Scores

এক ম্যাচেই স্টার্কের দুই হ্যাট্রিক!

অ্যাশেজ শুরুর আর বাকি সপ্তাহ-দুয়েক। ইতোমধ্যে কথার লড়াইয়ে জমে উঠেছে ইংল্যান্ড ও অস্ট্রেলিয়ার যুদ্ধক্ষেত্র। স্বাগতিকদের ভূমিকায় থাকা অস্ট্রেলিয়া একটু বাড়তি সাহস পাচ্ছে নিশ্চয়ই। সেই সাহসটা আরও বাড়িয়ে দিলেন অজি পেসার মিচেল স্টার্ক। ঘরোয়া ক্রিকেটে অতি সম্প্রতি এক ম্যাচে দু-দুবার হ্যাট্রিক করার কীর্তি গড়েছেন তিনি!

এক ম্যাচেই স্টার্কের দুই হ্যাট্রিক!

স্টার্ক এমন অভূতপূর্ব কাণ্ড ঘটিয়েছেন অস্ট্রেলিয়ার ঘরোয়া আসর শেফিল্ড শিল্ডে। নিউ সাউথ ওয়েলসের হয়ে খেলার সময় নিজেদের সর্বশেষ ম্যাচে ওয়েস্টার্ন অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে বাঁহাতি ফাস্ট বোলার দুই ইনিংসেই নিয়েছেন টানা তিনটি করে উইকেট; অর্থাৎ গড়েছেন এক ম্যাচে দুই হ্যাট্রিকের কীর্তি।

Also Read - ম্যাচ প্রিভিউঃ রংপুর বনাম চিটাগাং , সিলেট বনাম খুলনা


ওয়েস্টার্ন অস্ট্রেলিয়ার প্রথম ইনিংসে ৫৬ রান বিলানোর বিনিময়ে স্টার্ক শিকার করেন চারটি উইকেট। হ্যাট্রিকের চক্র পূরণ করতে প্রথমে সাজঘরে ফিরিয়েছেন জনাথন ওয়েলসকে। এরপর একই পথ দেখিয়েছেন জেসব বেয়ার্নডর্ফকেও। ঠিক পরের বলেই ডেভিড মুডিকেও একই পরিণতির শিকার করলে প্রথম হ্যাট্রিকের দেখা পান মিচেল স্টার্ক। থামেননি হ্যাট্রিক করেই; পরের বলে শিকার করেন সাইমন ম্যাকিনকে।

প্রতিপক্ষের দ্বিতীয় ইনিংসে স্টার্ক আবারও হ্যাট্রিক করে বসবেন, এটি সম্ভবত তিনি নিজেও ভাবেননি। তবে বিশ্বসেরার কাতারে থাকা পেসারের গতিতে কুপোকাত হয়ে টানা তিন বলে একে একে সাজঘরে ফিরে যান ওয়েস্টার্ন অস্ট্রেলিয়ার তিন ব্যাটসম্যান জেসন বেয়ার্নডর্ফ, ডেভিড মুডি ও জনাথন ওয়েলস। এই ইনিংসে ৪১ রানের খরচায় তিন উইকেট তুলে নেন স্টার্ক।

স্টার্কের আগে আর মাত্র সাতজন বোলার প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে একই ম্যাচে দুটি হ্যাট্রিক করেছিলেন। ম্যাচে শুধু বল হাতেই স্টার্ক ভালো করেছেন- এমন নয়। কম যাননি ব্যাট হাতেও। প্রথম ইনিংসে ৪৩ রান আসে তার ব্যাট থেকে। আর দ্বিতীয় ইনিংসে অপরাজিত থাকেন ১৪ রান করে।

এক ম্যাচে স্টার্কের দুই হ্যাটট্রিকের ভিডিও-

স্টার্কের বিধ্বংসী বোলিং কেবল এই ম্যাচেই নয়, অব্যাহত ছিলো আগের তিন ম্যাচ থেকেই। নিউজ সাউথ ওয়েলসের জার্সি গায়ে গত চারটি ম্যাচে তিনি শিকার করেছেন ২৩টি উইকেট। এর মধ্যে ২৭ অক্টোবর শুরু হওয়া ম্যাচের দ্বিতীয় ইনিংসে মাত্র ৭৩ রানের খরচায় ঝুলিতে ভরেছিলেন আট উইকেট!

স্টার্কের এমন অতিমানবীয় পারফরমেন্সে ইংল্যান্ড ভয় পেতেই পারে। অ্যাশেজ মাঠে গড়ানোর আগেই গুরুত্বপূর্ণ কয়েকজন খেলোয়াড়কে হারিয়ে ইতোমধ্যে দুশ্চিন্তায় আছে ইংল্যান্ড। উল্লেখ্য, আগামী ২৩ নভেম্বর থেকে অস্ট্রেলিয়ার ব্রিসবেনে শুরু হবে এবারের অ্যাশেজ।

আরও পড়ুনঃ টানা তৃতীয় জয় সিলেট সিক্সার্সের

নিউজটি বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন

Related Articles

ভারতের বিপক্ষে একাধিক দিবারাত্রির ম্যাচ চায় অজিরা

স্মিথের ওপর চটেছেন চ্যাপেল, আত্মপক্ষ সমর্থন স্মিথের

নিউজিল্যান্ড সিরিজের জন্য অজিদের টেস্ট দল ঘোষণা

স্মিথের জন্য যে অভিজ্ঞতা এবারই প্রথম

বিব্রতকর রেকর্ডে বাংলাদেশকে টপকে গেল পাকিস্তান