Scores

‘এশিয়া কাপ খেলার কোনো দরকার নেই’

আগামী ই সেপ্টেম্বর সংযুক্ত আরব আমিরাতে পর্দা উঠবে এশিয়ার বিশ্বকাপখ্যাত ‘এশিয়া কাপ’ এর। এবার অংশ নিচ্ছে মোট ছয় দল। যার মধ্যে পাঁচ দল খেলবে সরাসরি আর বাছাইপর্ব থেকে আসবে একটি দল। কিন্তু বিরাট কোহলিকে এশিয়া কাপ বর্জনের পরামর্শ দিয়েছেন সাবেক ভারতীয় দলের ওপেনার ও মারকুটে ব্যাটসম্যান বীরন্দ্র শেবাগ।

'এশিয়া কাপ খেলার কোনো দরকার নেই'

এরই মধ্যে আসরের অফিসিয়াল সম্প্রচার স্বত্ব পাওয়া স্টার স্পোর্টস তাদের ইউটিউব একাউন্টের মাধ্যমে সূচি প্রকাশ করে। গ্রুপ ‘এ’ তে বাছাই পর্ব পের হয়ে আসবে যে দল, তাদের সাথে রয়েছে ভারত ও পাকিস্তান। সূচি অনুযায়ী ভারতের খেলা পরেছে পরপর দুইদিন। ১৮ই সেপ্টেম্বর বাছাইপর্ব পেরিয়া আসা দলের সাথে খেলার পরদিনই চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী পাকিস্তানের মুখোমুখো হবে কোহলিবাহিনী।

Also Read - গেইলকে ছাড়িয়ে সবার উপরে মুশফিক


এ নিয়ে বড্ড ক্ষেপেছেন সাবেক ওপেনার শেবাগ। স্বাভাবিক বিরতি না থাকলে খেলা কঠিন জানিয়ে তিনি বলেন, ‘এমন অদ্ভুত এক সূচি দেখে আমি সত্যি অবাক। আয়োজকরা সূচি নির্ধারণের আগে বিষয়টা হয়তো বিবেচনা করেননি। এই যুগে কোন দল পর পর ম্যাচ খেলে? যেখানে ইংল্যান্ডে টি-টোয়েন্টি ম্যাচের মাঝে দু’দিন বিরতি থাকে, সেখানে দুবাইয়ের প্রচণ্ড গরমে টানা দু’দিন ওয়ানডে ম্যাচ খেলা কি সম্ভব?’

শেবাগের মতে, টানা পরিশ্রম খেলোয়াড়দের ভিতরে অনেক বিরূপ প্রভাব ফেলবে। তাঁর মতে, ‘একজন ক্রিকেটারকে ব্যাটিং ও ফিল্ডিং মিলিয়ে অন্তত সাড়ে পাঁচ ঘণ্টা মাঠে কাটাতে হয়। তারপর পর্যাপ্ত বিশ্রাম না পেলে তার ফিটনেসে প্রভাব পড়বে।’

সূচি একই রকম থাকলে ভারত দলকে এশিয়া বর্জনের পরামর্শ দিয়ে সাবেক এই মারকুটে ওপেনার বলেন, ‘এশিয়া কাপ নিয়ে এত উতলা হওয়ার কিছু হয়নি। আমি কোহলিকে বলব, এশিয়া কাপ খেলার কোনো দরকার নেই।’

এই আসরে সরাসরি অংশ নিচ্ছে বাংলাদেশ, ভারত, শ্রীলঙ্কা, পাকিস্তান, আফগানিস্তান। আর বাছাইপর্বে লড়াই করবে হংকং, মালয়েশিয়া, নেপাল, ওমান, সিঙ্গাপুর ও সংযুক্ত আরব আমিরাত। বাছাইপর্ব পেরোনো একটি দল অংশ নেবে মূল পর্বে।

আরো পড়ুনঃ  যে কারণে টি-টোয়েন্টি স্কোয়াডে সৌম্য

 

নিউজটি বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন

Related Articles

মাধ্যমিকের প্রশ্নপত্রে নিজের নাম দেখে কৃতজ্ঞ তামিম

মেডিকেল রিপোর্টের উপরেই নির্ভর করছে সাকিবের এনওসি

এই মিরাজ অনেক আত্মবিশ্বাসী

মিঠুনের ‘মূল চরিত্রে’ আসার তাড়না

‘আঙুলটা আর কখনো পুরোপুরি ঠিক হবে না’