচ্ছিলেন ঘরোয়া প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে। এবার সেখানেও শোনালেন বিদায়ের ঘণ্টা।

ইতি ঘটছে কলিংউডের খেলোয়াড়ি জীবনের

১৯৯৬ সালে ডারহামের হয়ে ইংল্যান্ডের প্রথম শ্রেণির ক্রিকেট আসর কাউন্টিতে অভিষেক হয় কলিংউডের। ২০১৩ সালে দলটির শিরোপা জয়ের পেছনে বড় অবদান ছিল তার। ২২ বছরের যাত্রা শেষে ডারহাম থেকে বিদায় নিয়েই তিনি তুলে রাখছেন ব্যাট আর প্যাড-জোড়া।

ইংল্যান্ড জাতীয় দলের জার্সি গায়ে ৬৮টি টেস্ট, ১৯৭টি ওয়ানডে ও ৩৬টি টি-২০ ম্যাচ খেলেছেন কলিংউড। খেলেছেন ৩০৪টি প্রথম শ্রেণির ম্যাচ, যেখানে তার রান সংখ্যা ১৬৮৯১। ২৪ সেপ্টেম্বর ডারহামের জার্সি গায়ে তিনি ক্রিকেট মাঠে খেলোয়াড় হিসেবে শেষবারের মত নামবেন, যেটি মৌসুমে ডারহামের শেষ ম্যাচ। ঐ ম্যাচ পরই ‘খেলোয়াড়’ সত্তা হারাবেন কলিংউড।

Also Read - লিটনে আস্থা রাখছেন তামিম

ইংল্যান্ড জাতীয় দলের একমাত্র বিশ্বকাপ শিরোপা এসেছিল কলিংউডের হাত ধরেই। ২০১০ সালে টি-২০ বিশ্বকাপে চ্যাম্পিয়ন হয় কলিংউডের নেতৃত্বাধীন দল।

ক্রিকেটকে বিদায় জানানো প্রসঙ্গে ৪২ বছর বয়সী এই ইংরেজ বলেন, ‘অনেক চিন্তা-ভাবনার পর চলতি মৌসুম শেষেই ক্রিকেটকে বিদায় জানাচ্ছিআমি জানতাম, এমন দিন এক সময় আসবেকিন্তু এটা মোটেই সহজ কোনো সিদ্ধান্ত ছিল নাএটি খুবই কঠিন ছিলতবে এটাই সঠিক সময় অবসর নেয়ারইংল্যান্ড ও ডারহামের হয়ে ক্যারিয়ারে অনেক অর্জন আছে আমারএবার বিদায় জানানোর পালা।’

ডারহামের ডেরায়ও বিষাদের ছায়া এনেছে কলিংউডের বিদায়। প্রিয় খেলোয়াড়ের খেলোয়াড়ি জীবনের ইতিতে শুভকামনা জানিয়েছেন ডারহামের চেয়ারম্যান ইয়ান বোথাম। তিনি বলেন, ইংল্যান্ড ও ডারহামের হয়ে খেলার সময় সেরা অলরাউন্ডার ছিলেন কলিংউডতার জন্য শুভকামনা রইল

আরও পড়ুন: ‘আমাদের সেরা ক্রিকেটই খেলতে হবে’

Related Articles

ব্যানক্রফটের নতুন ‘ঘর’

দুই বছর বিদেশি লিগে খেলবেন না মুস্তাফিজ

১০০ বলের ফরম্যাটের প্রস্তুতি শুরু করেছে ইংল্যান্ড