এমন নয় যে আবাহনী অটো জিতে গেছে : পাপন

ঢাকা প্রিমিয়ার লিগে দলগুলোর মধ্যে প্রতিদ্বন্দ্বিতা দেখে মুগ্ধ বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন। ২৬ জুন ইতি ঘটা ডিপিএলে তরুণদের পারফরম্যান্সেও উচ্ছ্বসিত তিনি। 

এমন নয় যে আবাহনী অটো জিতে গেছে পাপন

Advertisment

জাতীয় দলের খেলোয়াড়দের নিয়ে দল গড়েও আবাহনী লিমিটেডকে শিরোপা নিশ্চিত করতে হয়েছে সুপার লিগের শেষ ম্যাচে এসে। এই বিষয়টিকে প্রতিদ্বন্দ্বিতার দৃষ্টান্ত হিসেবেই উপস্থাপন করছেন বিসিবি সভাপতি।

তিনি বলেন, ‘খেলাগুলো দেখুন, ছোট বড় বলে কোনো কথা নেই। কে জিতবে এটা বুঝার কোনো পথ ছিল না। কাগজে-কলমে আবাহনী প্রায় জাতীয় দল ছিল। লিটন, নাঈম, আফিফ, মুশফিক, সাইফউদ্দিন, মোসাদ্দেক- ওরা তো জাতীয় দলের খেলোয়াড় এবং টি-টোয়েন্টি দলেই খেলে। তারপরও আবাহনীকে অনেক সংগ্রাম করতে হয়েছে। এমন না যে অটো জিতে গেছে।’

প্রাইম দোলেশ্বরে ছিলেন না কোনো বড় তারকা, একইভাবে স্বল্প খরচে দল গড়েও চমক দেখিয়েছে খেলাঘরের মত দল। জাতীয় দলের অনেকে নিয়মিত খেলতেও পারেননি। তবুও লিগের জমজমাট লড়াই দেখে বোর্ড সভাপতি যারপরনাই খুশি।

তার ভাষায়, ‘আমরা ছোট দল মনে করলেও আসলে কোনো দল ছোট না। খেলাঘরের কাছেও আবাহনী হেরেছে। প্রাইম ব্যাংক, প্রাইম দোলেশ্বর খুব ভালো দল। সবচেয়ে ভালো বোলিং ছিল প্রাইম ব্যাংকের। মুস্তাফিজ, শরিফুল, রুবেল এ ধরনের বোলাররা ছিল।’

‘কয়েকটা দল সংগ্রাম করেছে যেহেতু জাতীয় দলের কিছু তারকা খেলোয়াড় খেলেনি। এজন্য অনেক দল একটু দুর্বল হয়ে গেছে। ওরা খেললে কী হত চিন্তা করে দেখুন। অনেক প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ খেলা হয়েছে। এটাই ক্রিকেটের সৌন্দর্য।’

তরুণ ও অপেক্ষাকৃত অখ্যাত ক্রিকেটারদের পারফরম্যান্সও নজর কেড়েছে পাপনের। শামিম হোসেন পাটোয়ারির মত উঠতি ক্রিকেটারের প্রশংসা ঝরেছে তার কণ্ঠে।

পাপন বলেন, ‘জাতীয় দলের বাইরেও অনেকে ভালো করেছে। মিজান ভালো করেছে, সোহান ভালো করেছে। মাহমুদুল হাসান জয় দুর্দান্ত। সেদিন শামিম যে ইনিংস খেলল, অসাধারণ ইনিংস। আমাদের পাইপলাইনে অনেক দক্ষ খেলোয়াড় আছে এটা তো দেশবাসী বুঝতে পারছে।’