এশিয়া কাপে নিজের ভূমিকা জানালেন সুজন

১৫ই সেপ্টেম্বর সংযুক্ত আরব-আমিরাতে বসবে এশিয়া কাপের ১৪তম আসর। এতে অংশ নিতে আগামীকাল (৯ই সেপ্টেম্বর) দেশ ছাড়বে বাংলাদেশ ক্রিকেট দল। আর টাইগারদের সাথে ম্যানেজার হিসেবে যাচ্ছেন খালেদ মাহমুদ সুজন।

সমালোচনার জবাব দিলেন সুজন

 

গত বছর দক্ষিণ আফ্রিকা সফরের পর বাংলাদেশের প্রধান কোচের দায়িত্ব ছেড়ে দেন চন্ডিকা হাথুরুসিংহে। এরপর নতুন বছরে ঘরের মাঠে প্রধান কোচ ছাড়াই ত্রিদেশীয় সিরিজ খেলেছিল বাংলাদেশ। তবে শ্রীলঙ্কা ও জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে সেই সিরিজে ‘টেকনিক্যাল ডিরেক্টর’ হিসেবে ছিলেন খালেদ মাহমুদ সুজন। এই পদের কাজ কোচের মতোই বলে জানিয়েছিলেন সুজন।

Also Read - 'তাদের আত্মবিশ্বাসে আমি আশাবাদী'

ত্রিদেশীয় সিরিজের ফাইনালে হারার পর শ্রীলঙ্কার কাছে টেস্ট ও টি-টোয়েন্টি সিরিজও হারে বাংলাদেশ। এরপর সমালোচনার ঝড় উঠে সুজনকে নিয়ে। যার ফলে নিদাহাস ট্রফিতে পুরনো পদেই (ম্যানেজার)ফেরানো হয় সাবেক এই অধিনায়ককে। এদিকে টাইগারদের সর্বশেষ উইন্ডিজ সিরিজে যান নি সুজন। সেই সিরিজে মিডিয়া ম্যানেজারের পাশাপাশি ভারপ্রাপ্ত ম্যানেজারের দায়িত্ব পালন করেন রাবিদ ইমাম।

তবে আসন্ন এশিয়া কাপে আবার ম্যানেজারের দায়িত্বে ফিরছেন সুজন। সংযুক্ত আরব-আমিরাতে বাংলাদেশের দলের সাথে নিজের ভূমিকা নিয়ে সুজন বলেন, ‘একই ভূমিকা থাকবে আমার। ম্যানেজার হিসেবে যেহেতু কাজ করতাম, ওটাই থাকবে। এছাড়া আর কিছু না। আমাদের পুরো ম্যানেজমেন্ট আছে। ব্যাটিং কোচ, ফিল্ডিং কোচ সব মিলিয়ে আট-নয় জন স্টাফ আছে। সবাই ঠিক মতো কাজ করলে ফলাফল আমাদের পক্ষেই আসবে।’

দলের ম্যানেজার হলেও অনেক বিষয়ে অবগত নন সুজন!অনুশীলনে টাইগারদের সাথে ছিলেন না তিনি। আজ (শনিবার) মিরপুর শের-ই-বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে সুজন বলেন, ‘সত্যি কথা বলতে আমি আসলে কিছুই জানি না। কেননা দলের সঙ্গে ছিলাম না। যত দূর জানি সাকিব ওখানে দলের সঙ্গে যোগ দিবে। তামিমের ইনজুরি গুরুতর কিছু না মনে হচ্ছে। আরও কয়েকদিন আছে। আশা করছি ওদের ম্যাচের আগে সুস্থ অবস্থায় পাবো।’

[আরও পড়ুনঃ মাশরাফির সাথে অন্যদের পার্থক্য কোথায়? জানালেন ওয়ালশ]

Related Articles

মিঠুনের ‘মূল চরিত্রে’ আসার তাড়না

‘আঙুলটা আর কখনো পুরোপুরি ঠিক হবে না’

এক নয় মাশরাফির তিন ইনজুরি

‘বিশ্ব ক্রিকেটে সম্মানজনক জায়গা আদায় করেছে বাংলাদেশ’

লিটন আউট ছিলেন নাকি নট আউট, জানেন না কোচও