Scores

ওয়াটসনের ঝড়ে সাকিবের হায়দরাবাদের স্বপ্নভঙ্গ

আইপিএলে তৃতীয়বারের মতো শিরোপার স্বাদ পেয়েছে চেন্নাই সুপার কিংস। ফাইনালে সানরাইজার্স হায়দরাবাদকে আট উইকেটে হারিয়ে চ্যাম্পিয়ন হয়েছে তারা। চেন্নাই সুপার কিংসকে এ শিরোপা এনে দেওয়ার নেপথ্যের নায়ক ছিলেন শেন ওয়াটসন।

চেন্নাই সুপার কিংস এর আগে এ আসরে সানরাইজার্স হায়দরাবাদের মুখোমুখি হয়েছে তিনবার। তিনবারই জয়ের হাসি হেসেছে তারা। সেই ধারা অব্যাহত থাকল ফাইনালেও।

টস হেরে প্রথমে ব্যাটিংয়ে নামে সানরাইজার্স হায়দরাবাদ। শুরুটা মোটেও ভালো হয়নি তাদের। দ্বিতীয় ওভারেই রান আউট হয়ে ফিরে যান ওপেনার শ্রীভাতস গোস্বামি। ৫ বলে ৫ রান করেন তিনি। দলীয় ১৩ রানে প্রথম উইকেট হারিয়ে কিছুটা চাপে পড়ে সানরাইজার্স হায়দরাবাদ। ওয়াটসনের ঝড়ে সাকিবের হায়দরাবাদের স্বপ্নভঙ্গ

Also Read - "ক্রিকেটে এসব ঘটেই"

প্রাথমিক সেই চাপ সামাল দেন কেন উইলিয়ামসন এবং শিখর ধাওয়ান। দুজন মিলে গড়েন ৫১ রানের জুটি। তাদের জুটি ভাঙেন রবিন্দ্র জাদেজা। ২৬ রান করে জাদেজার বলে বোল্ড হন ধাওয়ান। ২৫ বলে ২৬ রান করেন তিনি। তার ইনিংসে ছিল ২ চার ও ১ ছয়।

এরপর চার নম্বরে ব্যাট করতে আসেন সাকিব আল হাসান। সাকিব নিজের ইনিংসের সূচনা করেন চার দিয়ে। অধিনায়ক কেন উইলিয়ামসন বিদায় নেন অর্ধশতক থেকে তিন রান দূরে থেকে। জাদেজার এক ওভার থেকে ১৭ রান নিয়ে রানের গতিটাও বাড়িয়ে নেয় সানরাইজার্স হায়দরাবাদ। ইনিংসের ১১ তম ওভারে সাকিব শেষ দুই বলে মারেন এক চার ও এক ছয়।

৩৬ বলে ৫ চার আর ২ ছক্কায় সাজানো ৪৭ রানের ইনিংস খেলে করণ শর্মার বলে বোল্ড হন উইলিয়ামসন। ইউসুফ পাঠানকে সাথে নিয়ে ৩২ রানের জুটি গড়েন সাকিব আল হাসান।

দলীয় ১৩৩ রানের মাথায় আউট হন সাকিব। ১৫ বলে ২ চার আর ১ ছক্কায় ২৩ রানের ছোট্টো কিন্তু দ্রুতগতির ইনিংস খেলে বিদায় নেন সাকিব।

এরপর শেষদিকে ঝড় তোলেন ইউসুফ পাঠান ও কার্লোস ব্র‍্যাথওয়েট। তাদের ঝড়ো ব্যাটিংয়ে বড় পুঁজি পায় সানরাইজার্স হায়দরাবাদ। চেন্নাই সুপার কিংসকে লক্ষ্য ছুঁড়ে দেয় ১৭৯ রানের। বোলিংয়ে রসদ ছিল ভালোই। তাই এ রানটা যথেষ্টই মনে হয়েছিল সাকিবদের জন্য। শেষদিকে ঝড় তোলা ইউসুফ পাঠান ৪ চার আর ২ ছক্কায় ২১ বলে ৪৫ রান করে অপরাজিত ছিলেন। তার সঙ্গী কার্লোস ব্র‍্যাথওয়েট ১১ বলে করেন ২১ রান। তার ইনিংসে ছিল ৩ টি ছয়।

