উইলিয়ামসন-টেলরের দৃঢ়তায় কিউইদের সিরিজ জয়

0
546

সিরিজ পরাজয় এড়াতে হলে হ্যামিল্টন টেস্টে জিততেই হত ইংল্যান্ডকে। ১০১ রানের লিডের পর শুরুতেই কিউইদের জোড়া উইকেট শিকার করে জো রুটের দল জয়ের স্বপ্নও দেখছিল। তবে বৃষ্টি আর কেন উইলিয়ামসন-রস টেলরের দৃঢ়তায় নিউজিল্যান্ড আর উইকেটই হারায়নি। ফলে ড্র হয়েছে টেস্ট, সিরিজ জিতেছে আগের ম্যাচে জয় তুলে নেওয়া নিউজিল্যান্ড।

উইলিয়ামসন-টেলরের দৃঢ়তায় কিউইদের সিরিজ জয়

Advertisment

২ উইকেটে ৯৬ রান নিয়ে খেলতে নামা নিউজিল্যান্ড শেষ দিনে উইকেটই হারায়নি। অধিনায়ক উইলিয়ামসন ও তার সঙ্গী টেলর দুজনই তুলে নিয়েছেন শতক। আবারো দলের ত্রাতা হয়ে আবির্ভূত হয়ে শেষ দিন বৃষ্টির ফাঁকে দর্শকদের দিয়েছেন নিখাদ ব্যাটিংয়ের তৃপ্তি।






ইনিংসে ৭৫ ওভার ব্যাট করে নিউজিল্যান্ডের সংগ্রহ দাঁড়ায় ২৪১ রান। উইলিয়ামসন ২৩৪ বলে ১০৪ ও টেলর ১৮৬ বলে ১০৫ রান করে অপরাজিত থাকেন। দুজনের অবিচ্ছিন্ন পার্টনারশিপ দাঁড়ায় ২১৩ রানে।

এর আগে নিজেদের প্রথম ইনিংসে ৩৭৫ রান জড়ো করে স্বাগতিক দল। দলের পক্ষে শতক হাঁকান টম লাথাম। জো রুটের রেকর্ড গড়া ডাবল সেঞ্চুরিতে ১০১ রানে লিড নেওয়া ইংল্যান্ড নিজেদের প্রথম ইনিংসে থামে ৪৭৬ রানে। পিছিয়ে থেকে কিউইরা ভালো শুরু না পেলেও ত্রাতার ভূমিকায় অবতীর্ণ হন দলের সেরা দুই ব্যাটসম্যান উইলিয়ামসন ও টেলর।





রেকর্ড ৪৪১ বল মোকাবেলায় ২২৬ রান করা রুটই পেয়েছেন ম্যাচসেরার পুরস্কার। সিরিজ সেরা হয়েছেন বল হাতে আলো ছড়ানো নেইল ওয়াগনার।

সংক্ষিপ্ত স্কোর

নিউজিল্যান্ড ১ম ইনিংস- ৩৭৫ (লাথাম ১০৫, মিচেল ৭৩, ওয়াটলিং ৫৫, টেলর ৫৩; ব্রড ৭৩/৪, ওকস ৮৩/৩)

ইংল্যান্ড ১ম ইনিংস- ৪৭৬ (রুট ২২৬, বার্নস ১০১, পপ ৭৫; ওয়াগনার ১২৪/৫)

নিউজিল্যান্ড ২য় ইনিংস- ২৪১/২ (উইলিয়ামসন ১০৪*, টেলর ১০৫; ওকস ১২/১)

ফল: ড্র (নিউজিল্যান্ড ১-০ ব্যবধানে সিরিজ জয়ী)।

প্রথমবারের মত বিডিক্রিকটাইম নিয়ে এলো অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ্লিকেশন। বাংলাদেশ এবং সকল আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের বল বাই বল লাইভ স্কোর, এবং সাম্প্রতিক নিউজ সহ সবকিছু এক মুহূর্তেই পাবেন বাংলাদেশ ক্রিকেটের সবচেয়ে বড় অনলাইন পোর্টাল BDCricTime এর অ্যাপে। অ্যাপটি ডাউনলোড করতে গুগল প্লে-স্টোর থেকে সার্চ করুন BDCricTime অথবা ডাউনলোড করতে এখানে ক্লিক করুন। ভালো লাগলে অবশ্যই রেটিং দিয়ে উৎসাহী করুন।