Scores

কোয়ারেন্টিনে ওজন বাড়ছে সাকিবের

এমন কঠিন কোয়ারেন্টিন আগে কখনো পালন করতে হয়নি সাকিব আল হাসানকে। বঙ্গবন্ধু টি-টোয়েন্টি কাপ বা ক্যারিবীয় সিরিজে ছিলেন সতীর্থদের কাছাকাছি। আইপিএল খেলতে রীতিমত একা থাকতে হচ্ছে একটি কক্ষে, টানা ৭ দিন। কোয়ারেন্টিনের শেষদিকে এসে যেন হাঁপিয়ে উঠেছেন বাংলাদেশি অলরাউন্ডার।

ভারতে গিয়ে ওজন বাড়ছে সাকিবের
লাইভ চ্যাটে আলাপচারিতায় সাকিব।

চতুর্দশ আইপিএল শুরু হবে ৯ এপ্রিল। এবার সাকিব খেলবেন কলকাতা নাইট রাইডার্সের হয়ে। দলটির হয়ে আগেও খেলেছেন। তবে আগে কখনো এসব কোয়ারেন্টিনের ঝামেলা ছিল না। মহামারী রুখতে কোয়ারেন্টিন না করে দলের সাথে যোগ দেওয়ারও সুযোগ নেই। দুটি টেস্টে নেগেটিভ সনদ পাওয়ার পর তৃতীয় টেস্টের অপেক্ষায় থাকা সাকিব জানালেন, কোয়ারেন্টিন বেশ কঠিনই ঠেকছে।

তিনি বলেন, ‘কোয়ারেন্টিন সহজ কাজ নয়। আন্তর্জাতিক কিছু ম্যাচ খেলেছি, কোয়ারেন্টিনেও থেকেছি। তবে কখনো এমন হয়নি। সবসময় নিজের রুমে থাকতে হচ্ছে। কাউকে দেখার সুযোগ নেই। এটা সত্যিই অনেক কঠিন। তবে এটাই নিয়ম আর এই ধাপ সবাইকে পার করতে হবে, মানিয়ে নিতে হবে।’

Also Read - সাকিবের সাথে ক্রিকেট নিয়ে কথাই হয় না শাহরুখের


কক্ষের বাইরেও যাওয়ার সুযোগ নেই। খাবার নিতে শুধু দরজা খুলতে পারেন দিনে ২-৩ বার- এই যা। ক্রিকেটারদের সবসময় থাকতে হয় অনুশীলনের মাঝে। এভাবে রুমে শুয়ে-বসে কাটালে ওজন বেড়ে যাওয়াই স্বাভাবিক। সাকিবের ক্ষেত্রেও তাই হচ্ছে।

অবশ্য তারকা ক্রিকেটার মোটেও উদ্বিগ্ন নন। খানিক বাড়তি শ্রমেই ওজন নিয়ন্ত্রণে আনা সম্ভব, তা স্পষ্ট স্মিথ হাসিতেই। কলকাতার আয়োজনে লাইভ চ্যাটে সাকিব জানালেন, ‘ফোনেই বেশি সময় কাটছে। মুভি দেখছি। টিম ট্রেনারের পরামর্শে একটু এক্সারসাইজ করি রুমের মধ্যে। খাচ্ছি, ওজন একটু বেড়ে যাচ্ছে। কঠোর শ্রম করতে হবে ওজন কমাতে হলে।’

কোয়ারেন্টিনে বসে সাকিব চেখে নিয়েছেন প্রিয় ভারতীয় খাবারও। তবে মাত্র একবার, কারণ ওজন নিয়ে দুশ্চিন্তা! তিনি বলেন, ‘বাঙালি খাবার তো সবই আমার পছন্দ। ভারতীয় প্রিয় খাবার মাসালা দোসা। গত ৭ দিনে একবার খেয়েছি। তাদের বলেছি, আমাকে একবার মাসালা দোসা খেতে দেবেন প্লিজ। এই একবারই খেয়েছি।’

Related Articles

শুরুতে মুস্তাফিজকে পাচ্ছে না রাজস্থান