শুরুতে অবশ্য চেন্নাই সুপার কিংসকে ভালোভাবেই আটকে রেখেছিলেন সানরাইজার্সের বোলাররা।চতুর্থ ওভারেই প্রথম কোয়ালিফায়ারের নায়ক ফাফ ডু প্লেসিসের উইকেট হারায় তারা। নিজের বলে নিজে ক্যাচ নিয়ে সন্দ্বীপ শর্মা ফিরিয়ে দেন ফাফ ডু প্লেসিসকে। ১১ বলে ১০ রান করেন ডু প্লেসিস।

কিন্তু ধীরে ধীরে খোলস থেকে বেরিয়ে আসে তারা। ঝড় তোলেন শেন ওয়াটসন আর সুরেশ রায়না। ম্যাচ বের করে আনেন দুজন। ১১৭ রানের জুটি চেন্নাই সুপার কিংসের হাতের মুঠোয় নিয়ে আসে ম্যাচ। পাত্তাই পায়নি সানরাইজার্স হায়দরাবাদের বোলাররা। চার-ছক্কার পসরা সাজান দুই ব্যাটসম্যান মিলে। কমিয়ে আনেন আস্কিং রান রেট। সাকিব আল হাসান পান একাদশ ওভার। সেই ওভারে দুই ছক্কাসহ রান দেন ১৫। এটিই ছিল তার এই ম্যাচে প্রথম ও শেষ ওভার।

শেন ওয়াটসন আর সুরেশ রায়না মিলে বারবার বল আঁছড়ে ফেলেন বাউন্ডারির বাইরে। রানের ফোয়ারা ছুটিয়ে চলেন শেন ওয়াটসন। তাকে সঙ্গ দিতে থাকে সুরেশ রায়না। দলীয় ১৩৩ রানের মাথায় ভাঙে এ জুটি। জুটি ভাঙেন কার্লোস ব্র‍্যাথওয়েট। ২৪ বলে ৩২ রান করে উইকেটরক্ষকের হাতে ক্যাচ দিয়ে ফিরে যান রায়না।

এরপর আম্বাতি রাইডুকে নিয়ে বাকি কাজ সারেন শেন ওয়াটসন। পূর্ণ করেন শতক। এবারের আসরেই দ্বিতীয় শতক হাঁকান তিনি। ওয়াটসন আর রাইডুর ৪৮ রানের জুটিতে চেন্নাই সুপার কিংস জয় পায় আট উইকেটে। ৫৭ বলে ১১৭ রানের ইনিংস খেলেন ওয়াটসন। তার এ বিস্ফোরক ইনিংসে ছিল ১১ চার আর ৮ ছক্কা। একাই যেন হারিয়ে দিয়েছেন চেন্নাই সুপার কিংসকে। অন্য প্রান্তে থাকা আম্বাতি রাইডু ১ চার আর ১ ছক্কা সমৃদ্ধ ১৯ বলে ১৬ রানের ইনিংস খেলে অপরাজিত থাকেন।

স্কোরকার্ড-

আরও পড়ুনঃ “ক্রিকেটে এসব ঘটেই”

Related Articles

কোহলির কথার দ্বিমত পোষণ ধোনির

খেলোয়াড়ি জীবনের ইতি টানার ইঙ্গিত ম্যাককালামের

যুবরাজকে এত অল্প দামে পাওয়ার আশা করেনি মুম্বাইও!

আইপিএলে ‘জ্যাকপট’ পাওয়া চার ক্রিকেটার

আইপিএল ২০১৯ : এক নজরে কে কোন দলে