Scores

এলিট প্লেয়ার্স স্কিল ক্যাম্পে কায়েস-বিজয়-তাসকিনরা

অভিজ্ঞ ক্রিকেটারদের নিয়ে এলিট প্লেয়ার স্কিল ক্যাম্প পরিচালনা করছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)। এই ক্যাম্পের জন্য ২৪ জন ক্রিকেটারকে বেছে নেয়া হয়েছে। ২১ জনকে নিয়ে রবিবার (১২ মে) শুরু হয়েছে স্কিল ক্যাম্প। এই দলে আছেন তাসকিন আহমেদ, ফরহাদ রেজা, ইমরুল কায়েসরা।

হিথ স্ট্রিক বিদায়ের পর বাংলাদেশ দলের বোলিং কোচ হিসেবে নিয়োগ দেওয়া হয় উইন্ডিজ লিজেন্ড কোর্টনি ওয়ালশকে। স্ট্রিকের অধীনে বাংলাদেশের পেসাররা সাফল্য পেলেও ওয়ালশের অধীনে ব্যর্থ পেসাররা। সর্বশেষ ঘরের মাঠেও ব্যর্থ হয়েছে পেসাররা। বোলাররা ব্যর্থ হওয়াতে অনেকেই আঙুল তুলছেন ওয়ালশের দিকে। তবে একা কোচকে দায়ি করাটা হবে যে বড্ড বোকামি। নেট অনুশীলনে ৫৫ বছর বয়সী ওয়ালশের বল মোকাবিলা করতেই ঘাম ঝরাতে হয় ব্যাটসম্যানদের এমনটা জানিয়েছিলেন মুশফিকুর রহিম। তাহলে সমস্যাটা কোথায়? পেসারদের সমস্যা কাটিয়ে উঠতে বোলারদের নিয়ে স্পেশাল ক্যাম্প শুরু করেছে বোলিং কোচ ওয়ালশ। সেই ক্যাম্পে রয়েছে দল থেকে বাদ পড়া তাসকিন আহমেদ, তরুণ রাহি, রনি, কাজী অনিকদের মতো বোলাররা। নিজেদের ব্যর্থতার জন্য কোচকে দায়ি করতে চাননা তাসকিন। বরং সমস্যাগুলো খুঁজে দ্রুতই সমাধান নেওয়ার কথা জানান এই স্পিডস্টার। সেই সাথে নিজেদের আরো পরিশ্রম করতে হবে জানান তিনি। “কোচকে দোষ দেওয়াটা বোকামি। তারা আমাদের সঠিক পরিকল্পনা, সঠিক উপদেশই দেন এবং দলের পরিকল্পনা গুলোও সঠিকভাবে দেন। যদি কোন কিছুর সমস্যা হয়, সেটি বোলারদের কমতি। এটা অবশ্যই কঠোর পরিশ্রমের দ্বারা খুঁজে বের করতে হবে।” কোচ, শীর্ষদের ক্ষেত্রে অনেকসময় বড় সমস্যার কারণ হয়ে দাঁড়ায় ভাষা বুঝতে না পারা। ওয়ালশ উইন্ডিজের হওয়াতে বাংলাদেশের পেসাররা তাঁর কথা, উপদেশগুলো সঠিকভাবে বুঝতে পারাটা বড় ফ্যাক্টর। তবে এটিকে বড় সমস্যা মনে করছেন না তাসকিন। তাঁর মতে মাঠে সঠিকভাবে বাস্তবায়ন করতে না পারাটাই বড় সমস্যা। কোচের ভাষা বুঝতে না পারলে সেটি অনুবাদ করে দেন দলের সিনিয়র ক্রিকেটাররা। সেই সাথে এই ক্যাম্পে কোচ ওয়ালশ থেকে পেসাররা ইয়র্কার, স্লোয়ার নিয়ে কাজ করবেন পেসাররা। “না, এটা কোন সমস্যা নয়। উনি কি বলেন সেটা বুঝতে পারি আমি এবং আমার মনে হয় অনেক ক্রিকেটারই বুঝে উনার ভাষা। যাদের বুঝতে সমস্যা হয়, সিনিয়র ক্রিকেটাররা অনুবাদ করে দেন সেটির। আমার কাছে এটি বড় সমস্যা মনে হয় না, সঠিকভাবে মাঠে বাস্তবায়ন করাটাই বড় সমস্যা আমার মতে।” তিনি আরও যোগ করেন, “গত চার বছর আমি দলের সঙ্গে রয়েছি। অনেক কিছুর অভিজ্ঞতাও হয়েছে। এই চার বছরে বুঝতে পেরেছি, বাস্তবায়ন করাটা সবচেয়ে বড় ব্যাপার। যদি আমি ঠিকঠাক বাস্তবায়ন না করতে পারি তাহলে কোন প্ল্যানই কাজে আসবেনা। যারা ক্যাম্পে রয়েছে তাঁরা , স্লোয়ার, ইয়র্কার, লেন্থ-বলে নিয়ে বেশি কাজ করছে।”
ফাইল ছবি

