Score

ইস্ট জোনকে জয়ের স্বপ্ন দেখাচ্ছেন আশরাফুল

বাংলাদেশ জাতীয় দলের সাবেক ক্রিকেটার মোহাম্মদ আশরাফুলের ব্যাটে ভর করে জয়ের স্বপ্ন দেখছে ইস্ট জোন। এর আগে বল হাতেও নৈপুণ্য দেখিয়েছেন আলোচিত এই তারকা ক্রিকেটার। বগুড়ায় বাংলাদেশ ক্রিকেট লিগের ম্যাচে ইস্ট জোনকে জয়ের জন্য ৩২৬ রানের লক্ষ্য ছুঁড়ে দিয়েছে সেন্ট্রাল জোন।

বিসিএলে দল পাননি আশরাফুল
মোহাম্মদ আশরাফুল। ফাইল ছবি

২ উইকেটে ১৩৯ রান নিয়ে দ্বিতীয় দিন শেষ করা সেন্ট্রাল জোন তৃতীয় দিন নিজেদের দ্বিতীয় ইনিংসে গুটিয়ে যায় ৩৯৩ রানে। দলের পক্ষে সর্বোচ্চ ৭০ রান আসে মার্শাল আইয়ুবের ব্যাট থেকে। অন্যান্যদের মধ্যে আবদুল মজিদ ৬৭, তাইবুর রহমান ৫৯, পিনাক ঘোষ ৫৩ এবং শহীদুল ইসলাম অপরাজিত ৫০ রান করেন।

ইস্ট জোনের পক্ষে মোহাম্মদ আশরাফুল চারটি এবং হাসান মাহমুদ তিনটি উইকেট শিকার করেন।

প্রথম ইনিংসের লিডের হিসেবে ম্যাচ জয়ের জন্য ইস্ট জোনের সামনে লক্ষ্য দাঁড়ায় ৩২৬ রান। জয়ের লক্ষ্যে খেলতে নেমে তৃতীয় দিন শেষে ২ উইকেটে ৭১ রান সংগ্রহ করে দিনের খেলা শেষ করেছে ইস্ট জোন। শুরুতেই দুই ওপেনার শামসুর রহমান ব্যক্তিগত ১১ এবং রনি তালুকদার ব্যক্তিগত ১২ রানে ফিরে যান। এরপর দল চাপে পড়ে গেলে চাপ সামাল দেন মাহমুদুল হাসান ও মোহাম্মদ আশরাফুল। দিন শেষে আশরাফুল ৩৯ বলে ২৪ এবং মাহমুদুল ৫২ বলে ২৩ রান করে অপরাজিত রয়েছেন। সেন্ট্রাল জোনের পক্ষে উইকেট দুটি শিকার করেছেন সালাউদ্দিন শাকিল ও শাহাদাত হোসেন।

Also Read - সিলেট সিক্সার্সের নতুন অধিনায়ক ওয়ার্নার

এর আগে নিজেদের প্রথম ইনিংসে ১১৮ রানে গুটিয়ে যায় সেন্ট্রাল জোন। জবাবে নিজেদের প্রথম ইনিংসে ব্যাটিং বিপর্যয়ে পড়ে ইস্ট জোনও; দলটি সংগ্রহ করে মাত্র ১৮৬ রান। লিডের বিপরীতে দ্বিতীয় ইনিংসে ৩৯৩ রানেই থামে সেন্ট্রাল জোনের ইনিংস।

সংক্ষিপ্ত স্কোর (তৃতীয় দিন শেষে)

সেন্ট্রাল জোন প্রথম ইনিংস- ১১৮

ইস্ট জোন প্রথম ইনিংস- ১৮৬

সেন্ট্রাল জোন দ্বিতীয় ইনিংস- ৩৯৩ (মার্শাল ৭০, মজিদ ৬৭; আশরাফুল ৩৪/৩, হাসান ৬০/৩)

ইস্ট জোন দ্বিতীয় ইনিংস- ৭১/২ (আশরাফুল ২৪*, মাহমুদুল ২৩*)

জয়ের জন্য ইস্ট জোনের প্রয়োজন আরও ২৫৫ রান।

আরও পড়ুন: রোমাঞ্চকর জয়ে সেমিফাইনালের স্বপ্ন বাঁচিয়ে রাখলো বাংলাদেশ

Related Articles

সেঞ্চুরি করে অপরাজিত আশরাফুল

মধ্যাঞ্চলকে খেলায় ফেরালেন শহিদুল-মজিদ

শামসুরের শতকে প্রথম দিন পূর্বাঞ্চলের

পরিণত হওয়ার আগে নয় আন্তর্জাতিক ক্রিকেট

“শুভেচ্ছা বাংলাদেশ, আমি শোয়েব মালিক!“