করোনার হানায় বাতিল করোনার তহবিল সংগ্রহের ম্যাচ

শ্রীলঙ্কায় সাবেক এক ক্রিকেটার করোনা আক্রান্ত হওয়ায় করোনার তহবিল গঠনের লক্ষ্যে আয়োজিতব্য ম্যাচ বাতিল হয়েছে। ম্যাচটি পরবর্তী সময়ে মাঠে গড়াবে কি না, বা গড়ালেও কবে গড়াবে তা জানায়নি শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট (এসএলসি)।

করোনায় বাতিল করোনা মোকাবেলার তহবিল সংগ্রহের ম্যাচ

Advertisment

মঙ্গলবার (৪ এপ্রিল) শ্রীলঙ্কা গ্রেট একাদশ ও টিম শ্রীলঙ্কার মধ্যে প্রীতি ক্রিকেট ম্যাচ অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা ছিল। তবে ম্যাচের আগে করোনা পরীক্ষা করে জানা যায়, এই ম্যাচের খেলোয়াড় ও সাবেক লঙ্কান অধিনায়ক উপুল থারাঙ্গা নিজেই করোনা আক্রান্ত।

এরপর শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট বোর্ড ম্যাচটি বাতিল ঘোষণা করে। এসএলসি এক বিবৃতিতে জানিয়েছে, ‘দেশের মানুষের পাশাপাশি শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট বোর্ড ক্রিকেটারদের সুরক্ষার কথা চিন্তা করে এই ম্যাচ বাতিল করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে।’

এই প্রীতি ম্যাচ থেকে অর্জিত অর্থ করোনা মোকাবেলায় কাজে ব্যয় করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছিল। উপুল থারাঙ্গা ছাড়াও সনাথ জয়াসুরিয়ার নেতৃত্বে গ্রেট একাদশে খেলার কথা অরবিন্দ ডি সিলভা, হাসান তিলকারত্নে, ফারভেজ মাহরুফ, উপুল চন্দনা, নুয়ান কুলাসেকারা, থিলিনা তুষারা, ধামিকা প্রসাদ, চামারা সিলভা, মালিন্দা ওয়ার্নাপুরা, ইন্দিকা ডি সারাম, জিহান মোবারক এবং সামান জয়ন্তের।

এছাড়া বর্তমান ক্রিকেটারদের নিয়ে গড়া টিম শ্রীলঙ্কায় দাসুন শানাকার নেতৃত্বে খেলার কথা ছিল কুশল পেরেরা, অভিষকা ফার্নান্দো, ভানুকা রাজাপক্ষে, ইসুরু উদানা, রমেশ মেন্ডিস, সাডিরা সামারাউইকরামা, থিসারা পেরেরা, পাথুম নিশাঙ্কা, চামিকা করুনারত্নে, লক্ষণ সান্দাকান, রোশেন সিলভা, আসিথা ফার্নান্দো ও বিজয়াকান্ত বিজাসকান্ত। এদের মধ্যে পেরেরা অবশ্য সোমবার অবসরের ঘোষণা দিয়েছেন।

শ্রীলঙ্কায় বর্তমানে করোনার তৃতীয় ঢেউ চলছে। সংক্রমণের বৃদ্ধি ঠেকাতে গত রবিবার (২ এপ্রিল) থেকে দেশটির বিভিন্ন জায়গায় লকডাউন জারি করা হয়েছে। দেশটির ক্রিকেট অঙ্গনেও অনেকটা স্থবিরতার শঙ্কা রয়েছে। সদ্য শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে টেস্ট সিরিজ শেষ করা বাংলাদেশ দল মঙ্গলবার দেশে ফিরে আসবে।