Scores

“ওয়ার্নারই টেম্পারিং করতে বলেছিল” — ব্যানক্রফট

বছরের অন্যতম আলোচিত বিষয় ছিল বল টেম্পারিংয়ের ঘটনা। দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে মার্চে কেপটাউন টেস্টে অস্ট্রেলিয়ার এই টেম্পারিং দেশটির ক্রিকেটের উপর বয়ে নেয় প্রবল ঝড়। ঐ ঘটনায় ভিন্ন মেয়াদে নিষেধাজ্ঞা পান তিন অভিযুক্ত স্টিভ স্মিথ ডেভিড ওয়ার্নার এবং ক্যামেরন ব্যানক্রফট।

“ওয়ার্নারই টেম্পারিং করতে বলেছিল” — ব্যানক্রফট

ঘটনার মূল হোতা যে ওয়ার্নার সেটি জানা গিয়েছিল আগেই। এবার যার হাত ধরে টেম্পারিং হয়েছিল সেই ব্যানক্রফটও জানালেন, তাকে টেম্পারিং করার প্রস্তাবনা কিংবা নির্দেশনা দিয়েছিলেন ওয়ার্নারই।

সম্প্রতি এক সাক্ষাৎকারে বিষয়টি খোলাসা করে ব্যানক্রফট বলেন, ডেভই আমাকে বল টেম্পারিং করতে বলেছিলম্যাচে আমাদের অবস্থা তখন খুব একটা ভালো ছিল নাসে অবস্থার প্রেক্ষিতেই সে সেটি করতে বলেছিল।’

Also Read - মেলবোর্নে ভারতের মাটি কামড়ানো ব্যাটিং এবং আর্চির দিন


তরুণ ব্যানক্রফট দলে অবদান রাখার বিষয়টি মাথায় রেখে ওয়ার্নারের কথা শুনতে সাতপাঁচ ভাবেননি। তবে সেটিই শেষ পর্যন্ত তিনটি ক্রিকেটারের জন্য কাল হয়ে দাঁড়ায়। ব্যানক্রফট বলেন, আমি দলের কোনো একটা ব্যাপারে নিজেকে গুরুত্বপূর্ণ ভাবতে চেয়েছিলামসে কারণেই ডেভের কথা আমি শুনিআমি এ ব্যাপারে আর কিছুই জানি না।’

তবে নিজের কাজটি যে ভুল ছিল দেরিতে হলেও সেটি বুঝতে পেরেছেন এই ব্যাটসম্যান। তিনি বলেন, পুরো ব্যাপারটাই আমি করেছি দল মানিয়ে নেওয়ার উদ্দেশেআমি নিজেকে দলের জন্য গুরুত্বপূর্ণ ভাবতে চেয়েছিলামসেটি অবশ্যই ভুল একটা সিদ্ধান্ত ছিলআমি এখন সেই ভুলের মাশুল দিচ্ছিতবে এটা ঠিক যে সেই ভুল না করার সুযোগ আমার ছিলকিন্তু আমি ভুল করেছি।

টেম্পারিংয়ের শাস্তি হিসেবে স্মিথ ও ওয়ার্নারকে ১২ মাস তথা ১ বছর এবং ব্যানক্রফটকে ৯ মাসের নিষেধাজ্ঞা প্রদান করে অস্ট্রেলিয়া ক্রিকেট বোর্ড। ব্যানক্রফটের সেই নিষেধাজ্ঞার মেয়াদ শেষের পথে। মার্চের আগে শেষ হয়ে যাবে স্মিথ ও ওয়ার্নারের নিষেধাজ্ঞাও। তিন ক্রিকেটারই তাই বুঁদ হয়ে আছেন আবারও অস্ট্রেলিয়া জাতীয় দলের জার্সি গায়ে চাপানোর স্বপ্নে।

আরও পড়ুন: সাউদির প্রতিরোধের দিনে এগিয়ে শ্রীলঙ্কা

নিউজটি বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন

Related Articles

ওয়েডের ‘মাথার খুলি উড়িয়ে দিতে চেয়েছিল’ আর্চার!

একাধিক রেকর্ড দিয়ে অ্যাশেজ শেষ করলেন স্মিথ

সমতায় শেষ হলো অ্যাশেজ, ট্রফি গেল অস্ট্রেলিয়ায়

অস্ট্রেলিয়ার অধিকাংশ সমর্থকই আমাকে ঘৃণা করে: মার্শ

নেতৃত্বে ফিরবেন স্মিথ!