করোনায় থমকে যেতে নারাজ অ্যান্ডারসন

করোনাভাইরাসের কারণে বন্ধ সব ধরণের ক্রিকেট। ইংল্যান্ডের পেসার জেমস অ্যান্ডারসন প্রহর গুণছেন আবারো মাঠে ফেরার। করোনাভাইরাসের কারণে ক্রিকেট ক্যারিয়ার থামিয়ে দেয়ার চিন্তা নেই ৩৭ বছর বয়সী এ টেস্ট ক্রিকেটারের মাঝে।

করোনাভাইরাস প্রকোপ শেষে ফেরা নিয়ে আশাবাদী অ্যান্ডারসন

Advertisment

টেস্টে সর্বোচ্চ উইকেটশিকারী এই পেস বোলার ক্য্যারিয়ারের গোধূলীতেই আছেন। আন্তর্জাতিক ক্রিকেট ক্যারিয়ারের বয়স প্রায় দেড় যুগ। তবে এখনই থামতে চান না অ্যান্ডারসন। করোনাভাইরাসের প্রকোপ শেষে মাঠে ফিরতে চান তিনি।

তিনি বলেন, “আর কখনো ক্রিকেট খেলব না এমন কোনো চিন্তা আমার নেই। আমি আশা করি আমরা একসাথে আবার খেলব এবং আগের পর্যায়ে আবার ফিরব।” 

আমি এখনো খেলার জন্য ক্ষুধার্ত। ইংল্যান্ডের হয়ে খেলার আশা এখনো আমার আছে, ” যোগ করেন তিনি।

করোনাভাইরাসের প্রকোপে পুরো গোটা ইংল্যান্ড এখন লকডডাউন। তাই বাইরে বের হওয়ার সুযোগ নেই জিমির। নিজেকে ফিট রাখতে  ঘরে বসেই সতীর্থদের সাথে ভার্চুয়ালি ওয়ার্কআউট করছেন এ অভিজ্ঞ ক্রিকেটার। তিনি বলেন, “আমরা কয়েকজন মিলে ভার্চুয়ালি একসাথে ট্রেনিং করছি। গতকাল স্টুয়ার্ট ব্রড এবং মার্ক উডের সাথে ট্রেনিং করেছি।” নিজেদের মদহ্যে প্রতিযোগিতাও হচ্ছে বলে জানান তিনি।

সম্প্রতি পাঁজরের চোটটা ভোগাচ্ছে অ্যান্ডারসনকে। সেই চোটের কারণে জানুয়ারিতে দক্ষিণ আফ্রিকা সফর থেকে ছিটকে গিয়েছিলেন তিনি। সেই চোট নিয়ে বলেন, “চোট পাওয়াটা হতাশার ব্যাপার। তাও ভাগ্য ভালো যে চোটটা পাঁজরের। পেশির কোনো চোট হলে সেরে উঠতে অনেক সময় লেগে যেত।”

অ্যান্ডারসনকে সাহায্য করছে তার পরিবারও। তেমন একটি ভিডিও তিনি দিয়েছেন ইন্সটাগ্রামে।

 

View this post on Instagram

 

The girls are more than happy to help me train at home ?

A post shared by James Anderson (@jimmya9) on