Also Read - আমার জন্য এটা বেশ আনন্দের ব্যাপার: জাহানারা


স্কিল ক্যাম্পের জন্য ঘোষিত ২৪ জন এলিট প্লেয়ারের মধ্যে ২১ জনেরই রয়েছে জাতীয় দলে খেলার অভিজ্ঞতা। যারমধ্যে ২ জন তাসকিন আহমেদ ও ফরহাদ রেজা বর্তমানে জাতীয় দলের সাথে আয়ারল্যান্ড সফরে আছেন।

এখনো জাতীয় দলে অভিষেক না হওয়া দুই ব্যাটসম্যান ইরফান শুক্কুর, মিজানুর রহমান ও পেসার সালাউদ্দীন শাকিল ডাক পেয়েছেন এই দলে। এছাড়া এনামুল হক বিজয়, আবু হায়দার রনি, মমিনুল হকের মতো জাতীয় দলে সামর্থ্যের প্রমাণ দেয়া ক্রিকেটাররা আছেন। এছাড়া ইমরুল কায়েস, সাদমান ইসলাম অনিকও আছেন।

মিরপুর শের-ই-বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে স্কিল ক্যাম্প শুরু হয়েছে ১২ মে (রবিবার)। ১৮ দিন ব্যাপী চলবে এই প্রশিক্ষণ। শেষ হবে আগামী ৩০ মে।

এলিট প্লেয়ার্স স্কিল ক্যাম্প: এনামুল হক বিজয়, সাদমান ইসলাম অনিক, মিজানুর রহমান, ইমরুল কায়েস, জহুরুল ইসলাম, মমিনুল হক, রকিবুল হাসান, ফজলে রাব্বি, আরিফুল হক, ফরহাদ রেজা, মেহেদী হাসান, তানভীর হায়দার, নাজমুল ইসলাম অপু, তাইজুল ইসলাম, সানজামুল ইসলাম, নুরুল হাসান সোহান, ইরফান শুক্কুর, সালাউদ্দীন শাকিল, খালেদ আহমেদ, এবাদত হোসেন, কামরুল ইসলাম রাব্বি, শফিউল ইসলাম, আবু হায়দার রনি, তাসকিন আহমেদ।

প্রথমবারের মত বিডিক্রিকটাইম নিয়ে এলো অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ্লিকেশন। বাংলাদেশ এবং সকল আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের বল বাই বল লাইভ স্কোর, এবং সাম্প্রতিক নিউজ সহ সবকিছু এক মুহূর্তেই পাবেন বাংলাদেশ ক্রিকেটের সবচেয়ে বড় অনলাইন পোর্টাল BDCricTime এর অ্যাপে। অ্যাপটি ডাউনলোড করতে গুগল প্লে-স্টোর থেকে সার্চ করুন BDCricTime অথবা ডাউনলোড করতে এখানে ক্লিক করুন। ভালো লাগলে অবশ্যই রেটিং দিয়ে উৎসাহী করুন।

নিউজটি বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন

Related Articles

বৃষ্টির কল্যাণে রক্ষা পেল বাংলাদেশ ‘এ’ দল

কায়েসের পর আফিফের ব্যাটে লড়ছে বাংলাদেশ

আক্ষেপ নিয়ে ফিরলেন ইমরুল

বিজয়-নাইমের ব্যাটে বাংলাদেশের প্রতিরোধ

আফগানদের বাংলাদেশ সফরের সূচি চূড়ান্ত