এখন আফগানিস্তান ক্রিকেটের আরও উন্নতি হবে : নূরি

0
1308

তালেবান ক্ষমতা দখলের পর আফগানিস্তানের ক্রিকেট নিয়ে বিভিন্ন আশঙ্কাজনক সংবাদ দেখা যায় বিশ্ব গণমাধ্যমে। তবে সেসব আশঙ্কা উড়িয়ে দিয়েছেন সাবেক আফগান ক্রিকেটার ও বর্তমানে কোচের ভূমিকা পালন করা খালিক দাদ নূরি।

এখন আফগানিস্তান ক্রিকেটের আরও উন্নতি হবে  নূরি
খালিক দাদ নূরি

তালেবান ক্ষমতা গ্রহণের পরদিনই আফগানিস্তান ক্রিকেট বোর্ডে (এসিবি) আসে রদবদল। ২০১৮-২০১৯ সালে এসিবির চেয়ারম্যানের দায়িত্ব পালন করা আজিজুল্লাহ ফাজলিকে আবার চেয়ারম্যানের দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে। ২০১৯ বিশ্বকাপের পর থেকে এ পর্যন্ত চেয়ারম্যানের দায়িত্ব পালন করছিলেন ফারহান ইউসুফজাই। তালেবান আসার পরেই তাকে পদচ্যুত করে।

Advertisment

ইউসুফজাই এসিবির চেয়ারম্যান হলেও গত দুই বছর তিনি সরাসরি বোর্ডে উপস্থিত হয়নি। লন্ডনে বসবাস করেন ইউসুফজাই। লন্ডনে বসেই তিনি এসিবির সিদ্ধান্ত গ্রহণ করতেন। তাকে পদচ্যুত করার কারণ প্রকাশ্যে জানানো না হলেও এটিই মূল কারণ হতে পারে। পুনরায় দায়িত্ব পাওয়া ফাজলি আবার সরাসরি বোর্ডে উপস্থিত হয়ে কাজ করবেন। তালেবান আসার পরেই এসিবিতে এই রদবদলকে তাই খুবই ইতিবাচক হিসেবে দেখছেন নূরি।

সাবেক ক্রিকেটার নূরির ভারতীয় সংবাদমাধ্যম টাইমস অব ইন্ডিয়াকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে জানান, ইউসুফজাই বোর্ডে অযোগ্য লোকদের দায়িত্ব দিতেন। তাই গত দুই-তিন বছরে আফগানিস্তানের ঘরোয়া ক্রিকেটের অবনতি হয়েছে। নূরি আশা করছেন, ফাজলির অধীনে আবারও আফগান ক্রিকেট ভালো অবস্থান ফিরে পাবে। উল্লেখ্য, গতকাল (বুধবার) আফগানিস্তানের নতুন ব্যাটিং কোচও নিয়োগ দেওয়া হয়েছে, শ্রীলঙ্কান অভিষ্কা গুণাবর্ধনেকে।

নূরি বলেন, ‘তালেবান যখন আগে আফগানিস্তানে শাসন করছিল তখনই ক্রিকেটকে দেশের ক্রীড়াবিভাগে যুক্ত করা হয়েছিল। আবারও তালেবান ফেরায় আফগানিস্তান ক্রিকেট এখন আবার যোগ্য নেতৃত্বের সাথে এগিয়ে যাবে। গত দুই বছর ফারহান ইউসুফজাই লন্ডনে বসে অফিস চালিয়েছেন। তিনি নিজেও অফিসে আসতেন না, আবার অযোগ্য ব্যক্তিদের নিয়োগ দিতেন যাদের ক্রিকেট সম্পর্কে জ্ঞান কম।’

চেয়ারম্যানের বদলি ও নতুন শাসনামলে পরিপূর্ণভাবে ভঙ্গুর ক্রিকেট ব্যবস্থা ঘুরে দাঁড়াবে বলে আশা করছেন নূরি, ‘গত দুই বছরে আফগানিস্তানের ঘরোয়া ক্রিকেটও ঠিকমতো চলেনি। ঘরোয়া ক্রিকেটের কাঠামো তো ভঙ্গুর হয়ে পড়েছে। আফগানিস্তানের ক্রিকেটের আরও উন্নতি তো এখন হবে।’

এই সাবেক আফগান ক্রিকেটার আরও জানান, যখন তালেবান দেশ দখল করে নিলো তখন তিনি পরিবার নিয়ে দেশ ত্যাগের প্রস্তুতি নিচ্ছিলেন। কিন্তু তালেবান দেশ দখলের পরেও যখন তিনি দেখলেন পরিস্থিতি স্বাভাবিক আছে এবং ক্রিকেটেরও কোনো ক্ষতি নয়, বরং উন্নতির জন্য কাজ করা হচ্ছে তখন সিদ্ধান্ত পরিবর্তন করেন নূরি।