Scores

একাদশে সুযোগ পাওয়া নিয়ে ভাবেন না আরিফুল

সিলেট টেস্টে জাতীয় দলের হয়ে টেস্ট অভিষেক ঘটলেও অতীতে স্কোয়াডে থেকেও মাঠে নামতে না পারার ‘কষ্ট’টা বেশ ভালোই অনুভূত হয়েছে আরিফুল হকের। তবে আরিফুল জানিয়েছেন, এটি আদতে তার কাছে কষ্ট নয়। তিনি স্বাভাবিকভাবেই দেখেন বিষয়টিকে।

‘অপেক্ষা’র যে রেকর্ডে আরিফুল দ্বিতীয়-

আর এসব কারণে কোন ম্যাচের একাদশে জায়গা পাবেন কিংবা কোন ম্যাচে পাবেন না এসব নিয়ে ভাবে না আরিফুল।

সিলেট টেস্টে অন্য ব্যাটসম্যানদের ব্যাটিং পারফরম্যান্স সন্তোষজনক না হলেও অতটা নিষ্প্রভ ছিলেন না আরিফুল। তাই ঢাকা টেস্টে তার দলে থাকা কিংবা না থাকা নিয়ে সন্দেহ নেই। শুধু ব্যাটিংই নয়, পেস বোলিং দিয়ে আরিফুল অবদান রাখতে পারেন বোলিং ইউনিটেও। সেই বিষয়টি মাথায় রেখে ঢাকা টেস্টের একাদশে বাংলাদেশের অনিবার্য এক অংশ তিনি।

Also Read - ডি ভিলিয়ার্সের চোখে টি-২০ এক্স-এর পাঁচ উদীয়মান

তবে আরিফুল জানিয়েছেন, জাতীয় দলের হয়ে খেলা না হলেও দলের সাথে থাকলে অনেক অভিজ্ঞতা অর্জন করা যায়, আর এই ব্যাপারটিকে তিনি দেখছেন ইতিবাচক হিসেবে। আরিফুল বলেন, ‘জাতীয় দলে না খেললেও দলের সঙ্গে থাকলে অনেক অভিজ্ঞতা অর্জন হয়। বড় দলের সঙ্গে খেলা বা বড় বড় খেলোয়াড়দের সঙ্গে ড্রেসিংরুম শেয়ার করা, বড় ভাইয়েরা যখন কিছু বলেন, এসব অনেক কাজে দেয়। আন্তর্জাতিক ক্রিকেট কেমন সেটি সম্পর্কে একটা ধারণা পাওয়া যায়।’

দল বা একাদশ বাছাই করে টিম ম্যানেজমেন্ট। তাই যে বিষয়টি নিজের হাতে নেই সেটিও নিয়ে মাথাও ঘামান না আরিফুল। তিনি বলেন, ‘কোন ম্যাচে খেলব, কোনটি খেলব না, সেটি আমার হাতে নেই। মানসিকভাবে প্রস্তুত থাকার চেষ্টা করি।’

জাতীয় দলে জায়গা ধরে রাখতে শুধু ব্যাটিং নয়, বোলিংয়েও মনোযোগ দিচ্ছেন এই অলরাউন্ডার। তার ভাষ্য, ‘যে উইকেটটা ছিল (সিলেটে) সেখানে আমার বোলিং মানানসই ছিল না। উইকেট পেস বোলিং-সহায়ক থাকলে হয়তো বোলিং করতাম। মনে করি আমাকে ঘরোয়া ক্রিকেটে আরও ভালো বোলিং করতে হবে। বিপিএল বা অন্য টুর্নামেন্টে যদি আমি ভালো বোলিং করি, তাহলে অবশ্যই জাতীয় দলে টানা বোলিংয়ের সুযোগ পাব।’

আরও পড়ুন: আত্মবিশ্বাসী আরিফুল, আত্মতুষ্ট নন

Related Articles

চাপ নিচ্ছে না বাংলাদেশ

আত্মবিশ্বাসী আরিফুল, আত্মতুষ্ট নন

আরিফুলের লড়াকু ইনিংস সত্ত্বেও বড় লিড জিম্বাবুয়ের

‘অপেক্ষা’র যে রেকর্ডে আরিফুল দ্বিতীয়

আরিফুল ও অপু — স্মরণীয় ম্যাচে অভিষেকের রোমাঞ্চ