Scores

উসমানকে পাশে পেলেন মাশরাফি ও রুবেল

ক্রিকেটে কত ধরনের রেকর্ডই তো হয়। কিছু রেকর্ডের অধিকারী হতে চান না খেলোয়াড়রা। তবে না চাইলেও কখনও কখনও তাদের বনে যেতে হয় অনাকাঙ্ক্ষিত রেকর্ডের মালিক।

উসমানকে পাশে পেলেন মাশরাফি ও রুবেল
উসমান শিনওয়ারি। ফাইল ছবি

এমনই এক রেকর্ডের মালিক ছিলেন এতদিন মাশরাফি বিন মুর্তজা ও রুবেল হোসেন। বাংলাদেশের প্রথম সারির দুই পেসারের অনাকাঙ্ক্ষিত সেই রেকর্ডে এবার ভাগ বসিয়েছেন পাকিস্তানি ক্রিকেটার উসমান শিনওয়ারি।

স্বভাবতই প্রশ্ন জাগছে- কী সেই রেকর্ড? উত্তর হল- খরুচে বোলিংয়ের রেকর্ড!

আন্তর্জাতিক টি-২০ ক্রিকেটে ৪ ওভারের এক স্পেলে ৬৩ রান খরচ করার রেকর্ড এতদিন ছিল মাশরাফি ও রুবেলের। রোববার (৩ ফেব্রুয়ারি) সেই অনাকাঙ্ক্ষিত রেকর্ড করে বসেছেন উসমানও। প্রোটিয়া ব্যাটসম্যানদের মারকুটে ব্যাটিংয়ের সুবাদে এদিন স্বাগতিক দল উসমানের ৪ ওভার থেকে সংগ্রহ করেছে ৬৩ রান।

Also Read - বোর্ডের সাথে চুক্তি: খালেদের কাছেই ঠেকছে অবিশ্বাস্য!


এর আগে ২০১২ সালে উইন্ডিজের বিপক্ষে ম্যাচে ৪ ওভার বল করে ৬৩ রান খরচ করেছিলেন রুবেল হোসেন। এর বছর দুয়েক পর ২০১৪ সালে পাকিস্তানের বিপক্ষে ম্যাচে ৪ ওভারে মাশরাফি বিলি করেছিলেন ৬৩ রান।

অবশ্য টি-২০ ক্রিকেটের ইতিহাসে এই তিনজনই নন সবচেয়ে খরুচে বোলার। তাদের চেয়েও খরুচে বোলিংয়ের রেকর্ড রয়েছে!

সবচেয়ে খরুচে বোলিংয়ের অনাকাঙ্ক্ষিত রেকর্ডটি আয়ারল্যান্ডের ব্যারি ম্যাকার্থির। ২০১৭ সালে আফগানিস্তানের বিপক্ষে ৪ ওভার বল করে তিনি বিলি করেছিলেন ৬৯ রান। ম্যাকার্থির সেই বোলিংয়ে স্বস্তি পেয়েছিলেন প্রোটিয়া পেসার কাইল অ্যাবট। কেননা ২০১৫ সালে উইন্ডিজের বিপক্ষে ৪ ওভারে ৬৮ রান বিলি করে দীর্ঘদিন তিনিই ছিলেন আন্তর্জাতিক টি-২০ ক্রিকেটের সবচেয়ে খরুচে বোলার।

এছাড়া ৪ ওভারে ৬৪ রান বিলি করেছিলেন শ্রীলঙ্কা সনাথ জয়াসুরিয়া, ইংল্যান্ডের জেমস অ্যান্ডারসন, অস্ট্রেলিয়ার অ্যান্ড্রু টাই ও ভারতের যুযবেন্দ্র চাহাল। ৬৪ রান বিলি করেছিলেন নিউজিল্যান্ডের পেসার বেন হুইলারও। তবে ৪ ওভার নয়, ৩.১ ওভারেই তিনি বিলি করেছিলেন এই রান! ভাগ্যিস, অস্ট্রেলিয়া ম্যাচ জিতে যাওয়ায় সেদিন হুইলারকে আর বল করতে হয়নি!

নিউজটি বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন

Related Articles

ছয় মাসের মধ্যেই টি-টোয়েন্টি দলে ভারসাম্য আসবে!

বয়স নিয়ে সমালোচনাকারীদের নিয়ে ভাবেনই না রশিদ!

মিসবাহর দলে ব্রাত্য মালিক-হাফিজ!

র‍্যাংকিংয়ের শীর্ষস্থান ধরে রাখলেন দুই অস্ট্রেলিয়ান

একাধিক রেকর্ড দিয়ে অ্যাশেজ শেষ করলেন স্মিথ