Scores

জয়ে পূর্ণতা পেয়েছে সাকিবের ‘২০০’

চট্টগ্রাম টেস্ট দিয়ে মাঠে প্রত্যাবর্তন করা সাকিব আল হাসান এই ম্যাচের আগে ফিটনেস নিয়ে খুব বেশি কাজ করার সুযোগ পাননি। ইনজুরি থেকে সেরে ওঠায় অনেকটা তাড়াহুড়া করেই ম্যাচ খেলতে নেমেছেন, সেটি দলীয় স্বার্থেই।

ঢাকা টেস্টের আগে ফিটনেস নিয়ে কাজ করবেন সাকিব

দ্বিতীয় মেয়াদে অধিনায়ক হিসেবে প্রথমবারের মত ঘরের মাঠে নেমেই জয়। এই জয়ে আত্মবিশ্বাস বেড়েছে দলের, বেড়েছে সাকিবেরও। তিনদিনেই প্রথম টেস্ট শেষ হওয়ায় দ্বিতীয় টেস্ট শুরুর আগে লম্বা সময় পাচ্ছেন খেলোয়াড়েরা। টাইগারদের দলপতি জানিয়েছেন, এই সময়ে নিজের ফিটনেস নিয়ে কাজ করবেন তিনি। আরও জানিয়েছেন, জয়ের পূর্ণতা পেয়েছে তার ২০০ উইকেটের মাইলফলক।

ম্যাচ শেষে সংবাদ সম্মেলনে সাকিব বলেন-

Also Read - টাইগারদের জয়ে টুইটার প্রতিক্রিয়া


বেশ কিছুদিন সময় আছে, ফিটনেসের কিছু কাজ করতে পারব। এই টেস্টে মাঠে নামার আগে তিনটি সেশনে ব্যাটিং করেছি। এভাবে ফিটনেসের কাজ না করে মাঠে নামা, দুই মাস পর (সেই হিসেবে) এটা খুবই সামান্য। আমার জন্য কঠিন ছিল। আলহামদুলিল্লাহ্, ভালোভাবে ম্যাচটি শেষ করতে পেরেছি। চেষ্টা থাকবে আরও ভালো অবস্থায় যেন দ্বিতীয় ম্যাচ খেলতে পারি।’

চট্টগ্রাম টেস্ট জয়ে আত্মবিশ্বাস বেড়েছে জানিয়ে সাকিব বলেন, এখন তো হতাশ হয়ে ঢাকায় যাওয়ার উপায় নেই, চাইলেও পারব না (হাসি)। যেহেতু পুরো দলই ভালো খেলেছে। ম্যাচ জিতলে দলের আত্মবিশ্বাস বেড়ে যায়। আশা করি এটা ধরে রাখতে পারব।’

মাত্র তিন দিনে শেষ হওয়া চট্টগ্রাম টেস্টে বাংলাদেশের পক্ষে আরও একটি রেকর্ড গড়েছেন সাকিব। ইতিহাসের ১৪তম এবং দ্রুততম ক্রিকেটার হিসেবে সাকিব ৩০০০ টেস্ট রানের পাশাপাশি ২০০টি শিকার করা উইকেটের মালিক হয়েছেন। ম্যাচ জেতায় সাকিবের কীর্তি পেয়েছে পূর্ণতা। বর্তমান বিশ্বের অন্যতম সেরা এই অলরাউন্ডার বলেন, ২০০ উইকেট পাওয়ার অনুভূতি ভালো হতো না, যদি জিততে না পারতাম। যেহেতু জিতেছি, এ কারণে অনুভূতিটাও অনেক ভালো। ম্যাচে টার্নিং পয়েন্ট অনেকগুলো। এরকম ম্যাচে ছোট ছোট জিনিসগুলোই অনেক বড় টার্নিং পয়েন্ট হয়ে যায়। ছোট ছোট পার্টনারশিপ… প্রথম ইনিংসে আমরা যে রান করেছিলাম সেটাই সবচেয়ে বড় অ্যাডভান্টেজ ছিল। যদিও দ্বিতীয় ইনিংসে আমরা আরও ভালো করতে পারতাম।’

সাকিব আরও বলেন, ‘ম্যাচ জিতলে অর্জনে খুশি লাগে। ম্যাচ জিততে না পারলে সাফল্যটা প্রকাশ করা যায় না। জিতেছি বলে ২০০ উইকেট নিয়ে ২-৩টা প্রশ্ন হচ্ছে, অন্যথায় কিন্তু হার নিয়েই সব প্রশ্ন হতো। দল ভালো না করলে ব্যক্তিগত অর্জনের কোনো অনুভূতি থাকে না। দল যদি জিততে থাকে তাহলে এসব ব্যক্তিগত সাফল্য আসবেই।’

আরও পড়ুন: উইকেটের শতক কিংবা দ্বিশতক— প্রতিপক্ষ যখন একই!

নিউজটি বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন

Related Articles

কেন টেস্ট ক্রিকেটে দর্শকরা এত অনাগ্রহী?

এমন উইকেটে ব্যাটিং বিপর্যয় হতে পারে!

‘গেম সেন্স’ বাড়ানোয় অধিনায়কের তাগিদ

উইকেটের শতক কিংবা দ্বিশতক— প্রতিপক্ষ যখন একই!

যাই করি, দলের জন্য: সাকিব