Scores

এ’ গ্রুপে সবচেয়ে অভিজ্ঞ দল বাংলাদেশ

India CT squad most experienced, Bangladesh top in Group A
আইসিসি চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফি শুরু হতে আর বাকি দুই দিন। আজ আমরা এবারে আসরে অংশ নেয়া আট দলের স্কোয়াডের দিকে নজর দিবো। কোন দল কেমন অভিজ্ঞতা সম্পূর্ণ, কতো ম্যাচ খেলছে তা থাকছে এই অনুচ্ছেদে-

ভারত (১৫৮২ ম্যাচ): এবারের চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফিতে সবার শেষে স্কোয়াড ঘোষণা করা ভারতই এবারের আসরে সবচেয়ে অভিজ্ঞ দল। ভারত দলে সবচেয়ে অভিজ্ঞ মহেন্দ্র সিং ধোনী, যিনি খেলেছেন ২৮৬ টি ম্যাচ। বিরাট কোহলীর এই দলে ৬ জন ক্রিকেটার ১০০ এর অধিক ম্যাচ খেলেছেন। স্কোয়াডের ক্রিকেটারদের টোটাল ম্যাচ সংখ্যা ১৫৮২।

শ্রীলংকা (১৩৩০ ম্যাচ): এবারের আসরে আন্ডারডগ শ্রীলংকা হলেও অভিজ্ঞতায় ভারতের পরেই আছে এই দলটি। শ্রীলংকা দলে আছে লাসিথ মালিঙ্গা, উপুল থারাংগার মতো অভিজ্ঞ ক্রিকেটার। দলে ৬ জন ক্রিকেটার আছেন যারা ১০০ এর অধিক ম্যাচ খেলেছেন। সবচেয়ে বেশি অভিজ্ঞ উপুল থারাঙ্গা, তিনি খেলেছেন ২০১ টি ম্যাচ। স্কোয়াডের ক্রিকেটারদের টোটাল ম্যাচ সংখ্যা ১৩৩০ ।
দক্ষিণ আফ্রিকা (১২২৮ ম্যাচ): এবারের আসরে অন্যতম ফেভারিট দক্ষিণ আফ্রিকা দলে তরুণ ও অভিজ্ঞ ক্রিকেটারদের ভালো কম্বিনেশন আছে। দলের অধিনায়ক এবি ডি ভিলিয়ার্স সবচেয়ে বেশি ২১৯ টি একদিনের ম্যাচ খেলেছেন। পাশাপাশি হাশিম আমলা, ফাফ ডু প্লেসিস, জেপি ডুমিনী এবং মর্নে মরকেল ১০০ এর অধিক ম্যাচ খেলেছেন। স্কোয়াডের ক্রিকেটারদের টোটাল ম্যাচ সংখ্যা ১২২৮ ।

Also Read - আলিম দারকে অনুপ্রানিত করলেন হাসিম আমলা


বাংলাদেশ (১১৫৬ ম্যাচ): চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির এবারের আসরের চতুর্থ অভিজ্ঞতা সম্পন্ন দল বাংলাদেশ। দলের সবচেয়ে অভিজ্ঞ ক্রিকেটার অধিনায়ক মাশরাফি বিন মর্তুজা। ১৭৫ টি একদিনের ম্যাচ খেলেছেন মাশরাফি। এছাড়া মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ, মুশফিকুর রহিম, সাকিব আল হাসান, তামিম ইকবালের ১৪০ এর অধিক একদিনের ম্যাচ খেলার অভিজ্ঞতা রয়েছে। স্কোয়াডের ক্রিকেটারদের টোটাল ম্যাচ সংখ্যা ১১৫৬। গ্রুপ এ’তে সবচেয়ে অভিজ্ঞ দল বাংলাদেশ। গ্রুপ এ’র অপর তিন দল অস্ট্রেলিয়া, ইংল্যান্ড, নিউজিল্যান্ড।

নিউজিল্যান্ড (১০৩৩ ম্যাচ): এবারের আসরের ডার্ক হর্স বলা হচ্ছে নিউজিল্যান্ডকে। দলে চারজন ক্রিকেটার আছেন ১০০ এর অধিক ম্যাচ খেলার অভিজ্ঞতাসম্পন্ন। দলের সবচেয়ে অভিজ্ঞ ক্রিকেটার রস টেইলার। তিনি নিউজিল্যান্ডের হয়ে খেলেছেন ১৮৭ টি ম্যাচ। স্কোয়াডের ক্রিকেটারদের টোটাল ম্যাচ সংখ্যা ১০৩৩।

পাকিস্তান (৮৮১ ম্যাচ): এবারের আসরের আর এক আন্ডারডগ পাকিস্তান। দলের সবচেয়ে অভিজ্ঞ ক্রিকেটার শোয়েব মালিক। পাকিস্তানের হয়ে একদিনের ক্রিকেটে ২৪৭ টি ম্যাচ খেলেছেন তিনি। তবে দলে অভিজ্ঞতাসম্পন্ন ক্রিকেটারের সংখ্যা অনেক কম। স্কোয়াডের ক্রিকেটারদের টোটাল ম্যাচ সংখ্যা ৮৮১।

ইংল্যান্ড (৮০৮ ম্যাচ): এবারের আসরে হট ফেভারিট বলা হচ্ছে ইংল্যান্ডকে। অভিজ্ঞতা কম হলেও শক্তিতে ইংল্যান্ড অনেক এগিয়ে। দলে শুধুমাত্র অধিনায়ক ইয়ন মরগান ১০০ এর অধিক ম্যাচ খেলেছেন। স্কোয়াডের ক্রিকেটারদের টোটাল ম্যাচ সংখ্যা ৮০৮।

অস্ট্রেলিয়া (৬০৭ ম্যাচ): আইসিসি চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির এবারের আসরে সবচেয়ে অনভিজ্ঞ দল অস্ট্রেলিয়া। ১০০ এর অধিক ম্যাচ খেলা কোনো ক্রিকেটার নেই অস্ট্রেলিয়ার স্কোয়াডে। সবচেয়ে অভিজ্ঞ ক্রিকেটার স্টিভ স্মিথ। তিনি খেলছেন ৯৫ টি একদিনের ম্যাচ। স্কোয়াডের ক্রিকেটারদের টোটাল ম্যাচ সংখ্যা ৬০৭।

উল্লেখ্য, আইসিসি চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফি শুরু হবে ১ জুন। ফাইনাল হবে ১৮ ই জুন।


[আরো পড়ুনঃ ‘যত দিন টুর্নামেন্টে আছি, আমরাই ফেবারিট’]

 

নিউজটি বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন

Related Articles

ওয়েডের ‘মাথার খুলি উড়িয়ে দিতে চেয়েছিল’ আর্চার!

একাধিক রেকর্ড দিয়ে অ্যাশেজ শেষ করলেন স্মিথ

সমতায় শেষ হলো অ্যাশেজ, ট্রফি গেল অস্ট্রেলিয়ায়

অস্ট্রেলিয়ার অধিকাংশ সমর্থকই আমাকে ঘৃণা করে: মার্শ

নেতৃত্বে ফিরবেন স্মিথ!