Scores

উইন্ডিজের ইনিংস ঘোষণা, ব্যাটিংয়ে বিসিবি একাদশ

প্রস্তুতি ম্যাচের প্রথম দিন স্কোরবোর্ডে ৮৬.৩ ওভারে ৬ উইকেটের বিনিময়ে ৩০৩ রান যোগ করার পর দ্বিতীয় দিন আর ব্যাট না করার সিদ্ধান্ত নিয়ে ইনিংস ঘোষণা করেছে সফরকারী উইন্ডিজ ক্রিকেট দল। যার ফলে দ্বিতীয় দিনের শুরু থেকেই নিজেদের প্রথম ইনিংসে ব্যাট করছে স্বাগতিক বিসিবি একাদশ।

স্বাগতিক দলের হয়ে ইনিংসের গোড়াপত্তন করেছেন সৌম্য ও সাদমান।
স্বাগতিক দলের হয়ে ইনিংসের গোড়াপত্তন করেছেন সৌম্য ও সাদমান।

সফরকারীদের প্রথম ইনিংসের জবাবে সৌম্য সরকার ও সাদমান ইসলাম স্বাগতিক দলের হয়ে ইনিংসের গোড়াপত্তন করেছেন। শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত দিনের চতুর্থ ওভারের খেলা শেষে স্বাগতিকদের সংগ্রহ বিনা উইকেটে ৮ রান। সাদমান ৭ ও সৌম্য ১ রানে অপরাজিত রয়েছেন।

উল্লেখ্য, এর আগে চট্টগ্রামের এমএ আজিজ স্টেডিয়ামে টস জিতে প্রথমে ব্যাট করে ব্যাটসম্যানদের ধারাবাহিকতায় ৬ উইকেটে প্রথম দিন শেষে ৩০৩ রানের পুঁজি পায় সফরকারীরা। দলের পক্ষে সর্বোচ্চ ৮৮ রান আসে শাই হোপের ব্যাট থেকে। তাছাড়া পাওয়েল করেন ৭২ রান।

আগে ব্যাট করতে নেমে শফিউল ইসলামের বলে ইনিংসের সপ্তম ওভারে দলীয় ১১ রানে অধিনায়ক ক্রেইগ ব্র্যাথওয়েটের উইকেট হারানোর পর দলের হাল ধরেন শাই হোপ ও কিরান পাওয়েল। প্রাথমিক বিপর্যয় সামাল দিয়ে দুজনে মিলে দ্বিতীয় উইকেট জুটিতে দলকে বড় সংগ্রহের পথ গড়ে দেন।

Also Read - হতাশ নন আশরাফুল, চোখ বিপিএলে

হোপ ব্যক্তিগত ৮৮ রানে দলের বাকি ব্যাটসম্যানদের ব্যাট করার সুযোগ করে দিতে স্বেচ্ছায় মাঠ ছাড়লে থামে দুজনার মধ্যকার ১৬৩ রানের জুটির। সঙ্গীর সাজঘরে ফেরার পর ক্রিজে বেশিক্ষণ থিতু হয়ে থাকতে পারেননি পাওয়েল। ফজলে রাব্বির বলে ব্যক্তিগত ৭২ রানে জাকিরের হাতে ক্যাচ দিয়ে সাজঘরে ফিরেন তিনি।

দীর্ঘ সময় যাবত ক্রিজে থেকে স্বাগতিক বোলারদের শাসন করে তাদের প্যাভিলিয়নে ফেরার পর ম্যাচে আধিপত্য বিস্তার শুরু হয় বিসিবি একাদশের বোলারদের। দুর্দান্ত এক ডেলিভারিতে সুনীল অ্যামব্রিসকে ব্যক্তিগত ১৭ রানে সরাসরি বোল্ড করে স্বাগতিক শিবিরে স্বস্তি এনে দিয়ে চা পানের বিরতিতে যেতে সাহায্য করেন নাঈম হাসান।

দাপুটে ব্যাটিংয়ের পর ফিল্ডিংয়ে সফরকারী উইন্ডিজ ক্রিকেট দল।
দাপুটে ব্যাটিংয়ের পর ফিল্ডিংয়ে সফরকারী উইন্ডিজ ক্রিকেট দল।

 

দলীয় ২০০ রানে ৩ উইকেট হারিয়ে কিছুটা চাপে পড়লেও বিরতি থেকে ফিরে রস্টন চেজ ও শিমরন হেটমায়ার আবারও খেলায় ফেরায় ক্যারিবীয়দের। চতুর্থ উইকেট জুটিতে দেখেশুনে খেলে দলের রানের চাকা বাড়িয়ে নিচ্ছিলেন এ দুজন।

তবে আক্রমণে এসে জুটি বিচ্ছিন্ন করে তাদের পথভ্রষ্ট করেন নাঈম হাসান। শিমরন হেটমায়ারকে ব্যক্তিগত ২৪ রানে আউট করে নিজের দ্বিতীয় উইকেট শিকারের পাশাপাশি উইন্ডিজের চতুর্থ উইকেটের পতন ঘটান ডানহাতি এ অফস্পিনার।

নাঈমের দ্বিতীয় উইকেট শিকারের পর দিনের শেষ দিকে এসে উইকেটের মুখ দেখেন সৌম্য সরকার ও স্বাগতিক দলের অধিনায়ক রুবেল হোসেন। ২৪ রান করা ডওরিচকে সৌম্য ও ৩৫ রান করা চেজকে লেগ-বিফোরের ফাঁদে ফেললে ২৭৫ রানে ষষ্ঠ উইকেটের পতন ঘটে সফরকারীদের।

এরপর দিনের বাকি সময়টু্কুতে আর কোনো বিপর্যয় ঘটতে না দিয়ে ৮৬.৩ ওভারে স্কোরবোর্ডে ৩০৩ রান যোগ করলে আলো স্বল্পতার জন্য প্রথম দিনের খেলা সমাপ্ত ঘোষণা করেন ম্যাচ অফিসিয়ালরা। দিন শেষে পল ১৮ ও রেমন্ড ১৪ রানে অপরাজিত থাকেন।

স্বাগতিক বোলারদের মধ্যে নাঈম সর্বোচ্চ দুটি উইকেট ও শফিউল, রাব্বি, সৌম্য, রুবেল প্রত্যেকে একটি করে উইকেট নিজেদের ঝুলিতে জমা করেন।

সংক্ষিপ্ত স্কোরকার্ড-
প্রথম দিন শেষে
উইন্ডিজ: প্রথম ইনিংসে ৬ উইকেটে ৩০৩ রান।
ব্র্যাথওয়েট ৬, হোপ ৮৮ (রিটায়ার্ড হার্ট), পাওয়েল ৭২, অ্যামব্রিস ১৭, চেজ ৩৫, হেটমায়ার ২৪, ডওরিচ ২৪, রেমন্ড ১৪*, পল ১৮*; শফিউল ১০-৩-২৩-১, নাঈম ২৬-৩-১০৪-২, রাব্বি ৫-১-১১-১, রুবেল ১০-২-৪০-১, সৌম্য ৫-১-১০-১।

Related Articles

জন্মদিনে সাকিবের উপহার হবে জয়!

আইপিএলের ধারাভাষ্যে আতহার আলী খান

শেবাগের কাছে বাংলাদেশ ‘শিকারি বাঘ ‘

খেলাঘরের বিপক্ষে দোলেশ্বরের সহজ জয়

নাটকীয় ম্যাচে বিকেএসপির কাছে ২ রানে হারলো ব্রাদার্স