Scores

এমন উইকেটে ব্যাটিং বিপর্যয় হতে পারে!

তিনদিনেই ইতি ঘটা চট্টগ্রাম টেস্টে বেশ আলোচনায় ছিল উইকেট। স্পিন-নির্ভর এই উইকেটে উইন্ডিজ এতই ব্যাকফুটে চলে গিয়েছিল যে স্বল্প রানের লক্ষ্যও পূরণ করতে পারেনি। তবে শুধু যে উইন্ডিজের ব্যাটিং বিপর্যয় ঘটেছে তেমনটা নয়। বাংলাদেশেরও প্রথম ইনিংসে আংশিক এবং দ্বিতীয় ইনিংসে পুরোপুরি ‘বিপর্যয়’ দেখা গিয়েছিল।

এমন উইকেটে ব্যাটিং বিপর্যয় হতে পারে!

বাংলাদেশ দলের অধিনায়ক সাকিব আল হাসানের মতে, স্পিন-নির্ভর এমন উইকেটে ব্যাটিং বিপর্যয় অস্বাভাবিক বিষয় নয়। একইসাথে ম্যাচটি লো-স্কোরিং হবে এই আভাস দল আগেই পেয়েছিল বলে জানান তিনি।

সাকিব বলেন, এমন উইকেটে ব্যাটিং বিপর্যয় হতে পারে। আমরা সবাই এটা সম্পর্কে সজাগ ছিলাম। প্রথম দিন উইকেট দেখার পর আমরা ভেবেছিলাম ম্যাচটি হাই স্কোরিং হবে না।’

Also Read - ‘গেম সেন্স’ বাড়ানোয় অধিনায়কের তাগিদ


ব্যাটসম্যানদের কাছে এটি ‘ভালো’ উইকেট ছিল না, এমনটা পুরোপুরি মানতে নারাজ সাকিব। একইসাথে তার অভিমত, কিউরেটররা কোনো বিশেষ দিকে সুবিধা রেখে উইকেট বানালেও সেই উইকেট থেকে সুবিধা আদায় করে নিতে হয় সবার সম্মিলিত প্রচেষ্টায়, উইকেট কিউরেটরের দায়িত্ব, তারা প্রস্তুত করেন। আমরা কেমন উইকেট আশা করি বা করি না সেসব নিয়ে বেশি কথা বলাও উচিত না। এসব বিষয় প্রাইভেট থাকলেই আমি খুশি হবো। প্রতিটা উইকেটই ভিন্ন। খেলা যায় না এমন বলব না, সেটা হলে নবম উইকেটে উইন্ডিজ এত বড় জুটি গড়তে পারতো না। আমাদের দেশে যেমন উইকেট হওয়া উচিত তেমন উইকেট বানানোর চেষ্টাই তারা করেছেন। যে ধরনের উইকেটই হোক ভালো বল না করলে অ্যাডভান্টেজ কাজে আসে না। এগুলো হচ্ছে সম্মিলিত প্রচেষ্টার ফল।’

দেশের বাইরে গিয়ে টেস্ট খেলা যেকোনো দলের জন্যই কঠিন। উইন্ডিজ তাই বাংলাদেশের স্পিন-নির্ভর উইকেটে হিমশিম খাওয়াটাই স্বাভাবিক। দেশের বাইরে গিয়ে যেন বাংলাদেশ টেস্টে ভালো করতে পারে, এজন্য এখন থেকেই কাজ শুরু করা উচিত বলে মনে করেন বাংলাদেশ অধিনায়ক।

সংবাদ সম্মেলনে সাকিব বলেন, পিচ নিয়ে আমরা এত বেশি চিন্তা করি না। দেশের বাইরে টেস্ট ক্রিকেটে ভালো করছে এমন দেশ আছে বলে মনে হয় না। ভারতও এশিয়ার বাইরে গেলে সংগ্রাম করে। যদিও এবার ইংল্যান্ড শ্রীলঙ্কায় ভালো করল, যদিও এটা খুব এক্সেপশনাল। আমরাও বাইরে গেলে অনেক সংগ্রাম করি। এজন্য অনেক বেশি প্রস্তুতি নিতে হবে, দীর্ঘমেয়াদী পরিকল্পনা নিতে হবে। ১-২ দিনের প্রস্তুতিতে চাইলেই বাইরে জিতে যাওয়া সম্ভব নয়। এখন থেকে পরিকল্পনা করলে হয়ত ৫ বছর পর আমরা ভালো ফল করবো। কিন্তু এখনও না করলে হয়ত আরও দশ বছর লেগে যেতে পারে!

আরও পড়ুন: বর্ষসেরা হওয়ার সুযোগ তাইজুলের

নিউজটি বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন

Related Articles

কেন টেস্ট ক্রিকেটে দর্শকরা এত অনাগ্রহী?

‘গেম সেন্স’ বাড়ানোয় অধিনায়কের তাগিদ

জয়ে পূর্ণতা পেয়েছে সাকিবের ‘২০০’

উইকেটের শতক কিংবা দ্বিশতক— প্রতিপক্ষ যখন একই!

যাই করি, দলের জন্য: সাকিব