Scores

উত্তাল টুইটার, সাকিবের মতো প্রতারণার শিকার কোহলি!

 

সারা বিশ্বেই করোনাভাইরাসের কারণে সকল ধরনের খেলাধুলা আপাতত বন্ধ। আইসিসি তাদের বিভিন্ন বাছাইপর্বের খেলা আগামী জুন মাস পর্যন্ত বন্ধ রেখেছে। আইপিএল পিছিয়েছে অনির্দিষ্টকালের জন্য। নেদারল্যান্ডস ক্রিকেট বোর্ডও তাদের এই সিজনের খেলা বাতিল করে দিয়েছে। খেলা শুরু হওয়া সম্ভাবনা প্রায় শূন্যের কোঠায় ইংল্যান্ডেও। লম্বা সময় ক্রিকেট ভক্তদের জন্য থাকছেনা কোনো আন্তর্জাতিক ম্যাচ থাকছেনা। তবে ভক্তদের জন্য এই নিরুত্তাপ সময়েও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ঝড় তুললো ক্রিকইনফোর পোল।


Also Read - খেলা বন্ধ থাকার পরও যে কারণে শীর্ষস্থান হারালো ভারত!


সম্প্রতি জনপ্রিয় ক্রিকেট ওয়েবসাইট ক্রিকইনফো সেরা টি টোয়েন্টি খেলোয়াড়ের একটি পোলের আয়োজন করে। যেখানে ভোটের মাধ্যমে নির্ধারিত করা হবে কে টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটের সেরা খেলোয়াড়। এই পোলের কোয়ার্টার ফাইনালে ভোটিংয়ে মুখোমুখি হয়েছিলেন দুই জনপ্রিয় ক্রিকেটার ক্রিস গেইল ও বিরাট কোহলি। দুইজনের টি-টোয়েন্টি রেকর্ডই খুব ভালো। তাই হাড্ডাহাড্ডি ভোটাভুটি হবে তা ধারণা করা হচ্ছিল আগে থেকেই।

তবে ভোটের ফলাফল যে এতটা কাছাকাছি হবে তা হয়তো কেউ কল্পনাও করতে পারেনি। ভক্তদের ভোটে সেরা খেলোয়াড় হওয়ার লড়াইয়ের সেমিফাইনালে পৌছে গিয়েছেন ক্রিস গেইল। অল্পের জন্য হেরে গেলেন কোহলি। কোহলি পান মোট ৬৫৫৯৩ ভোট। গেইলের পক্ষে আসে ৬৫৬৪৭ ভোট। তবে ফলাফল ঘোষণার পরই শুরু হলো আসল কাহিনী।

টুইটারে ক্রিকইনফোর অ্যাকাউন্টে যুদ্ধ ঘোষণা করে বসেছেন কোহলির সমর্থকরা । তাদের দাবি এই পোলের সময় শেষ হওয়া পর্যন্ত এগিয়ে ছিলেন বিরাট কোহলি।

কোহলি এগিয়ে থাকার পরও গেইলকে বিজয়ী ঘোষণা করা নৈতিকতার বাইরে। ক্রিকইনফো তাদের গ্রহণযোগ্যতা হারিয়েছে এই পোলের মাধ্যমে এমনটাই দাবি কোহলির ভক্তদের। তারা তাদের প্রমাণ উপস্থাপন করে দেখাচ্ছে টুইটারে শেষ সময় পর্যন্ত কোহলি এগিয়ে ছিলো। এরপরও গেইলকে বিজয়ী ঘোষণা করায় পুরো টুইটারে ঝড় তুলেছেন ভারতীয় সমর্থকরা।

তবে ক্রিকইনফোর বিরুদ্ধে এমন অভিযোগ নতুন নয়। আগেও ক্রিকইনফোর বিরুদ্ধে এমন অভিযোগ উঠেছিলো। বছরের শুরুতে ক্রিকইনফো দশকের সেরা ওয়ানডে সেরা খেলোয়াড়ের পোল আয়োজন করে। সেই পোলে ফাইনালে পৌছান সাকিব আল হাসান মহেন্দ্র সিং ধোনি

ফাইনালে নির্ধারিত সময় পর্যন্ত এগিয়ে ছিলেন সাকিব আল হাসান ৫১ ভাগ ভোট নিয়ে। তবে সময় শেষ হওয়ার পরও ভোট গ্রহন করছিলো ক্রিকইনফো। পরবর্তীতে ধোনির ভোট ৫১ ভাগ হওয়ার পর পোল শেষ করে ধোনিকে বিজয়ী ঘোষণা করে ক্রিকইনফো। নিয়মের বাইরে গিয়ে ধোনিকে বিজয়ী ঘোষণা করেছিলো এমন অভিযোগই তুলেছিলেন সেদিন সাকিবভক্তরা। সেদিনের পরিস্থিতি ও আজকের পরিস্থিতি পুরো এক। পার্থক্য এটুকুই সেদিনের সাকিবের জায়গায় আজকের কোহলি। সেদিনের ধোনির জায়গায় আজ গেইল।

ক্রিকইনফোর তাদের পছন্দের খেলোয়াড়কে পোল জেতায় বলে রীতিমতো যুদ্ধ ঘোষণা করে দিয়েছে কোহলির ভক্তরা। তারা হয়তো ঠিকও তাদের জায়গায় যেহেতু সকল প্রমাণও তারা দেখাচ্ছেন। তবে প্রশ্ন উঠতে পারে সাকিবের ভোটের সময় তারা চুপ কেনো ছিলেন? দেখে নিন ভক্তদের কিছু প্রতিক্রিয়া।

এখন দেখার পালা নিজেদের বিরুদ্ধে উঠা এই অভিযোগের ব্যাপারে কিছু জানায় কিনা ক্রিকইনফো ভক্তদের রোষানলে পড়ে। যদিও সকলেই বড় খেলোয়াড় ও কেউ কারো থেকে কম নয় বা এইসব ভোটে হারলে বা জিতলেও খুব বেশি কিছু হবেনা।

নিউজটি বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন

Related Articles

সিপিএল খেলবেন না গেইল

ক্রিকেটারদের কখনোই ভেঙে না পড়ার অনুরোধ গেইলের

বর্ণবৈষম্যের প্রতিবাদে সরব চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্স

বর্ণবাদের বিরুদ্ধে আওয়াজ তুলল ক্রিকেটাররা

ওয়ার্নার যোদ্ধা, গেইল থেকে শেখার কিছু নেই: নাসির